বিশ্ব

কুর্দিস্তানের পর ইউরোপেও স্বাধীনতার ‘অবৈধ’ গণভোট

স্পেনের ফেডারেল সরকার ও সাংবিধানিক আদালতের বিরোধিতার তোয়াক্কা না করে স্বাধীনতার প্রশ্নে কাটালুনিয়া রাজ্যে গণভোট অনুষ্ঠিত হয়েছে৷ প্রায় ৯০ শতাংশ ভোটার স্বাধীনতার পক্ষে রায় দিলেও বিতর্ক শেষ হচ্ছে না৷

default

রবিবার স্পেনের কাটালুনিয়ায় একটি ভোটকেন্দ্রের বাইরের দৃশ্য

গত সপ্তাহে ইরাকি কুর্দিস্তানের মতো সপ্তাহান্তে স্পেনের কাটালুনিয়া রাজ্যেও স্বাধীনতার প্রশ্নে গণভোট অনুষ্ঠিত হলো৷ মাদ্রিদের ফেডারেল সরকার এই উদ্যোগকে অবৈধ ও অসাংবিধানিক আখ্যা দিয়ে বল প্রয়োগ করেও গণভোট বন্ধ করার চেষ্টা চালিয়েছে৷ ফেডারেল পুলিশ বাহিনীর বাধা সত্ত্বেও বিশাল সংখ্যক মানুষ এই গণভোটে অংশ নিয়েছেন৷ এমনকি রাবার বুলেটও ব্যবহার করা হয়েছে৷ কাটালুনিয়ার কর্মকর্তাদের সূত্র অনুযায়ী, প্রায় ৮৪৪ জন সাধারণ মানুষ ও ১২ জন পুলিশকর্মী আহত হয়েছে৷

রাজ্য সরকারের দাবি, প্রায় ৯০ শতাংশ ভোটার কাটালুনিয়ার স্বাধীনতার পক্ষে রায় দিয়েছেন৷ ২২ লক্ষ ৬০ হাজার ভোটার, অর্থাৎ ৪২ শতাংশ গণভোটে অংশ নিয়েছেন৷ এ দিনের হিংসাত্মক পরিবেশ সম্পর্কে কাটালুনিয়া রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী কারলেস পুজেমন এক টেলিভিশন ভাষণে বলেন, আশা ও কষ্টের এমন দিনে কাটালুনিয়ার নাগরিকরা প্রজাতন্ত্রের রূপে এক স্বাধীন রাষ্ট্রের অধিকার অর্জন করেছেন৷ তিনি আরও বলেন, তাঁর সরকার আগামী কয়েক দিনের মধ্যে গণভোটের ফলাফল কাটালুনিয়ার সংসদের কাছে পাঠিয়ে দেবে৷ জাতির সার্বভৌমত্ব সংসদে থাকায় সংসদই গণভোটের আইন অনুযায়ী পরবর্তী পদক্ষেপ নেবে৷ উল্লেখ্য, এর আগে তিনি গণভোটের রায়ের ৪৮ ঘণ্টার মধ্যে স্বাধীনতা ঘোষণা করবেন বলে জানিয়েছিলেন৷

মাদ্রিদে ফেডারেল সরকার শুরু থেকেই এই গণভোটের উদ্যোগের তীব্র বিরোধিতা করে আসছে৷ এমন একতরফা পদক্ষেপকে অসাংবিধানিক হিসেবে আখ্যা দিয়ে গণভোট বা তার রায়কে স্বীকৃতি দেয় নি সরকার৷ স্পেনের সাংবিধানিক আদালতও এই গণভোটকে অবৈধ ঘোষণা করেছে৷ বিশেষ করে কাটালুনিয়ার গণভোট আইনে ন্যূনতম ভোটের হারের কোনো উল্লেখ না থাকায় অনেক মহল থেকে সমালোচনা শোনা যাচ্ছে৷ সমালোচকদের মতে, এর ফলে যারা স্পেনের ঐক্যের পক্ষে অবস্থান নিয়েছেন, তাঁরা গণভোট বর্জন করে বঞ্চিত হবেন৷

কাটালুনিয়ার স্বাধীনতার এই একতরফা উদ্যোগ নিয়ে ইউরোপের বিভিন্ন অংশে চরম অস্বস্তি দেখা যাচ্ছে৷ এমন দৃষ্টান্ত বিচ্ছিন্নতাকামী গোষ্ঠীদের উৎসাহ দিতে পারে বলে কিছু দেশের সরকার আশঙ্কা করছে৷ স্কটল্যান্ড নিয়ে উদ্বিগ্ন ব্রিটেনের পররাষ্ট্রমন্ত্রী বরিস জনসন বার্সোলোনায় হিংসা নিয়ে দুশ্চিন্তা প্রকাশ করেও মাদ্রিদে কেন্দ্রীয় সরকারের প্রতি সমর্থন জানিয়েছেন৷

স্কটল্যান্ডের স্বাধীনতাকামী নেতা নিকোলা স্টার্জেন ভোটারদের বিরুদ্ধে স্পেনের পুলিশের কড়া পদক্ষেপের সমালোচনা করেছেন৷

এসবি/এসিবি (রয়টার্স, এএফপি)

নির্বাচিত প্রতিবেদন

Albanian Shqip

Amharic አማርኛ

Arabic العربية

Bengali বাংলা

Bosnian B/H/S

Bulgarian Български

Chinese (Simplified) 简

Chinese (Traditional) 繁

Croatian Hrvatski

Dari دری

English English

French Français

German Deutsch

Greek Ελληνικά

Hausa Hausa

Hindi हिन्दी

Indonesian Bahasa Indonesia

Kiswahili Kiswahili

Macedonian Македонски

Pashto پښتو

Persian فارسی

Polish Polski

Portuguese Português para África

Portuguese Português do Brasil

Romanian Română

Russian Русский

Serbian Српски/Srpski

Spanish Español

Turkish Türkçe

Ukrainian Українська

Urdu اردو