এই গরমে আনন্দ আনে ‘ফ্যান ছাড় ফ্যান ছাড়'!

গ্রীষ্মের খরতাপে অতিষ্ঠ বাংলাদেশের জনজীবন৷ গরমের তোড়ে নাভিশ্বাস উঠেছে মানুষের৷ এমন পরিস্থিতিতে হিন্দি গান ‘দিলবার দিলবার'-এর আদলে তৈরি গানে গরম নিয়ে সৃষ্টি হয়েছে চরম হাস্যরস৷

হিন্দি সিনেমা ‘সত্যামেভ জয়তে'-র ‘দিলবার দিলবার' গানের আদলে তৈরি হয়েছে প্যারডি ‘ফ্যান ছাড়, ফ্যান ছাড়'৷ গানটি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে বেশ ছড়িয়ে পড়েছে৷

‘হ ভাই' নামে একটি ফেসবুক পাতা থেকে দুই সপ্তাহ আগে ভিডিওটি ছাড়া হয়৷ ইতোমধ্যে তা প্রায় তিন লাখ বার দেখা হয়েছে, শেয়ার হয়েছে প্রায় সাড়ে ৪ হাজার বার৷

ভিডিওটির মন্তব্যের ঘরে বহুজনকে হাস্যরসাত্মক মন্তব্য করতে দেখা গেছে৷ পাশাপাশি গান নকলের সমালোচনাও করেছেন কেউ কেউ৷ আবার অনেকে মন্তব্যের ঘরে বন্ধুদের ট্যাগ করে ফ্যান ছাড়তেও বলেছেন৷

একজন মজা করে লিখেছেন, ‘‘অস্কার নমিনেটেড সং৷''

আবার বনি আমিন মণ্ডল নামে একজন লিখেছেন, ‘‘এটা দেখার পর আমার আর বেঁচে থাকার ইচ্ছাটাই মরে গেল৷''

‘‘মাঝে মাঝে মনে হয় উগান্ডায় চলে যাই৷ আমরা বাঙালি আর কিছু না পারলেও নকলে নাম্বার ওয়ান,'', লিখেছেন আপিল ইউ উদ্দিন নামে একজন৷

এমবি/এসিবি

অতিরিক্ত গরম থেকে বাঁচতে যা করা যেতে পারে

শহরকে সাদা রঙে রাঙানো

গ্রীষ্মের সূর্যের প্রচণ্ড তাপ থেকে বাঁচতে আপনি বাসার ছাদে সাদা রঙ করতে পারেন৷ গ্রিসে কিন্তু বাসা ঠাণ্ডা রাখতে এই পদ্ধতি ব্যবহার করা হয়৷ সাদা বা হালকা রঙ সূর্যের তাপকে প্রতিফলিত করে, অর্থাৎ শোষণ করে না৷ ফলে বাড়ির ভেতরটা ঠাণ্ডা থাকে৷ এর ফলে কার্বন নিঃসরণ কম হয় এবং জ্বালানি খরচও বাঁচে৷

অতিরিক্ত গরম থেকে বাঁচতে যা করা যেতে পারে

শহরে জলাশয়

জলাশয়, যেমন লেক, খাল এবং নদ-নদী যে-কোনো শহরের তাপমাত্রাকে শীতল রাখতে সাহায্য করে৷ এসব জলাশয়ের পানি বাষ্প হয়ে চারপাশকে ঠাণ্ডা রাখে৷ বড় বড় শহরে জায়গার অভাব রয়েছে, ফলে যেসব এলাকায় হয়ত লেকের মতো জলাশয় তৈরি করা সম্ভব না, সেখানে পানির ঝর্ণা বা ফোয়ারা তৈরি করা যেতে পারে৷

অতিরিক্ত গরম থেকে বাঁচতে যা করা যেতে পারে

সবুজের কাছাকাছি

শহরে যত বেশি সবুজ থাকবে, তাপমাত্রাও তত সহনীয় পর্যায়ে থাকবে৷ বিশেষ করে গাছের শীতল ছায়া আর গাছের পাতা থেকে যে অক্সিজেন বের হয়, সেটি বিশাল পার্থক্য তৈরি করে৷ তাই বিভিন্ন ভবনের পাশে গাছ লাগালে এগুলো সত্যিই ভবনের ভেতরে তাপমাত্রা শীতল রাখতে সাহায্য করে৷

অতিরিক্ত গরম থেকে বাঁচতে যা করা যেতে পারে

পার্ক এবং বাগান

মিউনিখের প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের এক গবেষণা অনুযায়ী, একটি শহরকে শীতল রাখার জন্য বড় কোনো পার্কের প্রয়োজন নেই, ছোট ছোট কয়েকটি পার্ক এর চেয়ে বেশি কাজ করে৷ কেননা বড় একটি পার্ক কেবল নির্দিষ্ট একটি জায়গার তামপাত্রাকে শীতল করে, অথচ ছোট ছোট পার্কগুলো বিস্তৃত এলাকা জুড়ে তাপমাত্রা কমিয়ে আনে৷ এছাড়া ভবনের ভেতরে, বারান্দায় গাছ লাগালেও বাতাস চলাচল বাড়ে এবং তাপমাত্রা কমে যায়৷

অতিরিক্ত গরম থেকে বাঁচতে যা করা যেতে পারে

ছাদের উপর বাগান

যদি আপনি আপনার বাড়ির ছাদে সাদা রঙ করতে না চান তাহলে ছাদে বাগান করুন৷ নগরীতে এই পদ্ধতিতেও ভবনগুলোকে ঠাণ্ডা রাখা যায়৷ ছাদের উপর বাগান করলে ঐ গাছগুলো তাপ শুষে নেয় এবং এয়ারকন্ডিশনিং এর প্রয়োজনকে কমিয়ে দেয়৷

অতিরিক্ত গরম থেকে বাঁচতে যা করা যেতে পারে

ঝাল ও মসলাযুক্ত খাবার

যখন আপনি ছাদে বাগান করবেন, তখন অবশ্যই কিছু মরিচের গাছ লাগাবেন৷ এর কারণ হলো মসলাযুক্ত বা ঝাল খাবার আপনার শরীরকে ঠাণ্ডা রাখে৷ ঝাল খাবার খেলে আপনার শরীরে ঘাম হবে এবং শরীরের তাপমাত্রা কমিয়ে দেবে৷

অতিরিক্ত গরম থেকে বাঁচতে যা করা যেতে পারে

গরম পানীয় পান

তাপমাত্রা যখন ৩০ ডিগ্রির বেশি হয়, তখন স্বভাবতই ঠাণ্ডা জুস বা আইসক্রিম বা পানীয় খেতে ইচ্ছা করে৷ তবে বিশেষজ্ঞরা কিন্তু অন্য কথা বলছেন৷ তাঁরা বলছেন, ঝাল খাবারের মতোই গরম চা বেশি গরমে আপনার শরীরকে ঘামতে সাহায্য করবে৷ ফলে আপনার শরীর হবে ঠাণ্ডা৷

আরো প্রতিবেদন...

আমাদের অনুসরণ করুন