নকল পেটের রমরমা

সমাজ

মা হওয়া মুখের কথা?

মাতৃত্বের সংজ্ঞা পালটেছে৷ ১০ মাস ১০ দিনের গর্ভধারণ নয়, বরং সারোগেসি বা গর্ভভাড়ার দ্বারা সহজেই মাতৃত্বের আস্বাদ নেওয়া যায় আজকাল৷ তবে রক্ষণশীল সমাজ ও পরিবারের কাছে সেই মাতৃত্বের স্বীকৃতি জোটাতে ভরসা এখন সিলিকন বেলি বা নকল পেট৷

সমাজ

পেট বাণিজ্যে লক্ষ্মী

লিলুয়ার প্রস্থেটিস্ট সুমিত্রা আগরওয়াল দীর্ঘদিন নকল পেট নিয়ে কাজ করছেন৷ পশ্চিমবঙ্গ-সহ ভারতের অন্যান্য রাজ্য থেকেও তাঁর কাছে মানুষ আসেন সিলিকন বেলির সন্ধানে৷ এগুলি শরীরে লাগানোর পর নকল পেট বলে বোঝা মুশকিল হয়৷

সমাজ

নকল পেট সঙ্গী যখন

পরিবারের কাছে সারোগেসি গোপন করতে সঙ্গী হয় নকল পেট৷ আবার মহিলারা সারোগেট মায়েদের সঙ্গে একই হাসপাতালে পাশাপাশি ভর্তি হন৷ গর্ভধারণের ভান করতে অনেকে নিজের পেট কাটিয়ে সেলাই করিয়ে নেন৷

সমাজ

কোমরের মাপে

মহিলাদের কোমরের সাইজ অনুযায়ী নকল পেট তৈরি করেন সুমিত্রা৷ অন্তঃসত্ত্বা মহিলাদের ক্ষেত্রে পেটের সঙ্গে কোমরও চওড়া দেখায়৷ সেভাবেই তৈরি করা হয় সিলিকন বেলি৷

সমাজ

নকল পেটে মাতৃত্বের অনুভূতি

তিন মাসের গর্ভাবস্থার একটা নকল পেটের দাম কমবেশি ১২ হাজার টাকা৷ গর্ভাবস্থার মেয়াদ বাড়লে সিলিকন বেলির ওজন এবং দামও বেশি৷ সমাজের কটাক্ষ থেকে বাঁচতে মানুষ দাম নিয়ে ভাবেন না৷

সমাজ

ছদ্মবেশে পেট

এতদিন সিনেমার পর্দাতেই সিলিকন বেলির ব্যবহার সীমাবদ্ধ ছিল৷ কিন্তু এখন তা মধ্যবিত্তদেরও ঘরে এসে পড়েছে৷ স্বাভাবিকভাবেই পুরো বিষয়টাই গোপন রাখা হয়৷ ছবির মতোই একজন মহিলা নিজেকে নকল পেটে ঢেকে নিতে পারেন৷

সমাজ

স্বীকৃতির শর্টকাট

মা হওয়ার জন্য মহিলাদের বহিরঙ্গে যে পরিবর্তন ঘটে, সেটাকেই সমাজ মান্যতা দেয়৷ ফলে সারোগেসিতে স্বীকৃতি না পাওয়ার ভয়ে সবাই নকল পেট ব্যবহার করতে চায়৷ পোশাকের উপর নকল পেট লাগিয়ে এক মহিলা৷

সমাজ

পোশাকের নীচে

বাইরে থেকে কেউ বুঝতে পারবেন না যে, পোশাকের নীচে কী আছে৷ অর্থাৎ সমাজ জানবে, এই মহিলাই গর্ভধারিণী৷

সমাজ

নকল পেটেও স্বাচ্ছন্দ্য

অনেক কর্মরতা মহিলা প্রেগন্যান্সির জন্য কাজ ছেড়ে বাড়িতে বসে থাকতে রাজি নন৷ তাঁদের পক্ষে সারোগেসি ও সিলিকন বেলি খুবই লাভজনক৷ সিলিকন বেলি ব্যবহার করে বাসে-ট্রেনে স্বচ্ছন্দে যাতায়াত করা যায়৷ যেটা সত্যিকার গর্ভাবস্থায় মারাত্মক হতে পারে!

সমাজ

বৈধ না অবৈধ?

সারোগেসি বা গর্ভভাড়ার বিষয়টি সমাজে এখনও গ্রহণযোগ্যতা পায়নি৷ তাই নকল পেটের সাহায্যে সারোগেসি গোপনও রাখা হয়, আবার সমাজে মাতৃত্বের স্বীকৃতিও জোটে৷ তাই যতদিন সমাজ সারোগেসিকে বৈধতা না দেবে, ততদিন রমরমিয়ে চলবে সিলিকন পেট বাণিজ্য৷

সমাজ

মা হওয়ার তিনটি ধাপ

গর্ভবতী মহিলাদের উদরস্ফীতিকে মাথায় রেখে তিন রকমের নকল পেট বানানো হয়েছে৷ এই ৩-৬-৯ মাসের নকল পেট লাগিয়ে মহিলারা পরিবার ও সমাজের কাছে গর্ভাবস্থার পরিবর্তন দেখান৷ সুমিত্রা জানান, পেট পরিবর্তনের জন্য অনেকেই কিছুদিনের জন্য অন্য কোথাও চলে যান৷ যাতে এই হঠাৎ পরিবর্তন সহজে ধরা না পড়ে৷

সমাজ

নকল পেটের সন্ধানে

আধুনিক সমাজের সর্বস্তরের মহিলার ক্ষেত্রে সিলিকন পেট ভীষণই জরুরি হয়ে পড়েছে৷ তাই নকল পেটের সন্ধানে বিভিন্ন বয়সের মহিলাদের অপেক্ষা করতে দেখা যায় ডাক্তার সুমিত্রার ক্লিনিকে৷ এ সব ক্ষেত্রে মহিলাদের পাশে থাকেন তাঁদের স্বামীরা৷

সারোগেসি বা গর্ভভাড়ার বিষয় আজ আর নতুন নয়৷ কিন্তু লোকলজ্জা ঢাকতে মাতৃত্বের জন্য মহিলাদের বেছে নিতে হচ্ছে নকল পেট৷ সারোগেসি ও সিলিকন বেলি একই সঙ্গে দিয়েছে মাতৃত্বের স্বাদ এবং সমাজের সংস্কারজাত কটাক্ষ থেকে মুক্তি৷