অধিকাংশ জার্মান ম্যার্কেলকে দায়ী করছেন না

জার্মানিতে গত মাসে দু'টি হামলার সঙ্গে আশ্রয়প্রার্থীরা জড়িত ছিলেন৷ তবে এর জন্য চ্যান্সেলর আঙ্গেলা ম্যার্কেলের শরণার্থী নীতি দায়ী বলে মনে করেন না অধিকাংশ জার্মান নাগরিক৷

বার্লিনভিত্তিক গবেষণা পরিচালনাকারী সংস্থা ‘ফোর্সা' ২৮ ও ২৯ জুলাই এক হাজারেরও বেশি জার্মান নাগরিকের উপর একটি জরিপ করেছে৷ এর মধ্যে ৬৯ শতাংশ ঐ হামলাগুলোর জন্য ম্যার্কেলের শরণার্থী নীতি দায়ী নয়৷

এই দুই হামলার মধ্যে একটি ছিল গত ২৪ জুলাইয়ের৷ সেদিন এক সিরীয় শরণার্থী আন্সবাখ শহরে একটি ফেস্টিভ্যালের বাইরে নিজের শরীরে থাকা বোমার বিস্ফোরণ ঘটান৷ এই ঘটনার কদিন আগে সিরীয় ঐ শরণার্থীর আবেদন প্রত্যাখ্যান করা হয়েছিল এবং তাকে বুলগেরিয়ায় পাঠানোর সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছিল৷

এর ছয়দিন আগে আফগানিস্তান বা পাকিস্তান থেকে আসা ১৭ বছরের এক সঙ্গিহীন শরণার্থী ভ্যুয়র্ত্সবুর্গে একটি ট্রেনে কুড়াল দিয়ে হামলা চালিয়ে পাঁচজনকে আহত করে৷ পরে পুলিশের গুলিতে ঐ ব্যক্তি নিহত হয়৷

তদন্তকারীরা বলছেন, এই দুই হামলার সঙ্গে তথাকথিত ইসলামিক স্টেট বা আইএস-এর সংযোগ আছে৷

মিউনিখ হামলার কিছু ছবি

ঘটনার শুরু

বিপণিবিতানের ম্যাকডোনাল্ড’স-এ ৬টার দিকে প্রথম গুলিবর্ষণ হয় বলে জানা গেছে৷

মিউনিখ হামলার কিছু ছবি

হেলিকপ্টার টহল

অলিম্পিয়া শপিং সেন্টারে সম্ভবত এখনো অনেক কর্মী আটকা পড়ে আছে৷ তবে পুলিশ জানিয়েছে, যে মিউনিখের আকাশে একটি মহড়ার আওতায় অনেক হেলিকপ্টার উড়তে দেখা গেছে।

মিউনিখ হামলার কিছু ছবি

সবাইকে ঘরে থাকার ডাক

ঘটনার পরপরই মিউনিখ কর্তৃপক্ষ শহরবাসীকে ঘর থেকে বের না হওয়ার ডাক দিয়েছেন৷

মিউনিখ হামলার কিছু ছবি

আহত ও নিহত

স্থানীয় পুলিশের বরাত দিয়ে জার্মানির অনেক গণমাধ্যম জানিয়েছে, অনেকে নিহত ও আহত হয়েছে৷

মিউনিখ হামলার কিছু ছবি

ঘটনাস্থলের আশপাশের রাস্তা বন্ধ

অলিম্পিয়া শপিং সেন্টারের আশপাশ ঘিরে রেখেছে পুলিশ৷ আশপাশের সব সড়ক বন্ধ করে দেয়া হয়েছে৷ এই এলাকায় যাতে জনসাধারণ না আসে সেজন্য বার বার অনুরোধ করা হচ্ছে৷

মিউনিখ হামলার কিছু ছবি

বন্ধ রেল ও বাস সার্ভিস

ঘটনার পর মিউনিখে ট্রেন, ট্রাম ও বাসের একাধিক লাইন বন্ধ করে দিয়েছে পরিবহন কর্তৃপক্ষ৷ এতে ট্রেন স্টেশনে আটকা পড়েছে অনেক মানুষ৷

