‌নয়া হাসপাতাল বিল পশ্চিমবঙ্গে

বেসরকারি হাসপাতাল ও নার্সিংহোমের ওপর সরকারি নিয়ন্ত্রণ রাখতে নতুন ক্লিনিক্যাল এস্টাবলিশমেন্ট বিল আনলেন পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জি৷

শুক্রবার পশ্চিমবঙ্গ রাজ্য বিধানসভায় মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জি নিজেই পেশ করলেন ‘‌দ্য ওয়েস্ট বেঙ্গল ক্লিনিক্যাল এস্টাবলিশমেন্টস্‌ (‌রেজিস্ট্রেশন, রেগুলেশন অ্যান্ড ট্রান্সপারেন্সি)‌ বিল, ২০১৭'‌৷ এই বিলে চিকিৎসার গাফিলতির ক্ষেত্রে সংশ্লিষ্ট প্রতিষ্ঠানের বিরুদ্ধে শাস্তিমূলক জরিমানার ব্যবস্থা নেওয়ার সুযোগ রাখা হলো৷ এক নজরে নিয়মগুলি যা দাঁড়ালো— চরম গাফিলতির ক্ষেত্রে ন্যূনতম জরিমানা ১০ লক্ষ টাকা৷ বড় ক্ষতির ক্ষেত্রে ৫ লক্ষ এবং তুলনায় কম ক্ষতির ক্ষেত্রে ৩ লক্ষ টাকা জরিমানা৷ এই ক্ষতিপূরণ বিপত্তি ঘটার এক মাসের মধ্যে আংশিক এবং ছয় মাসের মধ্যে পুরোপুরি মিটিয়ে দিতে হবে৷ এছাড়া বলা হলো, দুর্ঘটনার ক্ষেত্রে আর্থিক সঙ্গতি না দেখে, সবার আগে চিকিৎসার ব্যবস্থা করতে হবে৷ অ্যাসিড হামলা এবং ধর্ষণের শিকার হবেন যাঁরা, তাঁদের ক্ষেত্রেও একই নিয়ম৷ বলা হয়েছে, এমার্জেন্সি বিভাগ থেকে রোগী প্রত্যাখ্যান করা যাবে না৷ বিল মেটাতে না পারলে মৃতদেহ আটকে রাখাও যাবে না৷ নতুন বিলে খুব স্পষ্ট করে দেওয়া আছে যে, যে চিকিৎসা প্রতিষ্ঠান এইসব নিয়ম মানবে না, তাদের লাইসেন্স বাতিল হবে৷ এবং সংশ্লিষ্ট কর্তাব্যক্তিদের ৩ বছর পর্যন্ত কারাদণ্ডের বিধান দেওয়া আছে বিলে৷

তিলোত্তমা কলকাতার শহুরে কথকতা

অচল যান

পুরনো জিনিসের দোকানে লাইন দিয়ে রাখা অচল সাইকেল৷ তাদের আর কোথাও যাওয়ার নেই, কিচ্ছু করার নেই৷

তিলোত্তমা কলকাতার শহুরে কথকতা

ক্লান্ত পা

গাড়িতে মাল বোঝাই আর খালাসের কাজ করেন যেসব মজুর, তাঁরা বিশ্রাম নেওয়ার সময় পান কই! যাতায়াতের পথেই বিশ্রাম দেন ক্লান্ত পা-কে৷

তিলোত্তমা কলকাতার শহুরে কথকতা

গভীর জলের মাছ

অতিকায় সব মাছ৷ তারা যতই গভীর জলের হোক, ঠিক ধরা পড়তে হয় জেলেদের হাতে৷ তার পর সটান শহরে, মাছের বাজারে, বঁটির সামনে৷

তিলোত্তমা কলকাতার শহুরে কথকতা

‘সড়কছাপ’ স্টাইল

সবাই কি আর চুল কাটানোর জন্যে সেলুনে যেতে পারে! তাদের জন্যে আছে ফুটপাথের নাপিত৷ চটপট বাটিছাঁট৷

তিলোত্তমা কলকাতার শহুরে কথকতা

দ্বিখণ্ডিত

আসলে পোশাকের দোকানের ম্যানিকিন, গাড়িতে চড়ে এসেছিল নতুন রঙের পোঁচ গায়ে মাখতে৷ ফিরে যাচ্ছে দোকানের শোকেসে৷

