ছয় বছরেই সেরা নাপিত!

মাত্র ছয় বছর বয়সে প্রফেশনাল হেয়ারড্রেসার হয়ে তাক লাগিয়ে দিয়েছে চীনের এক শিশু৷ শুধু নিখুঁত চুল কাটা নয়, স্টাইলের দিক থেকেও অসাধারণ এই শিশু কেড়েছে ইন্টারনেট ব্যবহারকারীদের নজর৷

ছয় বছরের জিয়ান হোংকির জন্ম চীনের সুইনিং শহরে৷ বাবা-মায়ের সেলুনে জন্মের পর থেকেই তাঁর আসা যাওয়া৷ বাবা-মা-কে বিভিন্ন ডিজাইনে গ্রাহকদের চুল কাটতে দেখে দেখে নিজেও একসময় আয়ত্ত করে নিয়েছে সবকিছু৷

তবে জিয়ানকে এ কাজে কোনো প্রাতিষ্ঠানিক শিক্ষা দেননি তার বাবা-মা৷ পড়াশোনা ও খেলাধুলার পাশাপাশি সে নিজেই নেড়েচেড়ে দেখে বিভিন্ন মেশিন৷ আর এভাবেই তার যন্ত্রপাতিতে হাতেখড়ি৷

এক গ্রাহককে চুল কেটে দিচ্ছে জিয়ান, এমন একটি ভিডিও এবার অনলাইনে ভাইরাল হয়েছে৷

ভিডিওতে দেখা যাচ্ছে, রীতিমতো দক্ষ নাপিতের মতো চুলের ডিজাইন করছে জিয়ান৷

সমাজ-সংস্কৃতি | 18.10.2017

এডিকে/এসিবি 

রূপচর্চা নিয়ে শেষ পর্যন্ত আদালতে!

পারমানেন্ট মেকআপ নিয়ে বিপত্তি

জার্মানির এক নারীর নারী পারমানেন্ট আইলাইনার লাগানোর ছয় বছর পর চোখের আশেপাশে ছড়িয়ে যায়৷ বিউটিশিয়ানকে দু’বার ঠিক করার সুযোগ দেওয়ার পরও তা ঠিক হয়নি৷ শেষে সেই নারী মিউনিখ শহরের জেলা আদালতে বিউটিশিয়ানের বিরুদ্ধেই মামলা করে দেন৷ মামলার রায়ে বিউটিশিয়ানকে ২.৫০০ ইউরো ক্ষতিপূরণ দিতে বলা হয়েছে৷ তাছাড়াও আগামীতে আই লাইনারের কারণে কোনো সমস্যা দেখা দিলে আবার সাহায্য করতে হবে৷

রূপচর্চা নিয়ে শেষ পর্যন্ত আদালতে!

ক্ষতিপূরণ ৮০০০ ইউরো!

জার্মানির হাম শহরের এক নারী ‘গজ দাঁত’ লাগিয়ে দাঁতের সৌন্দর্য বাড়াতে ডেন্টিস্টের কাছে যান৷ লাগানো শুরু করার সাথে সাথেই তাঁর দাঁত ও মাড়িতে ক্রনিক ইনফেকশন হওয়ায় ওই নারী ডাক্তারের বিরুদ্ধে মামলা করেন৷ চিকিৎসা শুরুর আগে এই ঝুঁকির কথা না জানানোয় রোগীকে ৮০০০ ইউরো ক্ষতিপূরণ দিতে হবে ডাক্তারকে৷

রূপচর্চা নিয়ে শেষ পর্যন্ত আদালতে!

চুল বেশি ছোট করে ফেলেছে!

এক নারী একটি ছবি সঙ্গে নিয়ে চুল কাটাতে গেছেন৷ ঠিক ছবির মতো চুল কাটানো চাই তাঁর৷ কাটার পর দেখা গেল চুল ছবির চেয়ে অনেক ছোট! পার্লারকর্মী গ্রাহকের দুঃখ ঘোচাতে একটি এক্সটেনশন চুল দিলেন৷ সেই চুল ব্যবহারের পর মাথা ব্যথা শুরু হলো৷ ফলে গ্রাহক পুলিশে অভিযোগ করেন৷ ঘটনাটি গত ডিসেম্বর মাসে জার্মানির ভিটেনব্যার্গে ঘটেছে৷

রূপচর্চা নিয়ে শেষ পর্যন্ত আদালতে!

হায়রে বিকিনি!

লাইটট্রিটমেন্টের মাধ্যমে বিকিনি এবং গোপনাঙ্গের চুল তোলার জন্য মোট ১২টি সিটিংয়ের প্রয়োজন হয়৷ তবে এক নারীর ক্ষেত্রে চতুর্থবার সিটিংয়ের সাথে সাথেই তাঁর ত্বকের অবস্থা খুবই খারাপ হয়ে স্থায়ীভাবে দাগ বসে যায়৷ সেই নারীর পিগমেন্ট সমস্যার কথা বিউটিশিয়ান বোঝার পরেও চিকিৎসা অব্যাহত রেখেছেন৷ এ কারণে ৪,০০০ ইউরো ক্ষতিপূরণ দিতে হবে তাঁকে৷ এই ঘটনাটি ঘটেছে জার্মনির ভুপারটাল শহরে৷

রূপচর্চা নিয়ে শেষ পর্যন্ত আদালতে!

লাল চুলের কারণে চুক্তি বাতিল!

এক মডেল তরুণী তাঁর চুলে বাদামী রংয়ে সোনালী আভা চেয়েছিলেন৷ রং করার পর তরুণীটি একেবারেই অবাক, ‘‘একি, চুল যে পুরো লাল! ’’আরো দু’বার চেষ্টা করেও চুলের লাল রং ওঠানো সম্ভব হয়নি৷ শুধু কি তাই, চুলের কারণে তুরুণীটি তাঁর আন্তর্জাতিক মডেলিংয়ের চুক্তিও হারিয়েছে৷ কোলনের জেলা আদালতের রায়– মেয়েটিকে অবশ্যই ক্ষতিপূরণ দিতে হবে৷ তবে ক্ষতিপূরণের অঙ্ক এখনো নির্ধারণ করা হয়নি৷

সংশ্লিষ্ট বিষয়