জলবায়ু পরিবর্তন না ঠেকালে দারিদ্র্যের সংখ্যা বাড়বে

জলবায়ু পরিবর্তনের প্রভাব মোকাবিলায় পর্যাপ্ত ব্যবস্থা না নিলে বাংলাদেশে দরিদ্রের সংখ্যা আরও বাড়বে বলে মনে করেন বিশ্বব্যাংকের এক কর্মকর্তা৷ উপকূলীয় এলাকায় জলবায়ু পরিবর্তনের প্রভাব নিয়ে লেখা এক ব্লগে তিনি এ আশঙ্কা করেন৷

বাংলাদেশের একটি সংস্থার কয়েকজন বিশেষজ্ঞ ও নিজের এক সহকর্মীর সঙ্গে মিলে এ সংক্রান্ত প্রয়োজনীয় তথ্য জোগাড় করেছেন বিশ্বব্যাংকের পরিবেশবিষয়ক প্রধান অর্থনীতিবিদ সুষ্মিতা দাশগুপ্ত৷ তিনি বলেন, ‘‘বর্তমানে বাংলাদেশে দরিদ্র জনগোষ্ঠীর সংখ্যা ৪ কোটি ৩২ লাখ, যা মোট জনসংখ্যার ৩০ শতাংশ৷ জলবায়ু পরিবর্তন ঠেকানো না গেলে এই সংখ্যা আরো বাড়বে৷''

হাদিয়া এ সিরাজি ও মেরেল টাক টুইটারে ব্লগটি শেয়ার করেছেন৷

এদিকে, বিশ্বব্যাংকের দক্ষিণ এশিয়া অঞ্চলের ব্লগসাইটে পোস্ট করা একটি ব্লগে বলা হয়েছে, ‘‘...এরই মধ্যে বিশ্বে জলবায়ু পরিবর্তনের প্রভাব পড়তে শুরু করেছে৷ সামনে আরো ভয়াবহ দিন আসছে৷ বাংলাদেশের ঝুঁকি অনেক বেশি৷ বাংলাদেশে এখনই তাপমাত্রা অনেক বেড়ে গেছে৷ গ্রীষ্মে ৪৫ ডিগ্রি সেলসিয়াস পর্যন্ত তাপমাত্রা হয়ে থাকে৷ গত ১০টি গ্রীষ্মের মধ্যে ৭টিতে প্রচণ্ড দাবদাহ হয়েছে দেশটিতে৷ বিশেষ করে উত্তরাঞ্চলে গত একশ বছরের মধ্যে তাপমাত্রা সবচেয়ে বেশি ছিল সাম্প্রতিক বছরগুলোতে৷''

‘পলিথিওর'এ জার্মান বিশ্ববিদ্যালয়ের মাস্টার্সের শিক্ষার্থী প্রতিভা সিং বাংলাদেশের জলবায়ু পরিবর্তনের উপর একটি প্রবন্ধ লিখেছেন৷ তাঁর মতে, জলবায়ু পরিবর্তনের ক্ষেত্রে লিঙ্গ বৈষম্যের বিষয়টি আন্তর্জাতিক পর্যায়ে বরাবরই পাশ কাটানো হয়েছে৷ বেশিরভাগ গবেষণায় দেখা গেছে জলবায়ু পরিবর্তনের ফলে যে বিরূপ প্রভাব পড়ে, তার ভয়াবহতার শিকার সবচেয়ে বেশি হয় নারীরা৷ তাই নারীদের এই বিপর্যয়ের সাথে লড়াই করার প্রস্তুতি হিসেবে গড়ে তোলার জন্য কী কী দিকে খেয়াল রাখা জরুরি সেটা জানিয়েছেন তিনি৷

জাতিসংঘের সংস্থা ইউএন ওমেন এর এশিয়া প্রশান্ত মহাসাগরীয় বিভাগ বাংলাদেশে জলবায়ু পরিবর্তনের প্রভাব সম্পর্কিত একটি ভিডিও প্রতিবেদন টুইটারে শেয়ার করেছে৷

সংকলন: অমৃতা পারভেজ

সম্পাদনা: জাহিদুল হক