তিলোত্তমা কলকাতার শহুরে কথকতা

কফি হাউস

কলকাতার কলেজ স্ট্রিটের কফি হাউস৷ সারাদিনই ছাত্র-ছাত্রীদের ভিড়ে সরগরম৷ কিন্তু অনেকেই আসেন দু’দণ্ড শান্তি পেতে৷ সে বনলতা সেনেরা থাকুক, বা না থাকুক৷

তিলোত্তমা কলকাতার শহুরে কথকতা

অন্য আড্ডা

হলোই বা বহুজাতিক ফাস্ট ফুড সংস্থার ম্যাসকট, তাকেও আড্ডায় সামিল করা বারণ নাকি! আসলে শহরে কোথাও বসে আড্ডা মারার জায়গা নেহাতই কম৷

তিলোত্তমা কলকাতার শহুরে কথকতা

মাটির কেল্লা

দেখে মনে হতে পারে আদিবাসীদের কোনো স্থাপত্য৷ আসলে উঁচু করে সাজিয়ে রাখা মাটির ভাঁড়, ফুটপাথের চায়ের দোকানে৷

তিলোত্তমা কলকাতার শহুরে কথকতা

সবটাই সার্কাস

রাস্তার সার্কাস৷ খেলা দেখায় মাদারিওয়ালারা৷ আসলে এই নগরজীবন, পুরোটাই তো এক সার্কাস৷

দু'‌ধরনের প্রতিক্রিয়া দেখা যাচ্ছে এই নতুন নিয়মের৷ এক, রাজনৈতিক, দুই, পেশাদারি৷ বিরোধী রাজনৈতিক শিবির বলছে, লোক দেখিয়ে এই নতুন বিল আনার কোনো দরকার ছিল না৷ কারণ, ২০১০ সালে বামফ্রন্ট সরকার এই একই বিল বিধানসভায় পাস করায়, যার সাহায্যে বেসরকারি চিকিৎসা প্রতিষ্ঠানের ওপর নিয়ন্ত্রণ আরোপের চেষ্টা হয়েছিল৷ চরিত্র বা উদ্দেশ্যগতভাবে দুটি বিলের কোনো ফারাক নেই, কিছু গঠন ও প্রয়োগগত খুঁটিনাটিছাড়া৷

যেমন নতুন বিলে বলা হয়েছে, বেসরকারি হাসপাতালের বিরুদ্ধে অভিযোগ শোনা, মামলার সিদ্ধান্ত নেওয়ার জন্য কমিশন গড়ার কথা৷ আগের বিলে কমিশনের জায়গায় সেই দায়িত্ব দেওয়া হয়েছিল বিশেষ ট্রাইবুনালকে৷ আগের বিলে বলা হয়েছিল, এমার্জেন্সিতে আনা রোগীর চিকিৎসা করা বাধ্যতামূলক৷ এই বিলেই সেটাই বলা হয়েছে৷ আগের বিলে ক্ষতিগ্রস্ত রোগীর পরিবারকে ৫ লক্ষ টাকা ক্ষতিপূরণ দেওয়ার কথা বলা হয়েছিল, নতুন বিলে সেই ক্ষতিপূরণের অঙ্ক বাড়িয়ে ১০ লক্ষ টাকা করা হয়েছে৷ অকারণে অতিরিক্ত টেস্ট করালে, অত্যাধিক ফি নিলে জরিমানা, এমনকি লাইসেন্স বাতিলের নিদানও আগের বিলেই দেওয়া হয়েছিল৷ বস্তুত সেই আইনের জোরেই গত ১০ দিনে রাজ্যে ২৭টি বেসরকারি নার্সিং হোম ও হাসপাতালের লাইসেন্স বাতিল করা হয়েছে৷ যদিও সেই ২০১০ সালে, তৎকালীন বিরোধী দল তৃণমূল কংগ্রেস আইনটির বিরোধিতা করেছিল৷ বিধানসভার সিলেক্ট কমিটির কাছে ‘‌নোট অফ ডিসেন্ট'‌ দিয়ে, এ বিষয়ে কেন্দ্রীয় আইনের দাবি করেছিল৷

