বর্ণবাদবিরোধী গান ‘দিস ইজ অ্যামেরিকা' গ্র্যামিতে সেরা

রাজনৈতিক উদ্দেশ্যে লেখা ও গাওয়া ‘দিস ইজ অ্যামেরিকা' গ্র্যামিতে সেরা গান, সেরা মিউজিক ভিডিও এবং বছরের সেরা ‘রেকর্ড'-এর পুরস্কার জিতেছে৷ এই গানটিতে যুক্তরাষ্ট্রের বর্ণবাদ এবং বন্দুক সহিংসতার কথা তুলে ধরা হয়েছে৷

চাইল্ডিশ গ্যামবিনো আসলে অভিনেতা ডোনাল্ড গ্লোভার৷ তিনি ছদ্মনামে গানটি প্রকাশ করেছিলেন৷ গানটি লিখেছেন এবং প্রযোজনা করেছেন গ্লোভার নিজে৷ ভিডিও এবং গানের কথায় যুক্তরাষ্ট্রের রাজনৈতিক কিছু দিক তুলে ধরা হয়েছে৷ যেমন, বন্দুক সহিংসতা, কৃষ্ণাঙ্গদের বিরুদ্ধে বর্ণবাদী আচরণ ইত্যাদি৷ মোট তিনটি ক্যাটাগরিতে পুরস্কার পেয়েছেন গ্লোভার: সেরা গান, সেরা মিউজিক ভিডিও এবং বছরের সেরা গানের রেকর্ড৷

সমাজ সংস্কৃতি | 11.02.2013

সেরা র‌্যাপ অ্যালবাম ‘ইনভেশন অব প্রাইভেসি'র জন্য গ্র্যামি জিতেছেন শিল্পী কার্ডি বি৷ ক্যানাডিয়ান র‌্যাপার ড্র্যাকের ‘গড'স প্ল্যান' সেরা র‌্যাপ গানের পুরস্কার জিতেছে৷ সেরা কান্ট্রি অ্যালবাম ক্যাসি মাসগ্র্যাভসের ‘গোল্ডেন আওয়ার'৷ ক্যারিয়ারে প্রথমবারের মতো গ্র্যামি জিতেছেন শিল্পী আরিয়ানা গ্রান্ডে৷ তাঁর ‘সুইটেনার' অ্যালবামটি সেরা পপ অ্যালবামের পুরস্কার জিতেছে৷ তবে অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন না গ্রান্ডে৷

হলিউড তারকা হিউ জ্যাকম্যানও অনুপস্থিত ছিলেন তাঁর প্রথম গ্র্যামি পুরস্কার জেতার দিন৷ ভিজুয়াল মিডিয়ায় সেরা গানের সংকলনের পুরস্কার জিতেছে তাঁর ‘দ্য গ্রেটেস্ট শোম্যান' চলচ্চিত্রটি৷ লেডি গাগা এবং হলিউড স্টার ব্র্যাডলি কুপার যৌথভাবে সেরা পপ গানের পুরস্কার জিতেছেন, ‘আ স্টার ইজ বর্ন' চলচ্চিত্রের ‘শ্যালো' গানটির জন্য৷ ভিজুয়াল মিডিয়ার জন্য লেখা ২০১৮ সালের সেরা গানও নির্বাচিত হয়েছে এটি৷

হলিউডের হিট ছবি ‘ব্ল্যাক প্যান্থার'-এর কম্পোজার লুডভিগ গোরানসন জিতেছেন সেরা স্কোর সাউন্ডট্র্যাকের পুরস্কার৷ সাবেক মার্কিন প্রেসিডেন্ট জিমি কার্টারও এবার গ্র্যামি জিতেছেন৷ এটি তাঁর তৃতীয় গ্র্যামি৷ তাঁর বই ‘ফেইথ-আ জার্নি ফর অল'-এর জন্য এর পুরস্কার পান তিনি৷ কার্টার ‘বেস্ট স্পোকেন ওয়ার্ড অ্যালবাম' ক্যাটাগরিতে পুরস্কারটি জিতেছেন৷ এর আগে ২০০৭ এবং ২০১৬ সালে একই ক্যাটাগরিতে গ্র্যামি জিতেছিলেন তিনি৷

সাবেক ফার্স্ট লেডি মিশেল ওবামা'র উপস্থিতি ছিল অনুষ্ঠানের একটি চমক৷ সেখানে নারীর ক্ষমতায়ন নিয়ে তাঁর চমৎকার বক্তব্য সবাইকে ভীষণ অনুপ্রাণিত করেছে৷ নারীর ক্ষমতায়ন নিয়ে বক্তব্য রেখেছিলেন লেডি গাগা, জেনিফার লোপেজ, সঞ্চালিকা এলিসিয়া কিইস এবং অভিনেত্রী জাডা পিনকেট-স্মিথও৷

