উগ্রবাদী, ‘বিপজ্জনক ব্যক্তিদের’ উপর ফেসবুকের নিষেধাজ্ঞা

উগ্রবাদ ও চরমপন্থি আদর্শ ছড়ান, এমন বেশ কয়েকজন ব্যক্তির উপর নিষেধাজ্ঞা জারি করেছে ফেসবুক৷ এই ব্যক্তিদের ফ্যান পেজ ও অন্যান্য সংশ্লিষ্ট অ্যাকাউন্টও এই নিষেধাজ্ঞার আওতায় পড়বে৷

ফেসবুকের মালিকানায় থাকা ইনস্টাগ্রামেও এই নিষেধাজ্ঞা প্রযোজ্য হবে৷

এর আগে ব্রিটেনের কয়েকটি চরম ডানপন্থি গোষ্ঠীর উপর নিষেধাজ্ঞা জারি করেছিল ফেসবুক৷

এবার যাঁদের এর আওতায় আনা হয়েছে, তাঁরা হলেন:

- অ্যালেক্স জোনস, মার্কিন চরম ডানপন্থি রেডিও উপস্থাপক এবং কন্সপিরেসি থিওরিস্ট

- লুইস ফারাখান, নেশন অফ ইসলাম গ্রুপের নেতা, যিনি ইহুদিবিদ্বেষ ছড়ান

- পল নেলেন, ২০১৮ সালের মার্কিন কংগ্রেস নির্বাচনে স্বঘোষিত ‘শ্বেতাঙ্গপন্থি খ্রিষ্টান প্রার্থী’ ছিলেন

- পল জোসেফ ওয়াটসন, ব্রিটেনের রেডিও উপস্থাপক ও কন্সপিরেসি থিওরিস্ট

- মিলো ইয়ানোপুলস, ব্রিটিশ রাজনৈতিক ভাষ্যকার এবং ব্রাইটবার্ট নিউজের সাবেক সম্পাদক

- লরা লুমার, চরম ডানপন্থি ওয়েবসাইট রেবেল মিডিয়ার সাবেক সাংবাদিক

ফেসবুকের এক মুখপাত্র বলেছেন, ‘‘বিভিন্ন সংস্থা ও ব্যক্তি, যারা ঘৃণা ছড়ায় এবং যারা শুধুমাত্র পরিচয়ের কারণে অন্যদের বর্জনের আহ্বান জানায়, তাদের ফেসবুকে কোনো স্থান নেই৷’’

এছাড়া যাদের উপর নিষেধাজ্ঞা দেয়া হয়েছে তারা হেট স্পিচ ও সহিংসতা বিষয়ে ফেসবুকের নীতিমালা ভঙ্গ করেছেন বলেও জানানো হয়েছে৷

এদিকে, ফেসবুকের এই সিদ্ধান্তে ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন অ্যালেক্স জোনস, যার উপর টুইটার গতবছর নিষেধাজ্ঞা জারি করেছিল৷ ‘‘তারা শুধু আমাকে ব্যান করেনি, তারা আমার মানহানি করেছে,’’ নিজের পরিচালিত ওয়েবসাইট ‘ইনফোওয়ার্স’-এ প্রচারিত এক লাইভস্ট্রিমে বলেন তিনি৷

ব্রিটেনের রেডিও উপস্থাপক ওয়াটসন এক টুইটে দাবি করেন, তিনি কোনো আইন ভঙ্গ করেননি৷

জেডএইচ/এসিবি (এএফপি, এপি)

আরো প্রতিবেদন...

আমাদের অনুসরণ করুন