বার্লিন হামলা জার্মানিতে পরিবর্তন আনবে

অনেকদিন ধরে জার্মানরা যে আশঙ্কায় ছিল অবশেষ সেটি সত্যি হলো৷ বার্লিনের হামলা জার্মানিতে পরিবর্তন আনতে বাধ্য বলে মনে করেন ডয়চে ভেলের প্রধান সম্পাদক আলেক্সান্ডার কুডাশেফ৷

বার্লিনের হামলা সকলকে প্রচণ্ড আঘাত করেছে এবং আতঙ্কগ্রস্ত করে তুলেছে৷ ১২ জন নিহত হয়েছে৷ আহত হয়েছেন প্রায় ৫০ জন৷ তাঁদের মধ্যে কয়েকজনের অবস্থা মারাত্মক৷ এই হামলা, এই সন্ত্রাসী কাজের লক্ষ্য ছিল পুরো দেশ তথা জার্মানরা যে সমাজে বাস করেন সেই মুক্ত সমাজ৷ ক্রিসমাস মার্কেটের মতো শান্তিপূর্ণ জায়গায় হামলা করা হয়েছে, যেখানে জার্মানরা ছাড়াও বিশ্বের অন্যান্য দেশ থেকে আসা মানুষ তাঁদের দৈনন্দিন জীবনের ঝক্কি থেকে খানিকটা মুক্তি পেতে বড়দিনের আমেজ নিয়ে ঘুরে বেড়ায়৷

বার্লিন হামলা: বিশেষ কয়েকটি তথ্য

ঘটনা যেখানে

ব্রাইটশাইড প্লাৎস, কাইজার ভিলহেল্ম মেমোরিয়াল গির্জার সামনের চত্বর, যা পর্যটকদের কাছে একটি জনপ্রিয় ও সুপরিচিত স্থান৷ এর উত্তর পূর্ব দিকে বার্লিনের চিড়িয়াখানা ও তার সংলগ্ন রেল স্টেশন৷ আর দক্ষিণে কেনাকাটার জন্য বিখ্যাত কুয়রফ্যুয়র্স্টেনডাম বা কুডাম স্ট্রিট৷

বার্লিন হামলা: বিশেষ কয়েকটি তথ্য

নিস-এ যা হয়েছিল

এই ছবিটি জুলাইয়ে নিস হামলার কথা মনে করিয়ে দেয়, যেখানে ৮৬ জন মানুষ নিহত হয়েছিল৷ ফ্রান্সের সেই শহরেও ভিড়ের মধ্যে দিয়ে ট্রাক চালিয়ে দেয়া হয়েছিল৷ বার্লিনের এই ঘটনায় ফ্রান্সের ক্রিসমাস মার্কেটে নিরাপত্তা বাড়ানো হয়েছে৷

বার্লিন হামলা: বিশেষ কয়েকটি তথ্য

যাঁরা হামলার শিকার

পুলিশ এ পর্যন্ত ১২ জনের মৃত্যুর খবর নিশ্চিত করেছে৷ আহত অন্তত ৫০ জনের মধ্যে কয়েকজনের অবস্থা আশঙ্কাজনক বলে জানা গেছে৷ বার্লিনের মেয়র মিশেল ম্যুলার নির্দেশ দেন আহতদের যাতে তৎক্ষণাত ইউনিভার্সিটি হসপিটাল চ্যারিটিতে নিয়ে যাওয়া হয়৷

বার্লিন হামলা: বিশেষ কয়েকটি তথ্য

বার্লিন পুলিশ

ঘটনার পর পরই ব্রাইটশাইড প্লাৎস-এর আশেপাশের সড়ক বন্ধ করে দেয় পুলিশ৷ সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যমে পুলিশ বার্লিনের জনগণের ঘটনাস্থলে না আসার এবং গুজবে কান না দেয়ার অনুরোধ জানান৷ কোনো জিজ্ঞাস্য থাকলে +৪৯৩০৫৪০২৩১১১ – এই নম্বরে ফোন করার পরামর্শ দিয়েছে পুলিশ৷

