কাজের মধ্যে গান গেয়ে ভাইরাল

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের ওহায়ো রাজ্যে এক সাধারণ রেস্টুরেন্টে কাজ করেন এরিকা কায়ন৷ কাস্টমারদের অর্ডার নেয়ার পাশাপাশি সেখানে গানও গান তিনি৷ অপ্রত্যাশিতভাবে সেটিই বদলে দিলো তাঁর ভাগ্য৷

রেস্টুরেন্টের নাম কেভান্তে৷ আর সেখানে নিয়মিতই কারাওকে গান বারটেন্ডার এরিকা৷ ক্রেতা ধরে রাখার জন্য অর্ডার নিতে নিতেই গানে কণ্ঠ দেন তিনি৷ কিন্তু একই সঙ্গে সম্পূর্ণ ভিন্ন দুই কাজ করতে গিয়ে তাঁর কোনো সমস্যাই হয় না৷

বেশ কিছু দিন ধরে এই কাজ করলেও, এরিকার ভাগ্য বদলে গেলো হঠাৎ করেই৷ তাঁর এই প্রতিভা দেখে আর অসাধারণ কণ্ঠ শুনে এক ক্রেতা নিজের টেবিলে বসেই চুপি চুপি ভিডিও করেন এরিকাকে৷ সেটা পরবর্তীতে ফেসবুকে আপলোড করতেই মুহূর্তের মধ্যে ছড়িয়ে পড়ে দেশজুড়ে৷

তিন সপ্তাহ আগে ফেসবুকে আপ করা ভিডিওটি দেখা হয়েছে ৩০ লাখেরও বেশি বার, শেয়ার হয়েছে ২০ হাজারের মতো৷ যুক্তরাষ্ট্রের বিভিন্ন পত্রিকায় চাপা হচ্ছে এরিকার সাক্ষাৎকার, টিভিতে দেখানো হচ্ছে এরিকার গান৷

বেশ কয়েকজন সেলিব্রিটির নজড়ও কাড়তে সক্ষম হয়েছে এরিকার ভিডিও৷ বিখ্যাত মার্কিন ব়্যাপার স্নুপ ডগ ইন্সটাগ্রামে এরিকার ভিডিও শেয়ার করে বলেছেন, ‘‘মেয়েটার সঙ্গে বড় অঙ্কের চুক্তি করা দরকার৷''

ভিডিও ভাইরাল হওয়ার পর থেকে নানা জায়গা থেকে ডাক আসছে বলে এরিকাও খুব খুশি৷

এডিকে/এসিবি

জার্মানিতে রেস্তোরাঁয় খাওয়া ও খাওয়ার নিয়ম

পিৎসা এবং পাস্তা

এক সমীক্ষায় জানা যায়, জার্মানরা সবচেয়ে বেশি পছন্দ করেন ইটালীয় খাবার পিৎসা এবং পাস্তা৷ জার্মানির ভুর্টসবুর্গ শহরের এলিফান্টেন গাছে প্রথম সেই ১৯৫২ সালে পিৎজারিয়া বা পিজা রেস্তোরাঁ খোলা হয়৷ তবে সে সময় সেখানে যাঁরা খেতে যেতেন, তাঁদের বেশিরভাগই ছিলেন অ্যামেরিকান সৈন্য৷

জার্মানিতে রেস্তোরাঁয় খাওয়া ও খাওয়ার নিয়ম

অনলাইনে অর্ডার

পিৎসা, সুশি কিংবা মেক্সিকান- যে খাবারই হোক না কেন, আজকাল অনলাইনে সব ধরনের খাবারের অর্ডার দেওয়ার প্রবণতাই দিনদিন বাড়ছে৷ ২০১৫ সালের এক সমীক্ষায় এর সংখ্যা ছিলো আনুমানিক ৬ মিলিয়ন৷ তবে ২০২১ সালে এই সংখ্যা শতকরা ২০০ ভাগ বেড়ে ১৮ মিলিয়ন হবে বলে জানিয়েছে জার্মান পরিসংখ্যান পোর্টাল৷

