বাংলাদেশ

বেসরকারি খাতে স্বাস্থ্যসেবায় এগিয়ে আইসিডিডিআরবি, ব্র্যাক

বাংলাদেশে স্বাস্থ্যসেবা ও গবেষণার দিক থেকে বেসরকারি সংস্থাগুলো বেশ এগিয়ে৷ এক্ষেত্রে কয়েকটি সংস্থার নাম উল্লেখযোগ্য, যেমন আইসিডিডিআরবি, সিআরপি, ব্র্যাক এবং আশা৷ এছাড়া কেয়ার বাংলাদেশেরও কিছু প্রকল্প রয়েছে৷

Infolady Projekt gewinnt Global Media Forum Auszeichnung (D.net/Amirul Rajiv)

আইসিডিডিআরবি

স্বাস্থ্যখাতে সফলতার সঙ্গে কাজ করে চলেছে আন্তর্জাতিক উদরাময় গবেষণা কেন্দ্র বাংলাদেশ (আইসিডিডিআরবি)৷

বিভিন্ন গবেষণা ও রোগ নিয়ন্ত্রণে কার্যকর ভূমিকা রাখার কারণে প্রশংসিত এই প্রতিষ্ঠান৷ চিকিৎসা সেবা দান ও গবেষণার পাশাপাশি প্রতিষ্ঠানটি স্বাস্থ্যখাতে নিয়োজিতদের বিভিন্ন প্রশিক্ষণের মাধ্যমে দক্ষ কর্মী হিসেবে গড়ে তুলছে৷ এ বছরের জুলাইতে প্রকাশিত আইসিডিডিআরবির ২০১৫ সালের বার্ষিক প্রতিবেদনে জানানো হয়েছে, মাতৃত্ব ও শিশুকালীন মৃত্যুর হার হ্রাস, পুষ্টি নিশ্চিতকরণ, অন্ত্র ও শ্বাসতন্ত্রে সংক্রমণ রোধসহ নানাক্ষেত্রে ব্যাপক সাফল্য দেখিয়েছে প্রতিষ্ঠানটি৷ 

এর মধ্যে পাঁচটি ক্ষেত্রে বিশেষ সাফল্য পেয়েছে আইসিডিডিআরবি৷

মাতৃমৃত্যুর হ্রাস
২০১৫ সালে আইসিডিডিআরবি বিশেষ একটি ভ্যাকসিনের কার্যকারিতার পরীক্ষা চালিয়েছে, যার মাধ্যমে সন্তানসম্ভবা মায়েরা জন্ডিস থেকে সুরক্ষা পেতে পারেন৷ জন্ডিস সাধারণত হেপাটাইটিস ই ভাইরাসের (এইচইভি) কারণে হয়ে থাকে, যেটা এইচইভি-২৩৯ নামে ওই ভ্যাকসিনের মাধ্যমে প্রতিরোধ করা যেতে পারে৷

শিশুর স্বাস্থ্য সুরক্ষা
শিশুর স্বাস্থ্য সুরক্ষায়ও বেশ কিছু সফলতা দেখিয়েছে আইসিডিডিআরবি৷ এরমধ্যে মারাত্মক নিউমোনিয়া প্রতিরোধে ‘বাবল সিপাপ' নামে এক ধরনের অক্সিজেন থেরাপি ও কলেরা প্রতিরোধে ‘সঞ্চল' নামে একটি ভ্যাকসিনের কার্যকারিতার পরীক্ষার কথা উল্লেখ করা যায়৷

শিশু মৃত্যুর হার হ্রাস
অপরিণত বয়সের শিশু ও কম ওজনের শিশুকে সুরক্ষা দেওয়ার অন্যতম পন্থা ক্যাঙ্গারু মাদার কেয়ার (কেএমসি) এর মাধ্যমে শিশু মৃত্যুর হার হ্রাসেও সাফল্য দেখিয়েছে আইসিডিডিআরবি৷ শিশুদের টাইফয়েডের কারণ হিসাবে ‘সালমোনেলা টাইফি' ইনফেকশনের জন্য নিদিষ্ট একটি টেস্টের উদ্ভাবন করা হয়েছে, যা শিশুদের টাইফয়েড নির্নয়ে অত্যন্ত কার্যকর৷

স্বাস্থ্যখাতে প্রশিক্ষণ
২০১৫ সালে স্বাস্থ্যখাতের নানা বিষয়ে আইসিডিডিআরবি ১ হাজার ২৯০ জনকে প্রশিক্ষণ দিয়েছে, আয়োজন করেছে ৭১টি প্রশিক্ষণ কর্মসূচি৷

২ লক্ষাধিক রোগীর চিকিৎসা
২০১৫ সালে বিভিন্ন স্বাস্থ্যকেন্দ্র ও হাসপাতালে ২ লাখ ৫ হাজার ৮৮৫ জন রোগীকে চিকিৎসা দিয়েছে আইসিডিডিআরবি৷ রোগীদের মধ্যে বেশিরভাগই ছিল শিশু এবং তাদের অনেকেরই বয়স ৫ বছরের কম৷