বার্লিন হামলা: বিশেষ কয়েকটি তথ্য

সন্দেহভাজন

পুলিশ সন্দেহভাজন একজনকে আটকের খবরটি নিশ্চিত করেছে৷ ট্রাকে একজনের মৃতদেহ পাওয়া গিয়েছে৷ তবে হামলাকারীর সম্পর্কে বিস্তারিত কোনো তথ্য জানায়নি পুলিশ৷

বার্লিন হামলা: বিশেষ কয়েকটি তথ্য

তদন্ত চলছে

পুলিশের বিশেষ বাহিনী ব্রাইটশাইড প্লাৎস ঘিরে রেখেছে৷ এছাড়া বানহফ চিড়িয়াখানার আশপাশে পুলিশ টহল দিচ্ছে৷ বার্লিনের অপরাধ বিষয়ক পুলিশ এবং অ্যাটর্নি জেনারেল ঘটনার তদন্ত করছে৷

বার্লিন হামলা: বিশেষ কয়েকটি তথ্য

প্রতিক্রিয়া

জার্মান চ্যান্সেলর আঙ্গেলা ম্যার্কেলের মুখপাত্র জানিয়েছেন, ম্যার্কেল স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী এবং বার্লিনের মেয়রের সঙ্গে যোগাযোগ করে যাচ্ছেন৷ জার্মান প্রেসিডেন্ট ইওয়াখিম গাউক জানিয়েছেন তিনি শোকাহত৷ বার্লিন ও পুরো জার্মানির জন্য এটা একটা কালো সন্ধ্যা৷

সবাইকে লক্ষ্য করে হামলা

আমরা যাঁরা স্বাধীনভাবে জীবনযাপন করতে চাই, তাঁরা সবাই এই হামলার লক্ষ্য ছিলাম৷ আমাদের ইচ্ছার উপর এই হামলা হওয়ার কারণে জার্মানিতে পরিবর্তন আসবে৷ আমরা আর এখন আন্তর্জাতিক সন্ত্রাসবাদের শিকার হওয়ার আশঙ্কায় নেই, আমরাও এখন ব্রিটিশ, ফ্রেঞ্চ, স্প্যানিশ, ইসরায়েলি, মার্কিন সহ অন্যান্যদের মতো ভুক্তভোগী হয়ে গেছি৷

হামলাকারী মানসিকভাবে সুস্থ ছিল কিনা, সে একা হামলা করেছে কিনা, মৌলবাদী কোনো গ্রুপ এর পেছনে আছে কিনা – এ সব আলোচনা এখন মুখ্য নয়, বরং এই হামলা মুক্ত সমাজের উপর আক্রমণ এবং এটিকে সেভাবে গুরুত্ব দিয়ে দেখতে হবে৷ ক্রিসমাস মার্কেটে হামলার মাধ্যমে খ্রিষ্টান প্রতীকের উপর আক্রমণ চালানো হয়েছে, যেটি জার্মানিসহ ইউরোপীয় ঐতিহ্যের অংশ৷

চ্যান্সেলর ঠিক বলেছেন: হামলার দিনটি জার্মানির জন্য একটি কঠিন দিন৷ গত কয়েক বছরে জার্মানিতে ছোট ও মাঝারি আকারের কয়েকটি হামলা হয়েছে, কয়েকটি আবার ব্যর্থ করে দেয়া হয়েছে৷ তবে বার্লিনের হামলাটি সব বিবেচনায় অনেক বড় একটি ঘটনা৷

ডয়চে ভেলের প্রধান সম্পাদক আলেক্সান্ডার কুডাশেফ

জার্মান সমাজের মানসিকতায় পরিবর্তন আসবে৷ সন্ত্রাসবাদকে আমাদের স্বাধীনচেতা মনোভাবে প্রভাব ফেলতে না দিতে আমরা এতদিন যে দৃঢ়সংলকল্প ছিলাম সেটা এবার কিছুটা নড়বড় হয়ে পড়বে৷ জার্মানরা এবার থেকে একটু কম নিরাপত্তা বোধ করবে৷

একটি রাজনৈতিক ভূমিকম্প?