জার্মানিতে রেস্তোরাঁয় খাওয়া ও খাওয়ার নিয়ম

শিশুরাও কেনা খাবার বেশি খায়

শিশুদের ক্ষেত্রে সকালের নাস্তা ও দুপুরের খাবার বাড়িতে খাওয়ার প্রবণতা ২০০৫ থেকে ২০১৫-এর মধ্যে অনেক কমে গেছে৷ কনজিউমার্স চয়েস-এর করা এক সমীক্ষা থেকে জানা যায় এ কথা৷

জার্মানিতে রেস্তোরাঁয় খাওয়া ও খাওয়ার নিয়ম

পেশাজীবী মায়ের সংখ্যা বাড়ছে, তাই...

আগের তুলনায় সাম্প্রতিক সময়ে অনেক বেশি মা পেশাজীবী৷ রান্নাবান্নার ক্ষেত্রে তাঁদের সময় কমে গেছে৷ আর এ কারণেই অনেক শিশুকে দু’বেলাই বাইরের কেনা খাবার খেতে হচ্ছে৷

জার্মানিতে রেস্তোরাঁয় খাওয়া ও খাওয়ার নিয়ম

ভুল খাবার পরিবেশ করলে যা হয়

আপনি রেস্তোরাঁয় যে খাবারটি অর্ডার দিয়েছেন তার পরিবর্তে কি অন্য কোনো খাবার আপনাকে দেয়া হয়েছে? এমন হলে যদি আপনি সাথে সাথেই ওয়েটারকে তা জানিয়ে দেন, তাহলে আপনাকে নতুন করে আপনার অর্ডার অনুযায়ী খাবার দেওয়া হবে৷

জার্মানিতে রেস্তোরাঁয় খাওয়া ও খাওয়ার নিয়ম

পরে অভিযোগ করে লাভ নেই

আর যদি কিছু না বলে ভুল খাবার চুপচাপ খেয়ে নেন এবং পরে সে কথা জানান বা অভিযোগ করেন, তাহলে কিন্তু কোনো লাভ হবে না৷

জার্মানিতে রেস্তোরাঁয় খাওয়া ও খাওয়ার নিয়ম

আইনি অধিকার

আর হ্যাঁ, যদি কোনো রেস্তোরাঁয় অর্ডার দেওয়ার দেড় ঘন্টা পরে খাবার পরিবেশন করা হয়, তাহলে দীর্ঘ অপেক্ষার কারণে বিলের শতকরা ৩০ভাগ কম মূল্য আপনি পরিশোধ করতে পারেন৷ জার্মানিতে এটা আপনার আইনসঙ্গত অধিকার৷

জার্মানিতে রেস্তোরাঁয় খাওয়া ও খাওয়ার নিয়ম

‘অপচয় ’ না করে পেট ভরে খান!

অন্যান্য অনেক দেশের মতো জার্মনিতেও এমন অনেক রেস্তোরাঁ রয়েছে যেগুলোতে লেখা থাকে ‘অল ইউ ক্যান ইট’, অর্থাৎ আপনি যত খুশি তত খান, বিল কিন্তু একই থাকবে৷ এ ক্ষেত্রে খাবার যাতে নষ্ট না করা হয় সেজন্য জার্মানির কিছু রোস্তোরাঁয় খাবার টেবিলেই লেখা থাকে, ২০০ গ্রামের বেশি খাবার নষ্ট বা প্লেটে রেখে দিলে তার জন্য নির্ধারিত অংকের ইউরো জরিমানা দিতে হবে৷

আরো প্রতিবেদন...

10 ছবি
মিডিয়া সেন্টার | 6 ঘণ্টা আগে

বনে গরম বাড়ছে, বাড়ছে আনন্দ

সমাজ সংস্কৃতি | 9 ঘণ্টা আগে

শেষবেলার পরাজয় থেকে কি এবার মুক্তি?

10 ছবি
সমাজ সংস্কৃতি | 9 ঘণ্টা আগে

উৎসবমুখর বাভারিয়া

আমাদের অনুসরণ করুন