গত ২৬ সেপ্টেম্বরে একটি ভিডিও বার্তায় আইসিডিডিআরবির প্রশংসা করেছিলেন জাতিসংঘ মহাসচিব বান কি মুন৷

বাংলাদেশে নবজাতক, শিশুমৃত্যু ও মাতৃমৃত্যু রোধে আইসিডিডিআরবি'র প্রশংসা করেন তিনি৷

ঋতুস্রাব চলাকালীন মেয়েদের স্কুলে যাওয়ার হার বাড়াতে কর্মসূচি:

ঋতুস্রাব চলাকালীন মেয়ে শিক্ষার্থীদের স্কুলে অনুপস্থিতি ঠেকাতে পরীক্ষামূলকভাবে নতুন প্রকল্প কার্যক্রম শুরু করেছে আইসিডিডিআরবি৷ চলতি বছরের ১৬আগস্ট পরীক্ষামূলকভাবে ‘পাইলটিং মেন্সট্রুয়াল হাইজিং ম্যানেজমেন্ট ইন্টারভেনশন আরবান অ্যান্ড রুরাল স্কুলস ইন বাংলাদেশ' শীর্ষক প্রকল্প কার্যক্রম শুরু করে৷ প্রকল্পটি পরিচালনার জন্য আইসিডিডিআরবি ও তাদের আন্তর্জাতিক সহযোগী বিজ্ঞানীরা বিল অ্যান্ড মেলিন্ডা গেটস ফাউন্ডেশন থেকে বড় ধরনের আর্থিক অনুদান পেয়েছে৷ আইসিডিডিআরবির এক গবেষণায় দেখা গেছে, স্কুলগামী মেয়েদের মধ্যে শতকরা ৪০ ভাগ মাসে কমপক্ষে তিনদিন স্কুলে অনুপস্থিত থাকে৷

ব্র্যাকের স্বাস্থ্যসেবা

ব্র্যাকের ‘স্বাস্থ্য কর্মসূচি' দরিদ্র, সুবিধাবঞ্চিত এবং সমাজের প্রান্তবাসী মানুষের কাছে প্রতিরোধমূলক, প্রচারমূলক, প্রতিকারমূলক ও পুনর্বাসনমূলক সমন্বিত স্বাস্থ্যসেবা পৌঁছে দিচ্ছে৷ স্বাস্থ্যক্ষেত্রে টেকসই উন্নয়নের জন্য জনগোষ্ঠীর ক্ষমতায়ন, মানবসম্পদের উন্নয়ন, স্বাস্থ্যসেবা নিশ্চিতকরণ এবং সহায়তামূলক পরিবেশ তৈরি জরুরি বলে স্বাস্থ্য কর্মসূচি বিবেচনা করে৷ গ্রাম ও শহরের দরিদ্র জনগোষ্ঠীর নারীরা ব্র্যাক থেকে প্রশিক্ষণ নিয়ে স্বাস্থ্যসেবিকার কাজ করেন৷

তারা তাদের এলাকায় দরিদ্র মানুষের দোরগোড়ায় গুরুত্বপূর্ণ স্বাস্থ্যসেবা ও সামগ্রী পৌঁছে দেন৷ ব্র্যাক কর্তৃক প্রশিক্ষিত এই স্বাস্থ্যসেবিকারা দেশের অনেক মানুষের কাছে সাশ্রয়ী মূল্যে জরুরি স্বাস্থ্যসেবা পৌঁছে দিচ্ছেন৷ গর্ভবতী, মা ও নবজাতকের স্বাস্থ্যসেবা, পুষ্টিশিক্ষা, ছোঁয়াচে ও অছোঁয়াচে রোগ প্রতিরোধ ও সাধারণ জীবনমান উন্নয়নে সাহায্য করে থাকেন তারা৷

চলতি বছরের জুলাই মাসে গ্রামাঞ্চলে হতদরিদ্র মানুষের জন্য উন্নত চক্ষু চিকিৎসাসেবা দিতে ব্র্যাক ও যুক্তরাষ্ট্রভিত্তিক আন্তর্জাতিক সংস্থা অরবিস ইন্টারন্যাশনালের মধ্যে এক চুক্তি স্বাক্ষরিত হয়েছে৷ চুক্তি আনুযায়ী, কাতার ডেভেলপমেন্ট ফান্ডের একটি প্রকল্পের আর্থিক সহায়তায় হতদরিদ্র ও সাধারণ মানুষের চক্ষু চিকিৎসার জন্য দেশের চারটি স্থানে ‘ভিশন সেন্টার' স্থাপন করা হবে৷ দিনাজপুরের খানসামা, ময়মনসিংহের নান্দাইল, খুলনার ডুমুরিয়া ও কুমিল্লার হোমনা উপজেলায় এই সেন্টারগুলো করা হবে৷

