ব্রাজিলে ফুটবল অ্যাকাডেমিতে আগুন, নিহত ১০

ব্রাজিলের রাজধানী রিও ডি জেনেইোতে ফ্লেমিঙ্গো ফুটবল অ্যাকাডেমিতে আগুন লাগায় ঘটনাস্থলেই ১০ জন নিহত হয়েছে৷ 

শুক্রবার ভোরে এ অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটে৷ রিও ডি জেনেইরোর পুলিশ হতাহতের ঘটনা নিশ্চিত করেছে৷ প্রশিক্ষণের জন্য কিশোর ফুটবলাররা সেখানে অবস্থান করছিল৷ যে কক্ষে আগুন লাগে, সেখানে গত দুই মাস ধরে এক দল কিশোর প্রশিক্ষণের জন্য অবস্থান করছিল৷

তবে অগ্নিকাণ্ডে নিহতদের পরিচয় এখনো নিশ্চিত করেনি পুলিশ৷ তবে তিন কিশোর অগ্নিদগ্ধ হয়েছে, তারা সবাই খেলোয়াড় বলে জানা গেছে৷

হোয়াও পেদ্রো দ্য ক্রুজ নামে এক ১৬ বছর বয়সি খেলোয়াড় জানায়, এই আগুনের ঘটনায় তার সহপাঠীরাই নিহত হয়েছে৷ নিহতদের মাঝে তার বন্ধুরাও রয়েছে৷

ফ্লেমিঙ্গোর প্রশিক্ষণ কেন্দ্রের সামনে সমবেত মানুষ

ব্রাজিলের শীর্ষ দৈনিক জায়ান্ট গ্লোবো নিউজকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে স্থানীয় দমকলকর্মী ডগলাস হেনালট বলেন, আগুন লাগার সময় খেলোয়াড়রা সবাই ঘুমাচ্ছিল৷ আগুনের উৎস সম্পর্কে এখনো জানা যায়নি৷ 

এ ঘটনায় ব্রাজিলের ক্রীড়াঙ্গনে শোকের ছায়া নেমে এসেছে৷ দক্ষিণ ব্রাজিলের ফুটবল দল চাপেকো টুইটে শোক প্রকাশ করেছে৷ ২০১৬ সালে এক বিমান দুর্ঘটনায় এই দলটির ২২জন খেলোয়াড় নিহত হয়৷

ব্রাজিলের ১৯৯৪-এর বিশ্বকাপজয়ী খেলোয়াড় রোমারিও শোক প্রকাশ করে টুইট করেছেন৷ তিনি শোকাহত পরিবারগুলোর প্রতি সমবেদনা জানান৷ রোমারিও নিজেও এই একাডেমির খেলোয়াড় ছিলেন৷

এফএ/এসিবি (এএফপি/ডিপিএ/এপি/ রয়্টার্স)

গতবছরের সেপ্টেম্বরের ছবিঘরটি দেখুন...

ব্রাজিলে আগুনে পুড়লো ২০০ বছরের ইতিহাস

ধ্বংসস্তূপ

রোববার রাতে লাগা আগুন অবশেষে সোমবার নিয়ন্ত্রণে আনেন দমকলকর্মীরা৷ তবে এর আগে যা ক্ষতি হওয়ার হয়ে গেছে৷ ২ কোটিরও বেশি জিনিসের অধিকাংশই এরই মধ্যে ধ্বংস হয়েছে৷ দেশটির প্রেসিডেন্ট মিশেল টেমার অবশ্য সংগ্রহে থাকা সব ক্ষতিগ্রস্ত সামগ্রী পুনর্নির্মাণের প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন৷

ব্রাজিলে আগুনে পুড়লো ২০০ বছরের ইতিহাস

পুরানিদর্শন রক্ষার যুদ্ধ

দমকলকর্মীদের সাথে জাদুঘরের কর্মীরাও ঝাঁপিয়ে পড়েন ঐতিহাসিকভাবে মূল্যবান সব সামগ্রী আগুনের হাত থেকে বাঁচাতে৷ তবে জাদুঘরে পানি সরবরাহের ব্যবস্থা তখন কাজ করছিল না বলে জানান কর্মীরা৷ ফায়ার সার্ভিসের মুখপাত্র রবার্টো রোবাডে জানিয়েছেন, জাদুঘরের কর্মীরা বেশকিছু মূল্যবান নিদর্শন বাঁচাতে সহায়তা করেছেন৷