এপিবি/এসিবি (এপি, এএফপি, রয়টার্স)

গ্র্যামির সেরা মুহূর্তগুলি

লেডি গাগা

গ্র্যামি পুরস্কারের আসরে লেডি গাগা থাকবেন না, তা-ও আবার হয় নাকি? তিনি এলেন, গান করলেন, জয় করলেন৷ শোনালেন অনেকগুলি পরিচিত গানের মেডলি৷ অনুষ্ঠানে যৌন হেনস্থার প্রতিবাদে মোমবাতি এনেছিলেন লেডি গাগা৷

গ্র্যামির সেরা মুহূর্তগুলি

কেশা

বিশিষ্ট পপ গায়িকা কেশা তাঁর টিম নিয়ে শোনান বিখ্যাত গান ‘প্রেয়িং’৷ গান গাইতে গাইতে হাউ হাউ করে কাঁদতে শুরু করেন কেশা৷ গান শেষ হওয়ার পরেও বেশ কিছুক্ষণ আবেগ বিহ্বল হয়ে ছিলেন৷ কেশার হাতেও ছিল সাদা মোমবাতি৷ পৃথিবী জুড়ে যৌন হেনস্থার প্রতিবাদে মোমবাতি নিয়েছিলেন তিনি৷

গ্র্যামির সেরা মুহূর্তগুলি

এলটন জন

প্রতিবারের মতো এবারেও গ্র্যামির অনুষ্ঠানে বিশেষ আকর্ষণ ছিলেন এলটন জন৷ মাইলি সাইরাসকে সঙ্গে নিয়ে তিনি শোনান, ‘টাইনি ড্যান্সার’৷ মুগ্ধ হয়ে যান শ্রোতারা৷

গ্র্যামির সেরা মুহূর্তগুলি

কার্ডি বি

পপ গানের শ্রোতাদের মধ্যে ‘ফাইনেস’ গানটি শোনেননি, এমন কেউ সম্ভবত নেই৷ গ্র্যামির মঞ্চে সেই গানটিই শোনান কার্ডি বি ও ব্রুনো মার্স৷

গ্র্যামির সেরা মুহূর্তগুলি

ব্রুনো মার্স

ব্রুনো মার্স শুধু গ্র্যামির মঞ্চে অনুষ্ঠানই করেননি, পুরস্কৃতও হয়েছেন৷ তাঁর এ বছরের অ্যালবাম ‘২৪কে ম্যাজিক’-এর জন্য৷ স্বাভাবিক ভাবেই পুরস্কৃত হয়ে উচ্ছ্বসিত হয়ে পড়েন ব্রুনো৷

গ্র্যামির সেরা মুহূর্তগুলি

স্যাম স্মিথ

এবারের গ্র্যামির অনুষ্ঠানে অনেকেই সাদা জামা পরে এসেছিলেন৷ শান্তির দাবিতেই এই পদক্ষেপ৷ স্যাম স্মিথ একটি সাদা লং কোট পরে মঞ্চে ওঠেন৷ গেয়ে শোনান ‘প্রে’৷

গ্র্যামির সেরা মুহূর্তগুলি

অ্যালেসিয়া কারা

এবার সেরা তরুণ প্রতিভার পুরস্কার পান অ্যালেসিয়া কারা৷ পুরস্কার পাওয়ার পর গ্র্যামি হাতে নানা ভঙ্গিতে চিত্র সাংবাদিকদের সামনে দাঁড়ান কারা৷

গ্র্যামির সেরা মুহূর্তগুলি

কেনড্রিক লামার

তাঁর ব়্যাপ অ্যালবাম ‘ড্যাম’-এর জন্য পুরস্কৃত হন৷ এ বছর প্রায় সারা পৃথিবীতেই ‘ড্যাম’ বেস্টসেলার৷

গ্র্যামির সেরা মুহূর্তগুলি

রিহানা

শুধু পুরস্কার নিয়েই মঞ্চ ছাড়েননি রিহানা৷ পুরো দল নিয়ে শুনিয়েছেন তাঁর বিখ্যাত গান ‘ওয়াইল্ড থটস’৷ রিহানার এই গানটি নিয়ে এখন সারা পৃথিবীর ব়্যাপপ্রেমীরা মত্ত৷

 

আরো প্রতিবেদন...