হামলাকারী যদি শরণার্থী হন তাহলে ভবিষ্যতে এ ধরণের ভূমিকম্প দেখা দিতে পারে৷ চ্যান্সেলরের শরণার্থী নীতি কঠোর সমালোচনার মুখে পড়বে৷ শুধু তাই নয়, জার্মান সমাজ যেরকম বন্ধুত্বপূর্ণ মনোভাব নিয়ে শরণার্থীদের গ্রহণ করেছে সেটি ক্ষতিগ্রস্ত হবে৷

এমন দিনে শান্ত থাকাটা গুরুত্বপূর্ণ৷ কিন্তু শান্ত থাকা দিন দিন কঠিন হয়ে পড়ছে৷ ২০১৬ সালের ১৯ ডিসেম্বরের সন্ধ্যা জার্মানিকে পরিবর্তিত করবে৷ কতটা? সেটিই এখন দেখার বিষয়৷ 

আলেক্সান্ডার কুডাশেফ/জেডএইচ

প্রিয় পাঠক, আপনি কি আলেক্সান্ডার কুডাশেফের সঙ্গে একমত? জানান নীচে মন্তব্যের ঘরে৷

জার্মানিতে যেসব সন্ত্রাসী হামলার চেষ্টা হয়েছিল

লাইপসিশ, অক্টোবর ২০১৬

লাইপসিসের পুলিশ দু’দিন ধরে তল্লাশি চালানোর পর ২২ বছর বয়সে সিরীয় শরণার্থী জাবের আল-বাকেরকে গ্রেপ্তারে সক্ষম হয়৷ চেমনিৎসে তার অ্যাপার্টমেন্টে বিস্ফোরক এবং বোমা তৈরিত সরঞ্জাম পাওয়ার পর তাকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ৷ সন্দেহ করা হয় যে, বার্লিন বিমানবন্দরে সন্ত্রাসী হামলার পরিকল্পনা করছিল সে৷ গ্রেপ্তারের দুই দিন পর অবশ্য কারাগারে আত্মহত্যা করে এই সিরীয় শরণার্থী৷

জার্মানিতে যেসব সন্ত্রাসী হামলার চেষ্টা হয়েছিল

আন্সবাখ, জুলাই ২০১৬

গত জুলাই মাসে জার্মানিতে দু’টি হামলার দায় স্বীকার করে জঙ্গি গোষ্ঠী ‘ইসলামিক স্টেট’ বা আইএস৷ দু’টি হামলাই শরণার্থীরা ঘটিয়েছিল৷ এর মধ্যে বাভারিয়ার আন্সবাখ শহরে একটি মিউজিক ফেস্টিভ্যালের প্রবেশ মুখে এক সিরীয় শরণার্থী বিস্ফোরণ ঘটালে ১৫ ব্যক্তি আহত হন৷ হামলায় হামলাকারী অবশ্য নিজেও প্রাণ হারায়৷

জার্মানিতে যেসব সন্ত্রাসী হামলার চেষ্টা হয়েছিল

ভ্যুয়র্ত্সবুর্গ, জুলাই ২০১৬

১৭ বছর বয়সি এক শরণার্থী ভ্যুয়র্ত্সবুর্গে একটি ট্রেনের মধ্যে কুড়াল ও ছুরি নিয়ে যাত্রীদের উপর হামলা চালায়৷ এতে হংকং থেকে আসা এক পর্যটক পরিবারের চার সদস্য এবং অন্য একজন আহত হন৷ পুলিশ হামলাকারীকে গুলি করে হত্যা করে৷ পুলিশ জানায়, হামলাকারী তথাকথিত ইসলামিক স্টেট-এর সদস্য না হলেও এই জঙ্গি গোষ্ঠীর আদর্শে উদ্বুদ্ধ হয়ে হামলা চালিয়েছিল৷