মিউনিখ হামলার কিছু ছবি

লাইভ ফুটেজ না দেখানোর অনুরোধ

পুলিশের অভিযানের কোন লাইভ ভিডিও ফুটেজ না দেখাতে গণমাধ্যমে অনুরোধ জানিয়েছে কর্তৃপক্ষ৷

মিউনিখ হামলার কিছু ছবি

আততায়ী তিন জন

পুলিশ জানিয়েছে, অস্ত্রধারী তিনজনকে গুলি চালাতে দেখা গেছে৷

মিউনিখ হামলার কিছু ছবি

নিখোঁজদের জন্য বিশেষ ব্যবস্থা

মিউনিখ প্রশাসনের পক্ষ থেকে জরুরি নোটিস জারি করা হয়েছে৷ কারো স্বজনের খোঁজ পাওয়া না গেলে +৪৯৮০০৭৭৬৬৩৫০ এই নম্বরে যোগাযোগ করতে বলা হয়েছে৷

মিউনিখ হামলার কিছু ছবি

ব্রিটেনের সতর্কতা

হামলার পর যুক্তরাজ্যের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় জার্মানিতে অবস্থানরত নাগরিকদের মিউনিখের ওই এলাকা এড়িয়ে চলার পরামর্শ দিয়েছে৷

বিশ্ব | 29.07.2016

গত বছর শুরু হওয়া শরণার্থী সংকটের পর থেকে জার্মানি প্রায় দশ লক্ষেরও বেশি শরণার্থী নিয়েছে৷ বিশ্লেষকদের ধারণা, এই শরণার্থীদের সঙ্গে আইএস সমর্থনকারী অনেকে ইউরোপে প্রবেশ করে থাকতে পারে৷

ফোরসার জরিপে দেখা যাচ্ছে, ২৮ শতাংশ জার্মান হামলার জন্য ম্যার্কেলের শরণার্থী নীতিকে দায়ী করেছেন৷ এর মধ্যে ৭৮ শতাংশই অভিবাসনবিরোধী দল এএফডি-র সমর্থক৷ শরণার্থী সংকটের পর এই দলটির জনপ্রিয়তা বেড়েছে প্রায় ১২ শতাংশ৷

হামলাকারীদের দাফন নিয়ে প্রশ্ন

আন্সবাখ ও ভ্যুয়র্ত্সবুর্গে হামলাকারী দু'জনই মুসলিম৷ তাদের মরদেহ কোথায় এবং কীভাবে দাফন করা হবে তা নিয়ে সমস্যায় পড়েছে কর্তৃপক্ষ৷ ‘সেন্ট্রাল কমিটি অফ মুসলিমস ইন জার্মানি'-র নেতা মোহাম্মদ আবু আল কোমসান জার্মান বার্তা সংস্থা ডিপিএকে বলেছেন, হামলাকারীদের জন্য ইসলামি রীতিতে দাফন নয়, কবরস্থানেও তাঁদের স্থান দেয়া হবে না৷

ইউরোপ জুড়ে বাড়ানো হয়েছে নিরাপত্তা

‘যুদ্ধে ইউরোপ’

ফরাসি প্রধানমন্ত্রী তো বলেই দিলেন, ইউরোপ এখন ‘যুদ্ধে আছে’৷ ব্রাসেলসের ঘটনার পর ইউরোপীয় নেতারা জরুরি নিরাপত্তা বৈঠক করেছেন এবং সর্বত্র নিরাপত্তা বাহিনীর উপস্থিতি বাড়িয়েছেন৷ তাদের সঙ্গে রয়েছেন বোমা বিশেষজ্ঞ, প্রশিক্ষিত কুকুর এবং সাদা পোশাকের গোয়েন্দারা৷

ইউরোপ জুড়ে বাড়ানো হয়েছে নিরাপত্তা

সব বড় বিমানবন্দরে নিরাপত্তা বাড়ানো হয়েছে

লন্ডন, প্রাগ, অ্যামস্টারডাম, ভিয়েনাসহ ইউরোপের সব বিমানবন্দরে নিরাপত্তা বাড়ানো হয়েছে৷ লন্ডনের প্রধান বিমানবন্দর, হিথ্রোতে, পুলিশের ব্যাপক উপস্থিতি দেখা গেছে৷ পাশাপাশি, লন্ডনসহ বিভিন্ন শহরেও বাড়তি পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে৷

