আল্পসের কোলে ইটালির সুন্দর শহর ব্যার্গেমো

আল্পস পর্বতমালার কোলে অবস্থিত ইটালির ব্যার্গেমো শহর৷ ঐতিহাসিক এই শহরের এক বাসিন্দাই সুস্বাদু স্ট্রাচিয়াতেল্লা আইসক্রিম উদ্ভাবন করেছিলেন৷

শহরের নাম এসেছে জার্মানিক-কেল্টিক উৎস থেকে, যার অর্থ ‘পাহাড়ে বাড়ি'৷ শহরের উঁচু অংশ গেলে সেখান থেকে আশেপাশের সুন্দর সব প্রাকৃতিক দৃশ্য উপভোগ করা যায়৷

ব্যার্গামোতে প্রথম বসতি স্থাপিত হয় ষষ্ঠ শতাব্দীতে৷ ব্যার্গামো শহরের নকশা বেশ অনন্য৷ টুর গাইড বারবারা সাভা জানান, ‘‘শহরের নীচু অংশটা আধুনিক৷ পর্যটকরা প্রথমে সেখানেই আসেন৷ উঁচু অংশটা ঐতিহাসিক৷ এছাড়া আছে পাহাড়৷ এই তিন অংশের মধ্যে যাতায়াতের জন্য আছে দুটি কেবল কার৷ ব্যার্গামোর বাসিন্দা ও পর্যটকরা এগুলো ব্যবহার করেন৷''

ব্যার্গামোর ঐতিহাসিক অংশের মূল আকর্ষণ পিয়াৎসা ভ্যাককিয়া, আর মধ্যযুগে নির্মিত টোররে চিভিকা৷ সেই সময় বেল বাজিয়ে সন্ধ্যার সময় বাসিন্দাদের শহরে ঢোকার আহ্বান জানানো হতো৷

সংস্কৃতি

বিদেশে রোজা

চলতি বছরে এ পর্যন্ত পুরো ইউরোপের মোট শরণার্থীর ৮৫ ভাগ এসেছে ইটালিতে৷ বেশিরভাগ শরণার্থীই ইসলাম ধর্মাবলম্বী৷ অনেকের জন্য প্রবাসে এটাই প্রথম রোজা৷ বিদেশে রমজান পালন করতে গিয়ে সাংস্কৃতিক ভিন্নতা টের পাচ্ছেন তারা৷

সংস্কৃতি

বাড়ছে বাংলাদেশি

সাহারা এবং পূর্ব আফ্রিকা অঞ্চল থেকে শরণার্থীরা লিবিয়া হয়ে অবৈধভাবে ইটালিতে প্রবেশ করছে৷ একইভাবে অনেক বাংলাদেশিও ইটালিতে প্রবেশ করছে বলে জানিয়েছে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়৷

সংস্কৃতি

বাংলায় কোরান

সিসিলিতে বিভিন্ন দেশ থেকে আসা মুসলিম শরণার্থীদের জন্য ‘মসজিদ আর রহমান’-এর ইমাম ইসমাইল বোসনাফা মসজিদে বাংলাসহ বিভিন্ন ভাষায় অনুদিত কোরান রেখেছেন৷

সংস্কৃতি

কোনো বিরতি নেই

ইটালির দক্ষিণাঞ্চলে দুপুরে কিছুটা সময় ঐতিহ্যবাহী দোকান-পাটগুলো বন্ধ থাকে৷ কিন্তু বাংলাদেশি দোকানদাররা রোজা রেখেও দোকান খোলা রাখেন৷ ৮ মাস আগে ইটালিতে আসা মোমিন মাতুব্বর জানালেন, ‘‘আমরা ক্লান্ত হলেও দোকান খোলা রাখি৷ এটা ততটা কঠিন নয়, এটা আমাদের ধর্ম৷’’

সংস্কৃতি

ভেতরে প্রবেশ করার পথ

ইমাম ইসমাইল জানালেন, ‘‘সিসিলিতে সেই সব শরণার্থীই থাকেন, যারা অন্য কোথাও কাজ পান না৷ এসব শরণার্থীকে সাহায্য করতে আমরা যথাসাধ্য চেষ্টা করি৷ তবে এ কাজের জন্য সময় ও অর্থ কম৷ তাই আমরা তাদের অন্তত মাথা গোঁজার ঠাঁই দেয়ার চেষ্টা করি৷’’

সংস্কৃতি

ইউরোপে খাপ খাওয়ানো

রমজানে রোজা রাখেন মুসলিম সম্প্রদায়, পাশাপাশি একসাথে নামাজও পড়েন৷ ফলে বিদেশের মাটিতে মুসলিম সম্প্রদায়ের মধ্যে একটা মেলবন্ধন হয়৷ নাইজেরিয়া থেকে আসা গালাডিমা জানালেন, ‘‘আমার কাছে সবচেয়ে বিস্ময়ের যে বিষয়টি, তা হলো ইউরোপে এই মাসটাতে একই মানুষকে বার বার দেখতে পাবেন আপনি, যদিও আপনি তাদের চেনেন না৷ ’’

