মুম্বই শহরের এ কী দশা!

পরিবেশ

অচল বাণিজ্যিক রাজধানী

মঙ্গলবার সারাদিনই টানা বৃষ্টি হওয়ায় মুম্বইয়ের বেশিরভাগ রাস্তা ডুবে গেছে পানিতে৷ শহরের বিভিন্ন এলাকায় কোমর পর্যন্ত পানি জমে যায়৷ শহরের অনেক লোক অফিসে ও বন্ধুবান্ধবের বাড়িতে রাত কাটাতে বাধ্য হন৷ বৃষ্টি আর জলাবদ্ধতার কারণে শহরজুড়ে সৃষ্টি হয় অসহনীয় যানজটের৷ বৃষ্টির ধাক্কায় কার্যত অচল হয়ে পড়ে ভারতের বাণিজ্যিক রাজধানী৷

পরিবেশ

স্বাভাবিকের চেয়ে ন’গুণ বৃষ্টি

মঙ্গলবার মুম্বইয়ের কোনো কোনো এলাকায় বৃষ্টি হয়েছে প্রায় ৩০০ মিলিমিটার৷ আবহাওয়া অফিস বলছে, বর্ষা মৌসুমে মুম্বইয়ে একদিনে স্বাভাবিক যে পরিমাণ বৃষ্টি হয়, মঙ্গলবার তার চেয়ে ন’গুণ বেশি বৃষ্টি হয়েছে৷

পরিবেশ

ব্যাহত যান চলাচল

শহরের বেশিরভাগ রাস্তা জলমগ্ন হয়ে পড়ায় অনেক স্থানে গাড়ি নষ্ট হয়ে অসহনীয় যানজটের সৃষ্টি হয়৷ বাধাগ্রস্ত হয়েছে ট্রেন চলাচলও৷ গতকাল বিমানবন্দরের সব কার্যক্রমও বন্ধ থাকলেও আজ তা স্বাভাবিক হয়েছে৷ এ জলাবদ্ধতাকে ২০০৫ সালে মুম্বইয়ের বন্যার সঙ্গে তুলনা করা হচ্ছে৷

পরিবেশ

স্কুল ছুটি

এই অবস্থার মধ্যে শহরের স্কুল-কলেজে ছুটি ঘোষণা করেছে রাজ্য সরকার৷ পানি অপসারণ করে সড়কগুলো চলাচলের উপযোগী করতে কাজ করছে কর্তৃপক্ষ৷

পরিবেশ

১২টি রাজ্যে সতর্কতা

প্রবল বর্ষণের ফলে নতুন করে ১২টি রাজ্যে বন্যা সতর্কতা জারি করেছে দিল্লির আবহাওয়া অফিস৷ মধ্যপ্রদেশ, মহারাষ্ট্র, গুজরাট, গোয়া, ছত্তিশগড়, তেলঙ্গানা, অন্ধ্রপ্রদেশ, তামিলনাড়ু, কেরালা, দমন ও দিউ, রাজস্থান, কর্নাটক-সহ দেশের মোট ১২টি রাজ্যে আগামী তিন দিনে ভারী থেকে অতি ভারী বৃষ্টি হতে পারে বলে জানিয়েছে আবহাওয়া অফিস৷

পরিবেশ

নদীর পানি বইছে বিপদসীমার উপর দিয়ে

আবহাওয়া অফিস বলছে, ঐ ১২টি রাজ্যের ১৪টি নদীর পানি বিপদন সীমার উপর দিয়ে বইছে৷ মাহি, সবরমতী, গোদাবরী, কৃষ্ণা, তাপি, বানাস নদী ৯০-৯৪ শতাংশ জলপূর্ণ৷ ভারী বৃষ্টিপাত শুরু হলে অল্প সময়েই উপচে পড়বে এ সব নদীর পানি৷ ফলে ৪৮ থেকে ৭২ ঘণ্টার মধ্যে বন্যা পরিস্থিতি তৈরি হতে পারে এই রাজ্যগুলিতে৷

পরিবেশ

ছ’জনের মৃত্যু

মঙ্গলবার ঘরের বাইরে কাউকে না বেরনোর পরামর্শ দেন মহারাষ্ট্রের মুখ্যমন্ত্রী৷ প্রবল বৃষ্টিতে বাড়ি ধসসহ কয়েকটি দুর্ঘটনায় মৃত্যু হয়েছে ছয় জনের৷

ভারী বর্ষণের ফলে ভারতের বাণিজ্যিক রাজধানী মুম্বইয়ে জলাবদ্ধতা দেখা দিয়েছে৷ মারা গেছেন ছ’জন৷ আসাম, বিহার, উড়িষ্যা, উত্তর প্রদেশসহ দেশের ছয়টি রাজ্য প্লাবিত৷ আগামী দিনগুলোতে আরও বৃষ্টিপাতের পূর্বাভাস আবহাওয়া অফিসের৷