বিশ্বের সেরা ১৫টি হাসপাতাল

১৫. তাইপে ভেটারেন্স জেনারেল হসপিটাল, তাইওয়ান

বিশ্বের সেরা ১৫টি হাসপাতাল

১৪. বেথ ইসরায়েল ডিকোনেস মেডিক্যাল সেন্টার, যুক্তরাষ্ট্র

বিশ্বের সেরা ১৫টি হাসপাতাল

১৩. বুদ্ধিস্ট সু চি জেনারেল হসপিটাল, তাইওয়ান

বিশ্বের সেরা ১৫টি হাসপাতাল

১২. ডিয়ার’স হেড হসপিটাল সেন্টার, যুক্তরাষ্ট্র

বিশ্বের সেরা ১৫টি হাসপাতাল

১১. প্রভিডেন্স হেল্থ অ্যান্ড সার্ভিসেস, যুক্তরাষ্ট্র

বিশ্বের সেরা ১৫টি হাসপাতাল

১০. নিউ ইয়র্ক প্রেসবাইটারিয়ান, লোয়ার ম্যানহ্যাটন হসপিটাল, যুক্তরাষ্ট্র

বিশ্বের সেরা ১৫টি হাসপাতাল

৯. মেমোরিয়াল স্লোয়ান কেটারিং ক্যানসার সেন্টার, যুক্তরাষ্ট্র

বিশ্বের সেরা ১৫টি হাসপাতাল

৮. অ্যাসিসতঁ পুবলিক ওপিতঁ দে পাঁরি, ফ্রান্স

বিশ্বের সেরা ১৫টি হাসপাতাল

৭. ম্যাসাচুসেটস জেনারেল হসপিটাল, যুক্তরাষ্ট্র

Flash-Galerie Krankenhaus EHEC Symbolbild (picture alliance/dpa)

বিশ্বের সেরা ১৫টি হাসপাতাল

৬. এমডি অ্যান্ডারসন ক্যান্সার সেন্টার, যুক্তরাষ্ট্র

বিশ্বের সেরা ১৫টি হাসপাতাল

৫. ইউনিভার্সিটি অফ মেরিল্যান্ড মেডিক্যাল সেন্টার, যুক্তরাষ্ট

বিশ্বের সেরা ১৫টি হাসপাতাল

৪. মায়ো ক্লিনিক রচেস্টার অ্যান্ড স্কটসডেল, যুক্তরাষ্ট্র

বিশ্বের সেরা ১৫টি হাসপাতাল

৩. জন হপকিন্স মেডিসিন, যুক্তরাষ্ট্র

বিশ্বের সেরা ১৫টি হাসপাতাল

২. সেন্ট জুডস চিল্ড্রেন রিসার্চ হসপিটাল, যুক্তরাষ্ট্র

বিশ্বের সেরা ১৫টি হাসপাতাল

১. ক্লিভল্যান্ড ক্লিনিক, যুক্তরাষ্ট্র

আর চিকিৎসকরা পেশাগত জায়গা থেকে এই নতুন নিয়ন্ত্রণ বিধিতে আপত্তি জানাচ্ছেন৷ তাঁদেরও বক্তব্য, পুরনো আইনে দোষী বেসরকারি হাসপাতাল ও নার্সিং হোমের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়ার সুযোগ গত ৭ বছর ধরেই ছিল৷ কিন্তু সমাজের বাকি সব ক্ষেত্রের মতো এই চিকিৎসা ক্ষেত্রেও সরকারি নজরদারি এবং নিয়ন্ত্রণ না থাকায় এই রাজ্যে অবৈধ কিডনি কেনা-বেচা, বা শিশু পাচার চক্রের বাড়বাড়ন্ত অবাধে হয়েছে৷ চিকিৎসা করাতে এসে যে কোনো রোগীর মৃত্যুই দুঃখজনক৷ কিন্তু হাসপাতালে রোগী-মৃত্যুর পর হাঙ্গামা, ভাংচুরের ঘটনার পর সরকার যেভাবে কেবল বেসরকারি চিকিৎসা প্রতিষ্ঠানকেই একতরফাভাবে দোষী সাব্যস্ত করলেন, তা একেবারেই সঠিক সঙ্কেত দিল না জনগণের কাছে৷ এরপর চিকিৎসকরাও সতর্ক হয়ে যাবেন৷ তাঁরা কেউ ঝুঁকি নেবেন না, দায়িত্ব নেবেন না, উল্টে নিজেদের আইনি সুরক্ষা আরো আঁটোসাঁটো করতে তৎপর হয়ে উঠবেন৷ তাতে চিকিৎসা ব্যবস্থার কোনো চিকিৎসা আদতে হবে না৷

আর সোশাল মিডিয়াতেও অনেকে একটা প্রশ্ন তুলছেন৷ সরকারি স্বাস্থ্য পরিষেবার যে বেহাল দশা, তার দায়িত্ব কে নেবেন?‌ কেন লোকে সরকারি হাসপাতাল ছেড়ে বেসরকারি হাসপাতালে ভিড় করছে, সেই প্রশ্নের উত্তরই বা কার কাছে আছে?‌

আমাদের অনুসরণ করুন