প্যারিস সম্মেলন নিয়ে ভোলা'র হাসানের আশা

ভোলার মোহাম্মদ হাসান৷ জলবায়ু পরিবর্তনের শিকার হয়ে তাঁকে এখন পর্যন্ত ছয়বার বসবাসের স্থান পরিবর্তন করতে হয়েছে৷ প্রতিবারই বন্যার পানি এসে তাঁর ও তাঁর পরিবারের থাকার জায়গায় ভাসিয়ে নিয়ে গেছে৷

ডয়চে ভেলের সঙ্গে সাক্ষাৎকারে হাসান জানান, এখন আর তাঁর কাছে টাকা নেই৷ অর্থের অভাবে তাঁকে ও তাঁর পরিবারকে প্রায়সময় না খেয়ে থাকতে হচ্ছে৷ জীবন বাঁচাতে অন্যের মাছ ধরার নৌকায় শ্রমিক হিসেবে কাজ করছেন হাসান৷

মেঘনা নদীর তীরে হাসানের বাস৷ জলবায়ু পরিবর্তনের কারণে হিমালয়ের বরফ গলে মেঘনার পানি বেড়ে যাওয়ায় ঘরবাড়ি ভেঙে যাওয়া নিয়মিত ব্যাপার হয়ে দাঁড়িয়েছে৷ চলতি শতাব্দীতে পানির উচ্চতা চার মিটার পর্যন্ত বেড়ে গিয়ে ভোলার অধিকাংশ এলাকা ডুবে যাওয়ার আশঙ্কা রয়েছে৷

ভিডিও দেখুন 05:14
এখন লাইভ
05:14 মিনিট
Global 3000 | 23.11.2015

ভোলা জলবায়ু পরিবর্তনে হুমকির সম্মুখীন

হাসান বলেন, সরকার অনেক সময় সাহায্য করার কথা বললেও এখনও কিছু করেনি৷ হাসানের মতো গত দুই বছরে প্রায় বিশ হাজার পরিবার নিজেদের ঘর ছাড়তে বাধ্য হয়েছেন৷ তাদের অনেকে চাকরিও হারিয়েছেন৷

বিশ্ব | 27.11.2015

জলবায়ু পরিবর্তনের শিকার হওয়া অনেক ভোলাবাসী জীবন বাঁচাতে ঢাকা চলে যাচ্ছেন, তাঁরা জলবায়ু শরণার্থী হয়ে পড়ছেন৷

ভোলা ছেড়ে সুদূর প্যারিসে জলবায়ু পরিবর্তন নিয়ে যে সম্মেলন হচ্ছে সেটা জানেন হাসান৷ তাঁর শুধু আশা, সেখানে যেন এমন কিছু হয় যা তাঁর জীবনে পরিবর্তন আনবে৷

দুই মাস আগে, পরে

জলবায়ু যে পরিবর্তন হচ্ছে তা বোঝার অন্যতম উপায় প্রবালের দিকে খেয়াল করা৷ উপরে যে ছবিটি দেখছেন তার বাম পাশেরটি ২০১৪ সালের ডিসেম্বরে তোলা, আর ডানেরটি দুই মাস পর, অর্থাৎ ফেব্রুয়ারি মাসের৷ এবার নীচে কোরালগুলোর দিকে তাকান৷ বামেরগুলো এক রংয়ের আর ডানেরগুলো সাদা হয়ে গেছে৷ হ্যাঁ, এটা জলবায়ু পরিবর্তিত হয়ে তাপমাত্রা বেড়ে যাওয়ার কারণে হয়েছে৷ ছবিটি অ্যামেরিকান সামোয়া এলাকার৷

সাদা হয়ে যাওয়া

এই ছবিটি হাওয়াই এলাকার৷ এখানেও সাদা হয়ে যাওয়া কোরাল দেখা যাচ্ছে৷ কোরাল তার গায়ে থাকা জলজ উদ্ভিদ, অ্যালজির কারণে বেঁচে থাকে৷ কিন্তু তাপমাত্রা বেড়ে গেলে কোরাল থেকে ঐ উদ্ভিদ ঝরে পড়ে৷ ফলে কোরালেরও আয়ু শেষ হতে থাকে৷

একেবারে স্পষ্ট

এতক্ষণ দূর থেকে সাদা অংশ দেখেছেন৷ এখন দেখুন একেবারে কাছ থেকে তোলা ও বর্ধিত করা একটি ছবি৷ এটি কোরালের একটি অংশ৷ দেখুন, গায়ে থাকা জলজ উদ্ভিদ আর না থাকায় কীরকম সাদা হয়ে গেছে কোরালটি৷

চারদিক কেমন যেন খাঁ-খাঁ করছে

মন খারাপ করা একটি ছবি৷ অ্যালজি না থাকায় মরে গেছে কোরাল৷ পড়ে আছে শুধু কঙ্কাল৷

কয়েক দশক সময় প্রয়োজন

এবার আরেকটি ছবি৷ বিজ্ঞানীরা বলছেন, এমন পরিস্থিতি থেকে কোরাল রিফের বেঁচে উঠতে (আদৌ যদি বেঁচে ওঠে) কয়েক দশক সময় লাগতে পারে৷