জার্মানিতে যেসব সন্ত্রাসী হামলার চেষ্টা হয়েছিল

ড্যুসেলডর্ফ, মে ২০১৬

ইসলামিক স্টেট-এর তিন সন্দেহভাজন সদস্যকে নর্থ রাইনওয়েস্টফেলিয়া, ব্রান্ডেনবুর্গ এবং বাডেন ভ্যুর্টেনবের্গ থেকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ৷ কর্তৃপক্ষ জানায়, গ্রেপ্তারকৃতদের মধ্যে দু’জন ড্যুসেলডর্ফের শহরতলীতে আত্মঘাতী হামলার পরিকল্পনা করেছিল৷ অপরজন এবং ফ্রান্সে গ্রেপ্তারকৃত চতুর্থ জিহাদি বন্দুক ও বিস্ফোরক নিয়ে পথচারীদের হামলার পরিকল্পনা করছিল বলে খবর৷

জার্মানিতে যেসব সন্ত্রাসী হামলার চেষ্টা হয়েছিল

এসেন, এপ্রিল ২০১৬

এসেনে একটি শিখ মন্দিরে বোমা বিস্ফোরণের ঘটনায় তিনজনকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ৷ বিস্ফোরণে তিন ব্যক্তি আহতও হন৷ সিসিটিভি ফুটেজ প্রচারের পর ১৬ বছর বয়সি এক সন্দেহভাজন নিজেই পুলিশের কাছে আত্মসমর্পণ করে৷ আর অন্য তরুণ সন্দেহভাজনকে বাড়ি থেকে আটক করে স্পেশাল পুলিশ৷

জার্মানিতে যেসব সন্ত্রাসী হামলার চেষ্টা হয়েছিল

হানোফার, ফেব্রুয়ারি ২০১৬

১৬ বছর বয়সি জার্মান-মরোক্কান তরুণী সোফিয়া এস. হানোফার ট্রেন স্টেশনে এক পুলিশ কর্মকর্তাকে ছুরিকাঘাত করে৷ ধারণা করা হয়, ইসলামিক স্টেট-এর সদস্যরা তাকে এই হামলায় প্ররোচিত করেছিল৷

জার্মানিতে যেসব সন্ত্রাসী হামলার চেষ্টা হয়েছিল

বার্লিন, ফেব্রুয়ারি ২০১৬

বার্লিনে সন্ত্রাসী হামলার পরিকল্পনার অভিযোগে ইসলামিক স্টেট-এর সন্দেহভাজন তিন আলজেরীয় সদস্যকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ৷ বার্লিনের প্রসিকিউটরের দপ্তরের তথ্য আনুযায়ী, রাজধানীতে হামলা করার জন্য তাদের সুনির্দিষ্ট পরিকল্পনা সম্পর্কে অবগত ছিল কর্তৃপক্ষ৷

জার্মানিতে যেসব সন্ত্রাসী হামলার চেষ্টা হয়েছিল

ওবারউরসেল, এপ্রিল ২০১৫

এশবর্ন-ফ্রাংকফুর্ট সিটি লুপ বাইক রেস বাতিল করে পুলিশ, কেননা তারা সন্দেহ করছিল যে সেই রেসে ইসলামিক স্টেট হামলা চালাতে পারে৷ হামলা পরিকল্পনায় জড়িত সন্দেহে পুলিশ ৩৫ বছর বয়সি এক তুর্কি বংশোদ্ভূত জার্মান এবং তাঁর ৩৪ বছর বয়সি স্ত্রীকে গ্রেপ্তার করে৷ বাইক রুটের কাছে তাদের বাড়ি থেকে বোমা তৈরির উপকরণও উদ্ধার করে পুলিশ৷

আমাদের অনুসরণ করুন