আলাপ

বাংলাদেশের মুসলিমরা মধ্যপ্রাচ্যের মতো উগ্র নয়: অজয় রায়

নিহত ব্লগার ও লেখক অভিজিৎ রায়ের বাবা অধ্যাপক ড. অজয় রায় বলেন, বাংলাদেশ যদিও মুসলিম সংখ্যাগরিষ্ঠ একটি রাষ্ট্র তবুও বাংলাদেশের মুসলিমরা মধ্যপ্রাচ্যের মুসলিমদের মতো উগ্র নয়৷

Bangladesch Ajoy Roy, Vater der ermordeten Bloggerin Avijit Roy

সম্প্রতি এক আলোচনা সভায় অজয় রায় বলেন, ‘‘বাংলাদেশে সাম্প্রদায়িকতার পেছনে রয়েছে সশস্ত্র মৌলবাদীরা৷ জনগণ ঐক্যবদ্ধ হলে মৌলবাদী গোষ্ঠীর সমূলে উৎপাটন সম্ভব৷'' কিন্তু জনগণকে ঐক্যবদ্ধ করতে হলে কী করতে হবে জানতে চাইলে অজয় রায় ডয়চে ভেলেকে বলেন, ‘‘এটার জন্য জনগণের মধ্যে রাজনৈতিক সচেতনতা সৃষ্টি করতে হবে৷ আমাদের বাংলাদেশ যদিও মুসলিম সংখ্যাগরিষ্ঠ রাষ্ট্র, তবুও বাংলাদেশের মুসলিমরা মধ্যপ্রাচ্যের মুসলমানদের মতো উগ্র নয়৷ বাংলাদেশের মুসলিমরা সুফি প্রভাবিত মুসলিম৷ সুফিরা পরমতসহিষ্ণু ও শান্তিপ্রিয় হয়৷ সুফিরাই বাংলাদেশে ইসলাম ধর্ম প্রচারে মুখ্য ভূমিকা পালন করেছে৷ বাংলাদেশে ইসলাম ‘এক হাতে তরবারি, আরেক হাতে কোরান' এই পদ্ধতিতে প্রচারিত হয় নাই৷''

অডিও শুনুন 11:21

‘আওয়ামী লীগ নিরর্থক ভয় পায়’

জঙ্গি তৎপরতা বন্ধে সরকারের তৎপরতা নিয়ে সন্দেহ পোষণ করেন বিশিষ্ট পদার্থ বিজ্ঞানী অজয় রায়৷ তিনি বলেন, ‘‘সরকার সত্যিকার অর্থে জঙ্গি তৎপরতা বন্ধ করতে চাচ্ছে কিনা তা নিয়ে সন্দেহ আছে কেননা সরকার এমন কিছু করতে চায় না যেটার দ্বারা তাদের বিব্রত হতে হয়৷'' ভোটের রাজনীতির কারণে সরকার মৌলবাদীদের সেভাবে দমন করতে আগ্রহী নয় বলে মনে করেন তিনি৷ তবে আওয়ামী লীগ নিরর্থক ভয় পায় বলে মন্তব্য করেন অজয় রায়৷ ‘‘আওয়ামী লীগের ভয়, মৌলবাদীদের যদি শাসন করা হয় তাহলে সাধারণ মুসলমানরা হয়ত তাদের উপর বিরূপ মনোভাব পোষণ করবে৷ কিন্তু আমি এটা মনে করি না, কেননা শেখ হাসিনার দল আওয়ামী লীগ ভালোভাবেই জানে যে তারা মৌলবাদীদের এক শতাংশ ভোটও পাবে না৷ আওয়ামী লীগের নিজস্ব যে ভোটব্যাংক আছে সেটা কমার কোনো লক্ষণ এখন পর্যন্ত দেখা যায়নি৷ সুতরাং আওয়ামী লীগ নিরর্থক ভয় পায়৷''

অভিজিৎ হত্যাকাণ্ড থেকে শুরু করে পরপর কয়েকজন ব্লগার ও প্রকাশক হত্যার তদন্ত ও বিচার প্রক্রিয়া নিয়ে কিছুটা হতাশ অজয় রায়৷ সাম্প্রতিক সময়ে বইমেলায় ব-দ্বীপ প্রকাশনীর স্টল বন্ধ করে দেয়ার ঘটনায়ও উদ্বিগ্ন তিনি৷ ‘‘বাংলাদেশে বর্তমানে যে পরিস্থিতি বিরাজ করছে তাতে মুক্তবুদ্ধি চর্চার স্থান বা আয়তন ক্রমশ সংকুচিত হয়ে যাচ্ছে৷ এভাবে চলতে থাকলে বাংলাদেশ একটা ইসলামিক স্টেট-এ পরিণত হবে'', বলেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক অধ্যাপক অজয় রায়৷

অভিজিৎ হত্যার ঘটনায় পুলিশ এখনও প্রকৃত হত্যাকারীদের ধরতে পারেনি বলে জানান তিনি৷ পুলিশ নিজেও এই কথা স্বীকার করে৷ ‘‘সন্দেহভাজন হিসাবে যে ৮-১০ জনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে তাদের সম্পর্কে পুলিশ নিজেরাই বলেছে, এদের মধ্যে অভিজিতের প্রকৃত হত্যাকারীরা নেই৷ কিন্তু ওদের (পুলিশ) উদ্দেশ্যে ওদেরকে (সন্দেহভাজনদের) রিমান্ডে রাখা হচ্ছে, যদি চাপে পড়ে কিছু স্বীকারোক্তি দেয়৷ কিন্তু এখন পর্যন্ত তারা কোনোরকম জবানবন্দি দেয় নাই৷''

অবশ্য অভিজিৎ হত্যায় সুবিচার পাবার আশা করছেন তিনি৷ ‘‘এফবিআই এর কাছ থেকে প্রতিবেদন (ডিএনএ সংশ্লিষ্ট) আসার পর আমি মনে করি আমাদের গোয়েন্দা বিভাগ অভিজিৎ হত্যার ব্যাপারটায় আরেকটু মনোযোগ দিতে পারবে৷''

প্রিয় পাঠক, অজয় রায়ের বক্তব্যের সঙ্গে কি আপনি একমত? জানাতে পারেন নীচে মন্তব্যের ঘরে৷

নির্বাচিত প্রতিবেদন

এই বিষয়ে অডিও এবং ভিডিও

Albanian Shqip

Amharic አማርኛ

Arabic العربية

Bengali বাংলা

Bosnian B/H/S

Bulgarian Български

Chinese (Simplified) 简

Chinese (Traditional) 繁

Croatian Hrvatski

Dari دری

English English

French Français

German Deutsch

Greek Ελληνικά

Hausa Hausa

Hindi हिन्दी

Indonesian Bahasa Indonesia

Kiswahili Kiswahili

Macedonian Македонски

Pashto پښتو

Persian فارسی

Polish Polski

Portuguese Português para África

Portuguese Português do Brasil

Romanian Română

Russian Русский

Serbian Српски/Srpski

Spanish Español

Turkish Türkçe

Ukrainian Українська

Urdu اردو