ব্লগ

পর্যটনও একটা শিল্প

জার্মানি শিল্প-প্রযুক্তির দেশ৷ আবার এদেশে বেড়াতে এলে মনে হবে, যেন পর্যটনের দেশ৷ জার্মানরা আসলে শিল্প এবং পর্যটন, দু’টিকেই সমান গুরুত্ব দেন, সমান আন্তরিকতার সঙ্গে হাসিল করেন৷

ঘোড়ায় চড়তে ভালোবাসেন অনেকেই

বিদেশি পর্যটকদের দৃষ্টিকোণ থেকে জার্মানি বিশ্বের সবচেয়ে জনপ্রিয় দেশগুলির একটি৷ আবার জার্মানরা বিদেশের মতো স্বদেশেও বেড়াতে ভালোবাসেন, যদিও সেখানে পার্থক্য থেকে যায়৷ বিদেশি টুরিস্টদের কাছে সবচেয়ে প্রিয় এলাকা হলো বাভেরিয়া৷ দেশি পর্যটক, অর্থাৎ জার্মানদের কাছে কিন্তু মেকলেনবুর্গ আর পশ্চিম পমেরানিয়া৷

সব মিলিয়ে জার্মানির পর্যটন শিল্পের বাৎসরিক লেনদেনের পরিমাণ হলো ১৪,০০০ কোটি ইউরো৷ জার্মানির জিডিপির প্রায় নয় শতাংশ আসে পর্যটন শিল্প থেকে৷ এই শিল্পে কাজ করেন ২৮ লাখ মানুষ৷ বছরে সাড়ে বারো কোটি অতিথি, তাদের মধ্যে দশ কোটি বিদেশি আর আড়াই কোটি স্বদেশি, মানে জার্মান৷ পরিসংখ্যান আপনাকে জানিয়ে দেবে যে, জার্মানির ৫৪,১৬৬টি হোটেলে প্রায় ২৬ লক্ষ বেড বা শয্যা আছে৷ এইসব হোটেলে বছরে মোট ৩৫ কোটি রাত্রিবাস করেন দেশি-বিদেশি টুরিস্টরা

জার্মানিতে সব কিছুরই হিসেব আছে, সব কিছুই গোণা আছে, নথিবদ্ধ করা আছে৷ কাজেই আমরা আরো জানাতে পারি যে, জার্মানিতে ৬,১৩৫টি মিউজিয়াম, ৩৬০টি থিয়েটার, ৩৪টি অ্যামিউজমেন্ট পার্ক, ৪৫,০০০ টেনিস কোর্ট, ৬৪৮টি গল্ফ লিংকস ও ১২২টি ন্যাশনাল পার্ক ৷ সেই সঙ্গে আছে মাঠে-ঘাটে, বনে-জঙ্গলে ঘুরে বেড়ানোর ১ লাখ ৯০,০০০ কিলোমিটার পায়ে হাঁটার পথ; আর আছে সাইকেলে ঘুরে বেড়ানোর ৪০,০০০ কিলোমিটার পথ৷

টুরিস্টরা কেন জার্মানিতে আসেন?

প্রথমত এদেশে টুরিজমের ইনফ্রাস্ট্রাকচার বা অবকাঠামো আছে৷ পরিবহণ, হোটেল, আর্থিক লেনদেন বা কেনাকাটা, স্বাস্থ্য ব্যবস্থা বা সাধারণ পরিষ্কার-পরিচ্ছন্নতা – সবচেয়ে বড় কথা, নিরাপত্তা, এ সবই বর্তমান৷

দ্বিতীয়ত, নৈসর্গিক বিচারে দেশটা চমকপ্রদ না হলেও, সুখপ্রদ, অর্থাৎ সুন্দর ও সবুজে ঢাকা৷ পোল্যান্ড কিংবা চেক প্রজাতন্ত্রের মতো পূর্ব ইউরোপের কোনো দেশ থেকে জার্মানিতে ঢুকলে প্রথমেই চোখে পড়ে এখানকার মাঠপ্রান্তর, বন-বনানী যেন পরিপাটি করে চুল আঁচড়ে, সাজিয়ে-গুছিয়ে, ইউনিফর্ম পরিয়ে স্কুলের ছেলেমেয়েদের মতো সারি বেঁধে দাঁড় করিয়ে দেওয়া এক প্রকৃতি৷ আবার সুইস অাল্প্সের উদাত্ততাও নেই এখানে, নেই ইটালির রেনেসাঁস শিল্পীর তেলরঙে আঁকা ক্যানভাসের মতো গাঢ় নান্দনিকতা৷ কিন্তু এখানকার প্রকৃতি ফসল দেয়, দেয় স্বাস্থ্য, দেয় হাঁপ ছাড়ার জায়গা৷