প্রমাণ সংগ্রহ

বিশ্বের কোরাল রিফগুলোর অবস্থা পর্যবেক্ষণে ২০১২ সালে ক্যাটলিন গ্রুপের সহায়তায় ‘এক্সএল ক্যাটলিন সিভিউ সার্ভে’ নামে একটি সমীক্ষা শুরু হয়৷ এর মাধ্যমে উচ্চপ্রযুক্তির ক্যামেরা ও রোবট ব্যবহার করে কোরালের বর্তমান অবস্থা তুলে আনা হচ্ছে৷ অনেক ছবি গুগল স্ট্রিট ভিউ-তে আপলোড করা হয়েছে৷

হুমকির মুখে জীববৈচিত্র্য

জলবায়ু পরিবর্তনের কারণে যে তাপমাত্রা বাড়ছে তার প্রায় ৯০ শতাংশের বেশি অংশ শুষে নেয় সাগর৷ ফলে জলবায়ু যে পরিবর্তন হচ্ছে তা বোঝার একটি ভালো উপায় হচ্ছে কোরাল৷ সমুদ্রের প্রায় ২৫ শতাংশ প্রজাতির বেঁচে থাকার পেছনে রয়েছে কোরাল রিফ৷ তাই কোরাল না থাকে মানে জীববৈচিত্র্য হুমকির মুখে পড়া৷

প্রাণিকুলের খাবার

দেখছেন অ্যামেরিকান সামোয়ার ‘এয়ারপোর্ট রিফ’৷ স্বাস্থ্যবান এ সব কোরালের মধ্যে যে গাছপালা থাকে সেখান থেকেই খাবার সংগ্রহ করে পানির নীচে থাকা বিভিন্ন প্রজাতির প্রাণী৷

খাবার পাবে কোথায়?

লম্বা নাকের সুন্দর এই মাছটি কোরাল থেকে খাবার সংগ্রহ করে থাকে৷ কিন্তু কোরালই যদি না থাকে তাহলে তার কী হবে?

এতক্ষণ দূর থেকে সাদা অংশ দেখেছেন৷ এখন দেখুন একেবারে কাছ থেকে তোলা ও বর্ধিত করা একটি ছবি৷ এটি কোরালের একটি অংশ৷ দেখুন, গায়ে থাকা জলজ উদ্ভিদ আর না থাকায় কীরকম সাদা হয়ে গেছে কোরালটি৷

বিশ্বের কোরাল রিফগুলোর অবস্থা পর্যবেক্ষণে ২০১২ সালে ক্যাটলিন গ্রুপের সহায়তায় ‘এক্সএল ক্যাটলিন সিভিউ সার্ভে’ নামে একটি সমীক্ষা শুরু হয়৷ এর মাধ্যমে উচ্চপ্রযুক্তির ক্যামেরা ও রোবট ব্যবহার করে কোরালের বর্তমান অবস্থা তুলে আনা হচ্ছে৷ অনেক ছবি গুগল স্ট্রিট ভিউ-তে আপলোড করা হয়েছে৷

লম্বা নাকের সুন্দর এই মাছটি কোরাল থেকে খাবার সংগ্রহ করে থাকে৷ কিন্তু কোরালই যদি না থাকে তাহলে তার কী হবে?

ডয়চে ভেলের সঙ্গে সাক্ষাৎকারে হাসান জানান, এখন আর তাঁর কাছে টাকা নেই৷ অর্থের অভাবে তাঁকে ও তাঁর পরিবারকে প্রায়সময় না খেয়ে থাকতে হচ্ছে৷ জীবন বাঁচাতে অন্যের মাছ ধরার নৌকায় শ্রমিক হিসেবে কাজ করছেন হাসান৷

মেঘনা নদীর তীরে হাসানের বাস৷ জলবায়ু পরিবর্তনের কারণে হিমালয়ের বরফ গলে মেঘনার পানি বেড়ে যাওয়ায় ঘরবাড়ি ভেঙে যাওয়া নিয়মিত ব্যাপার হয়ে দাঁড়িয়েছে৷ চলতি শতাব্দীতে পানির উচ্চতা চার মিটার পর্যন্ত বেড়ে গিয়ে ভোলার অধিকাংশ এলাকা ডুবে যাওয়ার আশঙ্কা রয়েছে৷

ভিডিও দেখুন 05:14
এখন লাইভ
05:14 মিনিট
Global 3000 | 23.11.2015

ভোলা জলবায়ু পরিবর্তনে হুমকির সম্মুখীন

হাসান বলেন, সরকার অনেক সময় সাহায্য করার কথা বললেও এখনও কিছু করেনি৷ হাসানের মতো গত দুই বছরে প্রায় বিশ হাজার পরিবার নিজেদের ঘর ছাড়তে বাধ্য হয়েছেন৷ তাদের অনেকে চাকরিও হারিয়েছেন৷

