এশিয়ার মেগাসিটিগুলোর মধ্যে সবচেয়ে ঝুঁকিপূর্ণ ঢাকা

জলবায়ু পরিবর্তনজনিত কারণে এশিয়ার মেগাসিটিগুলোর মধ্যে সবচেয়ে ঝুঁকিপূর্ণ শহর বাংলাদেশের রাজধানী ঢাকা৷ ওয়ার্ল্ড ওয়াইল্ড লাইফ ফান্ড বা ডাব্লিউ ডাব্লিউ এফের সদ্য প্রকাশিত রির্পোটে এই তথ্য জানানো হয়েছে৷

অপরদিকে তৃতীয় অবস্থানে থাকা কলকাতা শহরের বিষয়ে বলা হয়েছে, এই শহরের অবস্থা অনেকটাই বাংলাদেশের রাজধানী ঢাকার মত৷ কলকাতায় গড় তাপমাত্রা বেড়েছে শূন্য দশমিক ৬৮ সেলসিয়াস৷ তাছাড়া সেখানে মাঝে মাঝেই হচ্ছে ভারী বৃষ্টিপাত৷ এ সবই হচ্ছে জলবায়ু পরিবর্তনের প্রভাবে৷ সমুদ্র পৃষ্টের উচ্চতা বৃদ্ধির কারণে সেখানে নোনা পানি ঢুকে পড়ার কারণে সৃষ্টি হবে খাবার পানির সংকট, কৃষি জমি হারাবে উর্বরতা৷

প্রতিবেদক: সাগর সরওয়ার

সম্পাদনা: আবদুস সাত্তার

এশিয়ার এগারটি ঝুঁকিপূর্ণ শহরের মধ্যে দ্বিতীয় অবস্থানে রয়েছে ম্যানিলা এবং জার্কাতা৷ ভারতের কলকাতা এবং ক্যাম্বোডিয়ার নমপেনের অবস্থান তৃতীয়৷ এরপর আছে ভিয়েতনামের হো চি মিন সিটি এবং চীনের সাংহাই৷ পঞ্চম অবস্থানে আছে থাই রাজধানী ব্যাংকক৷ মালয়েশিয়ার কুয়ালালামপুর, চীনের হংকং এবং সিঙ্গাপুরের অবস্থান ৬ -এ৷

আসছে ডিসেম্বরে ডেনিশ শহর কোপেনহেগেনে বিশ্ব জলবায়ু সম্মেলনের ঠিক আগে এই গবেষণা প্রতিবেদনটি প্রকাশ করলো ওয়ার্ল্ড ওয়াইল্ড লাইফ ফান্ড৷ তারা জানিয়ে দিল এই মেগাসিটিগুলো বিশ্ব উষ্ণায়নের সরাসরি শিকার হচ্ছে৷ ঢাকা ম্যানিলা এবং জার্কাতার মোট জনসংখ্যা এখন প্রায় চার কোটি ৯০ লাখ৷ বিশাল এই জনগোষ্ঠীর জীবন নিরাপত্তা এবং স্বাস্থ্যখাতে মারাত্মক প্রভাব ফেলবে বলেই জানানো হচ্ছে এই প্রতিবেদনে৷

ঢাকা বিষয়ে বলা হয়েছে, গত ১৪ বছরের মধ্যে বাংলাদেশের ঘনবসতিপূর্ণ এই শহরের তাপমাত্রা বেড়ে গেছে৷ গবেষণায় দেখা যাচ্ছে, সেখানে মে মাসে গড় তাপমাত্রা ১৪ বছর আগের একই মাসের তুলনায় বেড়েছে ১ ডিগ্রী সেলসিয়াস৷ নভেম্বরে এই তাপমাত্রা ঐ সময়ের তুলনায় বেড়েছে শূন্য দশমিক ৫ ডিগ্রী সেলসিয়াস৷ একই সঙ্গে অতিবৃষ্টির কবলেও পড়েছে শহরটি৷ বলা হয়েছে, সমুদ্রপৃষ্ঠের উচ্চতা বৃদ্ধি, অতিবৃষ্টি, বন্যা এই শহরের জন্য সবচেয়ে হুমকি৷ সমুদ্র থেকে ঢাকা মাত্র ১ মিটার উঁচুতে অবস্থান করছে৷ একই সঙ্গে রাজধানীর আশে পাশের বিভিন্ন বন্যাপ্রবন এলাকায় মানুষের আবাস গড়ার জন্য নানা ঝুঁকির সম্মুখিন তারা৷ কারণ বন্যা হলে এখন পানি নামার পথগুলো বন্ধ৷ এ অবস্থায় পনি ব্যবস্থাপনার দিকে মনোনিবেশ করতে কতৃপক্ষের প্রতি দৃষ্টি আকর্ষণ করেছে ওয়ার্ল্ড ওয়াইল্ড লাইফ ফান্ড৷ ঢাকার সব পরিস্থিতিকে যোগ করে দেখা গেছে ১০ পয়েন্টের মধ্যে এই শহরের ঝুঁকির পয়েন্ট ৯৷ এশিয়ার এগারো মেগাসিটির মধ্যে সবচেয়ে বিপদগ্রস্ত শহর ঢাকা৷