ব্রাজিলে আগুনে পুড়লো ২০০ বছরের ইতিহাস

পাঁচ ঘণ্টার যুদ্ধ

দমকল বাহিনীর ২৫টি ইউনিট আগুন নেভাতে কাজ করে৷ পাঁচ ঘণ্টা পর আগুন নিয়ন্ত্রণে আনা গেলেও পুরোপুরি নেভাতে সময় লাগে আরো অনেকক্ষণ৷ সাবেক পরিবেশমন্ত্রী মারিনা সিলভা এ ঘটনাকে ব্রাজিলের ইতিহাসে ‘বিপর্যয়’ বলে উল্লেখ করেছেন৷

ব্রাজিলে আগুনে পুড়লো ২০০ বছরের ইতিহাস

‘অপূরণীয় ক্ষতি’

প্রেসিডেন্ট মিশেল টেমার এক বিবৃতিতে জানিয়েছেন, ‘‘দুশ’ বছরের গবেষণা এবং অর্জিত জ্ঞান আমরা হারিয়েছি৷’’ দিনটিকে ব্রাজিলের জন্য ‘একটি দুঃখজনক দিন’ বলে উল্লেখ করে তিনি বলেন, ‘‘জাতীয় জাদুঘরের সংগ্রহের এই ক্ষতি অপূরণীয়৷’’

ব্রাজিলে আগুনে পুড়লো ২০০ বছরের ইতিহাস

ব্যাপক ক্ষোভ

জাদুঘরের উপ পরিচালক লুইস ফের্নান্দো জিয়াস দুয়ার্চে এ ঘটনায় তীব্র ‘অসহায়ত্ব ও ক্ষোভ’ প্রকাশ করেছেন৷ ব্রাজিলের সরকারের ‘ঔদাসিন্যকেও’ দায়ী করেছেন তিনি৷ ফেডারেল বিশ্ববিদ্যালয়ের অধীনে থাকা জাদুঘরটিতে বেশ কিছুদিন ধরেই বাজেট কমানো হচ্ছে৷ দুয়ার্চে বলেন, ‘‘আজ যেসব সম্পদ হারালাম, তা বাঁচাতে বিভিন্ন সরকারের আমলে আমরা সাহায্য চেয়ে আসছি৷’’

ব্রাজিলে আগুনে পুড়লো ২০০ বছরের ইতিহাস

বিক্ষোভ দমন

ইতিহাসের এমন ক্ষতি মেনে নিতে পারেননি সাধারণ মানুষও৷ সোমবার সকাল থেকেই জাদুঘরের সামনে জড়ো হয়ে বিক্ষোভ জানাতে থাকেন তাঁরা৷ এক পর্যায়ে তাঁদের ছত্রভঙ্গ করতে লাঠিচার্জ করে, টিয়ার শেল ও মরিচের গুড়াও ছোঁড়ে পুলিশ৷ সংস্কৃতি বিষয়কমন্ত্রী সের্জিও সা লেইতোও স্বীকার করে নিয়েছেন, ‘‘চাইলে এই দুর্ঘটনা এড়ানো যেতো৷’’

ব্রাজিলে আগুনে পুড়লো ২০০ বছরের ইতিহাস

আগুনের আগে জাদুঘর

জাতীয় ইতিহাস ও অ্যানথ্রোপলজি বিষয়ক এই জাদুঘরে গ্রেকো-রোমান এবং মিশরীয় সভ্যতার সময়কালের নিদর্শন রক্ষিত ছিল৷ তবে সবচেয়ে উল্লেখযোগ্য ছিল ব্রাজিলে পাওয়া সবচেয়ে পুরনো মানব ফসিল ‘লুসিয়া’৷ এই অমূল্য নিদর্শনও ধ্বংসপ্রাপ্ত হয়েছে৷

সংশ্লিষ্ট বিষয়

আমাদের অনুসরণ করুন