জলবায়ু পরিবর্তনের শিকার হওয়া অনেক ভোলাবাসী জীবন বাঁচাতে ঢাকা চলে যাচ্ছেন, তাঁরা জলবায়ু শরণার্থী হয়ে পড়ছেন৷

ভোলা ছেড়ে সুদূর প্যারিসে জলবায়ু পরিবর্তন নিয়ে যে সম্মেলন হচ্ছে সেটা জানেন হাসান৷ তাঁর শুধু আশা, সেখানে যেন এমন কিছু হয় যা তাঁর জীবনে পরিবর্তন আনবে৷

দুই মাস আগে, পরে

জলবায়ু যে পরিবর্তন হচ্ছে তা বোঝার অন্যতম উপায় প্রবালের দিকে খেয়াল করা৷ উপরে যে ছবিটি দেখছেন তার বাম পাশেরটি ২০১৪ সালের ডিসেম্বরে তোলা, আর ডানেরটি দুই মাস পর, অর্থাৎ ফেব্রুয়ারি মাসের৷ এবার নীচে কোরালগুলোর দিকে তাকান৷ বামেরগুলো এক রংয়ের আর ডানেরগুলো সাদা হয়ে গেছে৷ হ্যাঁ, এটা জলবায়ু পরিবর্তিত হয়ে তাপমাত্রা বেড়ে যাওয়ার কারণে হয়েছে৷ ছবিটি অ্যামেরিকান সামোয়া এলাকার৷

সাদা হয়ে যাওয়া

এই ছবিটি হাওয়াই এলাকার৷ এখানেও সাদা হয়ে যাওয়া কোরাল দেখা যাচ্ছে৷ কোরাল তার গায়ে থাকা জলজ উদ্ভিদ, অ্যালজির কারণে বেঁচে থাকে৷ কিন্তু তাপমাত্রা বেড়ে গেলে কোরাল থেকে ঐ উদ্ভিদ ঝরে পড়ে৷ ফলে কোরালেরও আয়ু শেষ হতে থাকে৷

একেবারে স্পষ্ট

এতক্ষণ দূর থেকে সাদা অংশ দেখেছেন৷ এখন দেখুন একেবারে কাছ থেকে তোলা ও বর্ধিত করা একটি ছবি৷ এটি কোরালের একটি অংশ৷ দেখুন, গায়ে থাকা জলজ উদ্ভিদ আর না থাকায় কীরকম সাদা হয়ে গেছে কোরালটি৷

চারদিক কেমন যেন খাঁ-খাঁ করছে

মন খারাপ করা একটি ছবি৷ অ্যালজি না থাকায় মরে গেছে কোরাল৷ পড়ে আছে শুধু কঙ্কাল৷

কয়েক দশক সময় প্রয়োজন

এবার আরেকটি ছবি৷ বিজ্ঞানীরা বলছেন, এমন পরিস্থিতি থেকে কোরাল রিফের বেঁচে উঠতে (আদৌ যদি বেঁচে ওঠে) কয়েক দশক সময় লাগতে পারে৷

প্রমাণ সংগ্রহ

বিশ্বের কোরাল রিফগুলোর অবস্থা পর্যবেক্ষণে ২০১২ সালে ক্যাটলিন গ্রুপের সহায়তায় ‘এক্সএল ক্যাটলিন সিভিউ সার্ভে’ নামে একটি সমীক্ষা শুরু হয়৷ এর মাধ্যমে উচ্চপ্রযুক্তির ক্যামেরা ও রোবট ব্যবহার করে কোরালের বর্তমান অবস্থা তুলে আনা হচ্ছে৷ অনেক ছবি গুগল স্ট্রিট ভিউ-তে আপলোড করা হয়েছে৷

হুমকির মুখে জীববৈচিত্র্য

জলবায়ু পরিবর্তনের কারণে যে তাপমাত্রা বাড়ছে তার প্রায় ৯০ শতাংশের বেশি অংশ শুষে নেয় সাগর৷ ফলে জলবায়ু যে পরিবর্তন হচ্ছে তা বোঝার একটি ভালো উপায় হচ্ছে কোরাল৷ সমুদ্রের প্রায় ২৫ শতাংশ প্রজাতির বেঁচে থাকার পেছনে রয়েছে কোরাল রিফ৷ তাই কোরাল না থাকে মানে জীববৈচিত্র্য হুমকির মুখে পড়া৷

প্রাণিকুলের খাবার

দেখছেন অ্যামেরিকান সামোয়ার ‘এয়ারপোর্ট রিফ’৷ স্বাস্থ্যবান এ সব কোরালের মধ্যে যে গাছপালা থাকে সেখান থেকেই খাবার সংগ্রহ করে পানির নীচে থাকা বিভিন্ন প্রজাতির প্রাণী৷

খাবার পাবে কোথায়?

লম্বা নাকের সুন্দর এই মাছটি কোরাল থেকে খাবার সংগ্রহ করে থাকে৷ কিন্তু কোরালই যদি না থাকে তাহলে তার কী হবে?

সংশ্লিষ্ট বিষয়