তৃতীয়ত, ইউরোপ জুড়ে যুদ্ধে ভাঙচুর রোমানদের আমল থেকেই হচ্ছে, দুই বিশ্বযুদ্ধের তো কথাই নেই৷ তার মধ্যে যে ক'টি দেশ সেই সব ভাঙা বা না ভাঙা, আধভাঙা সব দুর্গ-প্রাসাদ-স্মৃতিসৌধ সারিয়ে, রং-মেরামত করে, সাজিয়ে-গুছিয়ে রাখতে পেরেছে, তাদের মধ্যে সর্বাগ্রে জার্মানির নাম করতে হয়৷

অরুণ শঙ্কর চৌধুরী

অরুণ শঙ্কর চৌধুরী, ডয়চে ভেলে

এদেশে পাঁচশ'-সাতশ' বছরের পুরনো আধা কাঠের বাড়িগুলোকে রাখা হয় নতুন বাড়িগুলোর চেয়েও বেশি যত্নআত্তি করে৷ মালিকের টাকা না থাকলে, সরকারি সাহায্য পাওয়া যায়, কেননা, একটা দেশ, একটা জাতির অতীতকে বাঁচিয়ে রাখার কর্তব্য তো শুধু এককভাবে নাগরিকের হতে পারে না৷

ইতিহাস ইতিহাসই

ইতিহাসের ভালো-মন্দ, নীতি-নৈতিকতা নেই৷ মানুষকে যা টানে, মানুষ যা দেখতে চায়, তাই ইতিহাস৷ তাই বার্লিন প্রাচীরের অবশেষ আর চেকপয়েন্ট চার্লি দেখতে জার্মানিতে আসেন বহু পর্যটক৷ সেই পর্যটকরাই আবার রাইন নদের ধারে রোমক উপনিবেশের চিহ্ন দেখতে যান, যা গত শতাব্দীর না হয়ে পাক্কা দু'হাজার বছর পুরনো৷ এভাবেই ব্যারোক, রকোকো, রোম্যান্টিক বা নিও-ক্লাসিক্যাল স্থাপত্য ও শিল্পকলার হাজার বছরের নিদর্শন সযত্নে রক্ষিত ও সুরক্ষিত আছে জার্মানিতে - টুরিস্টদের অপেক্ষায়৷

শুধু জার্মানি কেন, ইউরোপের প্রায় সব দেশ, সব জাতিই অল্পবিস্তর টুরিজমের মর্ম বোঝে বা আবিষ্কার করে ফেলেছে৷ টুরিস্ট মানে যে বাড়ি এসে বিজ্ঞাপন দেখে যায়, অন্য আরো পঁচিশ ধরণের পঁচিশটা পণ্যের বিজ্ঞাপন৷ উন্নত দেশে সব শিল্পই সব শিল্পের সঙ্গে যুক্ত, সব মিলিয়ে যেন একটি সিমফনি অর্কেস্ট্রা৷ অনেকগুলি বাদ্যযন্ত্র বাজছে, কিন্তু ঐকতানে৷ তৃতীয় বিশ্বে একতরফাভাবে টুরিজমের ডেভেলপমেন্ট করার চেষ্টা করা হয়৷ জার্মানিতে দেখেশুনে মনে হয়, সর্বাঙ্গীন ডেভেলপমেন্ট ছাড়া টুরিজমের ডেভেলপমেন্টও সম্ভব নয়৷

আপনার কি কিছু বলার আছে? লিখুন নীচের মন্তব্যের ঘরে৷

নির্বাচিত প্রতিবেদন

Albanian Shqip

Amharic አማርኛ

Arabic العربية

Bengali বাংলা

Bosnian B/H/S

Bulgarian Български

Chinese (Simplified) 简

Chinese (Traditional) 繁

Croatian Hrvatski

Dari دری

English English

French Français

German Deutsch

Greek Ελληνικά

Hausa Hausa

Hindi हिन्दी

Indonesian Bahasa Indonesia

Kiswahili Kiswahili

Macedonian Македонски

Pashto پښتو

Persian فارسی

Polish Polski

Portuguese Português para África

Portuguese Português do Brasil

Romanian Română

Russian Русский

Serbian Српски/Srpski

Spanish Español

Turkish Türkçe

Ukrainian Українська

Urdu اردو