অপরদিকে তৃতীয় অবস্থানে থাকা কলকাতা শহরের বিষয়ে বলা হয়েছে, এই শহরের অবস্থা অনেকটাই বাংলাদেশের রাজধানী ঢাকার মত৷ কলকাতায় গড় তাপমাত্রা বেড়েছে শূন্য দশমিক ৬৮ সেলসিয়াস৷ তাছাড়া সেখানে মাঝে মাঝেই হচ্ছে ভারী বৃষ্টিপাত৷ এ সবই হচ্ছে জলবায়ু পরিবর্তনের প্রভাবে৷ সমুদ্র পৃষ্টের উচ্চতা বৃদ্ধির কারণে সেখানে নোনা পানি ঢুকে পড়ার কারণে সৃষ্টি হবে খাবার পানির সংকট, কৃষি জমি হারাবে উর্বরতা৷

প্রতিবেদক: সাগর সরওয়ার

সম্পাদনা: আবদুস সাত্তার

এশিয়ার এগারটি ঝুঁকিপূর্ণ শহরের মধ্যে দ্বিতীয় অবস্থানে রয়েছে ম্যানিলা এবং জার্কাতা৷ ভারতের কলকাতা এবং ক্যাম্বোডিয়ার নমপেনের অবস্থান তৃতীয়৷ এরপর আছে ভিয়েতনামের হো চি মিন সিটি এবং চীনের সাংহাই৷ পঞ্চম অবস্থানে আছে থাই রাজধানী ব্যাংকক৷ মালয়েশিয়ার কুয়ালালামপুর, চীনের হংকং এবং সিঙ্গাপুরের অবস্থান ৬ -এ৷

আসছে ডিসেম্বরে ডেনিশ শহর কোপেনহেগেনে বিশ্ব জলবায়ু সম্মেলনের ঠিক আগে এই গবেষণা প্রতিবেদনটি প্রকাশ করলো ওয়ার্ল্ড ওয়াইল্ড লাইফ ফান্ড৷ তারা জানিয়ে দিল এই মেগাসিটিগুলো বিশ্ব উষ্ণায়নের সরাসরি শিকার হচ্ছে৷ ঢাকা ম্যানিলা এবং জার্কাতার মোট জনসংখ্যা এখন প্রায় চার কোটি ৯০ লাখ৷ বিশাল এই জনগোষ্ঠীর জীবন নিরাপত্তা এবং স্বাস্থ্যখাতে মারাত্মক প্রভাব ফেলবে বলেই জানানো হচ্ছে এই প্রতিবেদনে৷

ঢাকা বিষয়ে বলা হয়েছে, গত ১৪ বছরের মধ্যে বাংলাদেশের ঘনবসতিপূর্ণ এই শহরের তাপমাত্রা বেড়ে গেছে৷ গবেষণায় দেখা যাচ্ছে, সেখানে মে মাসে গড় তাপমাত্রা ১৪ বছর আগের একই মাসের তুলনায় বেড়েছে ১ ডিগ্রী সেলসিয়াস৷ নভেম্বরে এই তাপমাত্রা ঐ সময়ের তুলনায় বেড়েছে শূন্য দশমিক ৫ ডিগ্রী সেলসিয়াস৷ একই সঙ্গে অতিবৃষ্টির কবলেও পড়েছে শহরটি৷ বলা হয়েছে, সমুদ্রপৃষ্ঠের উচ্চতা বৃদ্ধি, অতিবৃষ্টি, বন্যা এই শহরের জন্য সবচেয়ে হুমকি৷ সমুদ্র থেকে ঢাকা মাত্র ১ মিটার উঁচুতে অবস্থান করছে৷ একই সঙ্গে রাজধানীর আশে পাশের বিভিন্ন বন্যাপ্রবন এলাকায় মানুষের আবাস গড়ার জন্য নানা ঝুঁকির সম্মুখিন তারা৷ কারণ বন্যা হলে এখন পানি নামার পথগুলো বন্ধ৷ এ অবস্থায় পনি ব্যবস্থাপনার দিকে মনোনিবেশ করতে কতৃপক্ষের প্রতি দৃষ্টি আকর্ষণ করেছে ওয়ার্ল্ড ওয়াইল্ড লাইফ ফান্ড৷ ঢাকার সব পরিস্থিতিকে যোগ করে দেখা গেছে ১০ পয়েন্টের মধ্যে এই শহরের ঝুঁকির পয়েন্ট ৯৷ এশিয়ার এগারো মেগাসিটির মধ্যে সবচেয়ে বিপদগ্রস্ত শহর ঢাকা৷

অপরদিকে তৃতীয় অবস্থানে থাকা কলকাতা শহরের বিষয়ে বলা হয়েছে, এই শহরের অবস্থা অনেকটাই বাংলাদেশের রাজধানী ঢাকার মত৷ কলকাতায় গড় তাপমাত্রা বেড়েছে শূন্য দশমিক ৬৮ সেলসিয়াস৷ তাছাড়া সেখানে মাঝে মাঝেই হচ্ছে ভারী বৃষ্টিপাত৷ এ সবই হচ্ছে জলবায়ু পরিবর্তনের প্রভাবে৷ সমুদ্র পৃষ্টের উচ্চতা বৃদ্ধির কারণে সেখানে নোনা পানি ঢুকে পড়ার কারণে সৃষ্টি হবে খাবার পানির সংকট, কৃষি জমি হারাবে উর্বরতা৷

প্রতিবেদক: সাগর সরওয়ার

সম্পাদনা: আবদুস সাত্তার