ইউরোপ জুড়ে বাড়ানো হয়েছে নিরাপত্তা

ডাচ পুলিশের সতর্ক অবস্থান

নেদারল্যান্ডসের অ্যামস্টারডাম বিমানবন্দরে নিরাপত্তা দিচ্ছে ডাচ মিলিটারি পুলিশ৷ ব্রাসেলস বিমানবন্দরে হামলার পরপরই সেখানকার নিরাপত্তা বাড়ানো হয়৷ ব্রাসেলসে মঙ্গলবার একাধিক বিস্ফোরণে বেশ কয়েকজন নিহত এবং প্রায় দুই শত মানুষ আহত হয়েছেন৷

ইউরোপ জুড়ে বাড়ানো হয়েছে নিরাপত্তা

ব্রিটেনে সতর্কতা

লন্ডনের বিমানবন্দরে পুলিশের ব্যাপক উপস্থিতি দেখা যাচ্ছে৷

ইউরোপ জুড়ে বাড়ানো হয়েছে নিরাপত্তা

ফ্রাংকফুর্ট বিমানবন্দরে বাড়তি পুলিশ

জার্মান কর্তৃপক্ষও বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ স্থাপনায় নিরাপত্তা বাড়িয়েছে৷ বিশেষ করে বিমানবন্দর, ট্রেন স্টেশন আর বেলজিয়াম, ফ্রান্স, নেদারল্যান্ডস, লুক্সেমবুর্গ সীমান্তে পুলিশের উপস্থিতি বাড়ানো হয়েছে৷ তবে পুলিশের সবচেয়ে বেশি উপস্থিতি চোখে পড়েছে জার্মানির সবচেয়ে বড় বিমানবন্দর ফ্রাংকফুর্ট বিমানবন্দরে৷ শহরটির ট্রেন স্টেশনেও পুলিশ অবস্থান নিয়েছে৷

ইউরোপ জুড়ে বাড়ানো হয়েছে নিরাপত্তা

রেল যোগাযোগ সাময়িক বন্ধ

বেলজিয়ামে হামলার পর জার্মানির জাতীয় ট্রেন ব্যবস্থা, ডয়চে বান, ব্রাসেলসের সঙ্গে তাদের উচ্চগতির ট্রেন সেবা সাময়িকভাবে বন্ধ করে দেয়৷ ব্রাসেলসের বদলে জার্মানির সীমান্তের শহর আখেনে ট্রেনগুলো থামানো হয়৷

ইউরোপ জুড়ে বাড়ানো হয়েছে নিরাপত্তা

প্যারিসে আবারো উচ্চ সতর্কর্তা

প্যারিসে গত নভেম্বর সন্ত্রাসী হামলায় অনেকে প্রাণ হারান৷ মঙ্গলবার ব্রাসেলসে হামলার পরপরই তাই সেখানকার নিরাপত্তা আরো বাড়ানো হয়৷ প্যারিসের মূল বিমানবন্দর এবং সংশ্লিষ্ট ট্রেন স্টেশন দু’টিতে নিরাপত্তা বাহিনীর পুরো দল নিয়োগ করা হয়৷

ইউরোপ জুড়ে বাড়ানো হয়েছে নিরাপত্তা

রাশিয়ার নিরাপত্তা ব্যবস্থা পুর্নমূল্যায়ন

রাশিয়ার যোগাযোগমন্ত্রী মাক্সিম সকোলভ জানিয়েছেন, ব্রাসেলসের ঘটনার পর সেদেশের নিরাপত্তা ব্যবস্থাও পুর্নমূল্যায়ন করা হবে৷ যদিও রাশিয়া আগে থেকেই বেশ সতর্ক৷

ক'দিন আগে ফ্রান্সে এক যাজককে হত্যা করা দুই মুসলিম হামলাকারীকে দাফন করতে অস্বীকৃতি জানান সেখানকার মুসলিম নেতারা৷

জেডএইচ/এসবি (ডিপিএ, রয়টার্স, ডিডাব্লিউ)

আমাদের অনুসরণ করুন