সংস্কৃতি

দীর্ঘ সময়

যেসব মুসলিম ইউরোপে প্রথম এসেছেন, সংস্কৃতির ভিন্নতা নিয়ে তাঁদের যতটা না সমস্যা হয়, তার চেয়ে বেশি সমস্যা হয় সময় নিয়ে৷ ভৌগোলিক কারণে গ্রীষ্মে ইউরোপে দিন অনেক বড়৷ তাই রোজার সময়টাও অনেক বেড়ে যায়৷ গালাদিমা জানালেন, ‘‘ভোর ৩টা থেকে সন্ধ্যা ৮ টা পর্যন্ত রোজা রাখতে হবে– ভাবতেই পারিনি৷’’

সংস্কৃতি

সাংস্কৃতিক দ্বন্দ্ব

২৮ বছরের পাকিস্তানি এই যুবক জানালেন, ‘‘রমজান মাসে যখন আমার মসজিদে থাকার কথা, তখন আমি রাস্তায় কাটাচ্ছি৷ এখানকার সংস্কৃতি আমাদের চেয়ে অনেক ভিন্ন৷ ইটালি ইসলামিক দেশ নয়৷ আমি খ্রিষ্টান নই৷ কিন্তু একে অপরের প্রতি শ্রদ্ধাবোধ থাকলে এটা কোনো বিষয় নয়৷’’

সংস্কৃতি

খাবারে ভিন্নতা

অনেক অভিবাসী রমজান মাসে বাড়ির তৈরি বিশেষ খাবারগুলোর অভাববোধ করেন৷ প্রবাসে রমজান মানেই ইফতারে ভিন্ন রকম খাওয়া অভ্যাস করা৷ আফ্রিকানরা মুরগী আর ভাত খান৷ সাংস্কৃতিক মধ্যস্থতাকারী ইসমাইল জামেহ জানালেন, ‘‘তারা জানেন না মাংসের বল বা মিটবল কী জিনিস৷ এমনকি আমি যখন প্রথম এসেছিলাম পাস্তা আমার মোটেও ভালো লাগতো না৷’’

সংস্কৃতি

একাকীত্বের জ্বালা

লিবিয়া থেকে সম্প্রতি আসা কিশোর মালা জানালেন, ‘‘রমজানের দিনগুলোতে আমরা দেশের কথা ভাবি আর ভীষণ একাকীত্ব বোধ করি৷ পরিবার ছাড়া এটা আমার প্রথম রমজান৷ ইটালিতে আমরা বিদেশি এবং নতুন দেশে কিছু চাপের মধ্যে থাকতে হয়৷ কিন্তু সবচেয়ে কষ্টের হলো, পরিবারকে ছেড়ে থাকা৷’’

শহরের ধর্মীয় এলাকা বলে পরিচিত ক্যাথেড্রাল চত্বরের ইতিহাস আরও বেশি সমৃদ্ধ৷ সেখানে আছে ১২ শতকে নির্মিত ব্যাসিলিকা সান্তা মারিয়া মাজোরে এবং ১৫ শতকে তৈরি হওয়া কোলিওনি চ্যাপল৷

ব্যাসিলিকার দেয়াল পুরনো ট্যাপিস্ট্রি আর সিলিং স্টকো ফিগার্স দিয়ে সজ্জিত৷ ব্যার্গামোর সবচেয়ে বিখ্যাত মানুষ কম্পোজার গায়েটেনো ডোনেৎসিটির সমাধিও আছে সেখানে৷ ১৮৪৮ সালে মারা যাওয়া ডোনেৎসিটি ইটালির অন্যতম সেরা কম্পোজার ছিলেন৷

ডোনেৎসিটি মিউজিয়ামের কাছে আছে প্রাচীন শহরের দেয়াল, যেটি প্রায় পাঁচ কিলোমিটার দীর্ঘ৷ মানুষজন এখন সেখানে হাঁটতে যেতে পছন্দ করেন৷

আইসক্রিম খেতে চাইলে যেতে হবে ‘লা মারিয়ানা'-য়৷ এখানেই ষাটের দশকে স্ট্রাচিয়াতেল্লা আইসক্রিম উদ্ভাবিত হয়৷

ব্যার্গামোতে আরও অনেক সুস্বাদু খাবার আছে৷ শহরের শপিং এলাকা ও থিয়েটারও দেখার মতো৷

সুসানে ডাউস/জেডএইচ

সংশ্লিষ্ট বিষয়

23:13 মিনিট
মিডিয়া সেন্টার | 19.07.2018

অন্বেষণ – পর্ব ২৭৩

22:43 মিনিট
মিডিয়া সেন্টার | 20.06.2018

অন্বেষণ – পর্ব ২৬৭