সিআরপি

সেন্টার ফর দ্য রিহ্যাবিলিটেশন অফ দ্য প্যারালাইজ্‌ড বা সিআরপি বাংলাদেশের একটি স্বেচ্ছাসেবী ফিজিওথেরাপি সংগঠন৷

এর মূল কাজ শারীরিকভাবে অক্ষমদের পরিপূর্ণ পুনর্বাসনের ব্যবস্থা করা৷ ১৯৭৯ সালে প্রতিষ্ঠিত এই সংগঠনটির মূলে আছেন বাংলাদেশে বসবাসরত একজন ইংরেজ ফিজিওথেরাপিস্ট যিনি জীবনের অধিকাংশ সময়ই বাংলাদেশে মানবসেবায় ব্যয় করেছেন এবং এখনও করছেন৷ তিনি হলেন ভেলরি এ. টেইলর৷ এই হাসপাতালে মাত্র ৫০ টাকার বিনিময়ে বহির্বিভাগে যে কোনো রোগী দেখানো যায়৷ প্রতি সপ্তাহে শুক্রবার ব্যতীত যে কোনোদিন এ হাসপাতালের বহির্বিভাগ খোলা থাকে৷ প্রতি বছর সিআরপি থেকে প্রায় ৪০০ জন মেরুরজ্জুতে আঘাতপ্রাপ্ত এবং ৪৩ হাজার রোগী বহির্বিভাগ থেকে চিকিৎসা নিয়ে থাকে৷

শিশু বিভাগ

সেরিব্রাল পলসি, কগনিশন ও অটিজমসহ বিভিন্ন ধরনের শারীরিক প্রতিবন্ধিতার শিকার শিশুদের চিকিৎসাসেবার জন্য এখানে রয়েছে শিশু বিভাগ৷

ফিজিওথেরাপি

ফিজিওথেরাপির ক্ষেত্রে ৪০০ টাকা, ২০০ টাকা এবং ১০০ টাকা নেয়া হয়৷ এছাড়া আছে ওকুপেশনাল থেরাপি৷ আছে স্পিচ অ্যান্ড ল্যাঙ্গুয়েজ থেরাপি, অর্থাৎ যাদের কথা বলতে সমস্যা হয়৷

স্পেশাল সিটিং চেয়ার

শারীরিক প্রতিবন্ধিত্বের শিকার শিশুদের দেহভঙ্গি ঠিক রাখা, শরীরের ভারসাম্য বজায় রাখা ও সহজে দৈনন্দিন কাজকর্ম করতে পারার লক্ষ্যকে সামনে রেখে প্রতিষ্ঠিত হয় এই বিভাগ৷

অর্থোটিক্স অ্যান্ড প্রস্থেটিক্স

যাদের হাত  অথবা পা নেই, এমনকি আঙ্গুল নেই তাদের জন্য এখানে বিভিন্ন ধরনের কৃত্রিম অঙ্গ তৈরি করে দেয়া হয়৷ এই কৃত্রিম অঙ্গ লাগিয়ে অনেকেই চলাচল করে থাকেন৷

আশার সাইকোথেরাপি কর্মসূচি:

অ্যাসোসিয়েশন ফর সোশ্যাল অ্যাডভান্সমেন্ট বা আশা ২০১২ সালের ফেব্রুয়ারি থেকে সাইকোথেরাপি কর্মসূচি হাতে নিয়েছে৷ এর ফলে প্রায় হাজারেরও বেশি সংখ্যক মানসিক রোগী বছরে আধুনিক চিকিৎসা সেবা পাচ্ছে৷ এই খাতের সকল খরচ আশা নিজস্ব তহবিল থেকে বহন করে৷ এই প্রোগ্রামটি দেশের সব জায়গায় চালানো হয়৷ প্রোগ্রাম সমন্বয়কারীরা প্রতিটি প্রাক-নির্বাচিত এলাকায় অন্তত তিন দিনের জন্য ক্যাম্পেইনটি করে থাকেন৷

এপিবি/এসিবি

আপনি কি কিছু যোগ করতে চান? লিখুন নীচের মন্তব্যের ঘরে৷

নির্বাচিত প্রতিবেদন

Albanian Shqip

Amharic አማርኛ

Arabic العربية

Bengali বাংলা

Bosnian B/H/S

Bulgarian Български

Chinese (Simplified) 简

Chinese (Traditional) 繁

Croatian Hrvatski

Dari دری

English English

French Français

German Deutsch

Greek Ελληνικά

Hausa Hausa

Hindi हिन्दी

Indonesian Bahasa Indonesia

Kiswahili Kiswahili

Macedonian Македонски

Pashto پښتو

Persian فارسی

Polish Polski

Portuguese Português para África

Portuguese Português do Brasil

Romanian Română

Russian Русский

Serbian Српски/Srpski

Spanish Español

Turkish Türkçe

Ukrainian Українська

Urdu اردو