ব্রাসেলস হামলায় জড়িত দুই ভাইয়ের পরিচয় প্রকাশ

ব্রাসেলস বিমানবন্দর আর মেট্রো স্টেশনে আত্মঘাতী বোমা হামলায় জড়িত দুই ভাইয়ের পরিচয় প্রকাশ করেছে বেলজিয়াম কর্তৃপক্ষ৷ তৃতীয় আরেক ব্যক্তিকে খুঁজছে পুলিশ৷

দেশটির ফেডারেল আইনজীবী ফ্রেডেরিক ফন লিউভ বুধবার এক সংবাদ সম্মেলনে জানান, দুই ভাইয়ের একজন ইব্রাহিম এল বাকরাওয়ি ব্রাসেলস বিমানবন্দরে হামলার সঙ্গে জড়িত ছিল৷ তাঁর সঙ্গে ছিল আরেকজন৷ আর ইব্রাহিমের ভাই খালিদ হামলা চালায় মেট্রো স্টেশনে৷ তৃতীয় এক ব্যক্তিকে গ্রেপ্তারের জন্য খোঁজা হচ্ছে বলেও জানান তিনি৷

বেলজিয়ামের দক্ষিণাঞ্চলীয় শহর শারলেরোইতে খালিদ ছদ্মনামে বাসা ভাড়া নিয়েছিলেন বলে জানিয়েছে আরটিবিএফ৷ এই এলাকা থেকেই গত শুক্রবার গ্রেপ্তার হওয়া সালাহ আবদেসালাম সহ অন্যরা গত নভেম্বরে প্যারিসে হামলা চালানোর প্রস্তুতি নিয়েছিল৷

তথাকথিত ইসলামিক স্টেট বা আইএস ব্রাসেলসে হামলার দায়িত্ব স্বীকার করেছে৷ এ বিষয়টি প্রমাণিত হলে সালাহ আবদেসালামের গ্রেপ্তারের ঘটনার সঙ্গে ব্রাসেলসে হামলার বিষয়টি সম্পর্কিত বলে নিশ্চিত হওয়া যাবে৷ সিরিয়ায় আইএস-এর বিরুদ্ধে লড়াইরত আন্তর্জাতিক জোটের সদস্য দেশগুলোতে হামলা চালানো হবে বলে আগেই সতর্ক করে দিয়েছিল আইএস৷ এরপর তারা বেশ কয়েকটি হামলাও করেছে৷

মঙ্গলবারের হামলায় কমপক্ষে ৩১ জন নিহত হয়েছে বলে ভিআরটি টিভিকে জানিয়েছেন বেলজিয়ামের স্বাস্থ্যমন্ত্রী ম্যাগি ডে ব্লক৷

বিমানবন্দর বন্ধ

আত্মঘাতী হামলার ঘটনার পরদিনও বন্ধ আছে ব্রাসেলস বিমানবন্দর৷ চলছে না মেট্রোও৷ তবে কিছু কিছু গণপরিবহণ চলাচল শুরু করেছে৷ রাস্তায় ব্যক্তিগত কিছু গাড়িও চলতে দেখা গেছে৷

এখন লাইভ
02:10 মিনিট
News | 23.03.2016

হামলার একদিন পর ব্রাসেলস পরিস্থিতি

নিরাপত্তা ব্যবস্থা বৃদ্ধি

ইউরোপজুড়ে নিরাপত্তা জোরদার করা হয়েছে৷ বিশেষ করে বিমানবন্দর ও গণপরিবহণ ব্যবস্থায়৷ ব্রাসেলসের ঘটনায় ইউরোপীয় দেশগুলোর মধ্যে নিরাপত্তা সহযোগিতা ও পুলিশ ব্যবস্থা নিয়ে আলোচনা শুরু হয়েছে৷ সন্ত্রাসবাদ কীভাবে দমন করা যায় সে নিয়েও আলোচনার সূত্রপাত হয়েছে৷ ইউরোপীয় সংসদের সদস্য স্কা কেলার বলেন, ইউরোপে শরণার্থী আসার সঙ্গে সন্ত্রাসী ঘটনাগুলোর সম্পর্ক থাকার কোনো প্রমাণ নেই৷

জেডএইচ/ডিজি (ডিপিএ, এএফপি, রয়টার্স)

আপনার কী মনে হয় বন্ধু? শরণার্থী সংকটের সঙ্গে কি ইউরোপে একেক পর এক জঙ্গি হামলার কোনো সম্পর্ক থাকতে পারে?

ইউরোপ জুড়ে বাড়ানো হয়েছে নিরাপত্তা

‘যুদ্ধে ইউরোপ’

ফরাসি প্রধানমন্ত্রী তো বলেই দিলেন, ইউরোপ এখন ‘যুদ্ধে আছে’৷ ব্রাসেলসের ঘটনার পর ইউরোপীয় নেতারা জরুরি নিরাপত্তা বৈঠক করেছেন এবং সর্বত্র নিরাপত্তা বাহিনীর উপস্থিতি বাড়িয়েছেন৷ তাদের সঙ্গে রয়েছেন বোমা বিশেষজ্ঞ, প্রশিক্ষিত কুকুর এবং সাদা পোশাকের গোয়েন্দারা৷

ইউরোপ জুড়ে বাড়ানো হয়েছে নিরাপত্তা

সব বড় বিমানবন্দরে নিরাপত্তা বাড়ানো হয়েছে

লন্ডন, প্রাগ, অ্যামস্টারডাম, ভিয়েনাসহ ইউরোপের সব বিমানবন্দরে নিরাপত্তা বাড়ানো হয়েছে৷ লন্ডনের প্রধান বিমানবন্দর, হিথ্রোতে, পুলিশের ব্যাপক উপস্থিতি দেখা গেছে৷ পাশাপাশি, লন্ডনসহ বিভিন্ন শহরেও বাড়তি পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে৷

ইউরোপ জুড়ে বাড়ানো হয়েছে নিরাপত্তা

ডাচ পুলিশের সতর্ক অবস্থান

নেদারল্যান্ডসের অ্যামস্টারডাম বিমানবন্দরে নিরাপত্তা দিচ্ছে ডাচ মিলিটারি পুলিশ৷ ব্রাসেলস বিমানবন্দরে হামলার পরপরই সেখানকার নিরাপত্তা বাড়ানো হয়৷ ব্রাসেলসে মঙ্গলবার একাধিক বিস্ফোরণে বেশ কয়েকজন নিহত এবং প্রায় দুই শত মানুষ আহত হয়েছেন৷

ইউরোপ জুড়ে বাড়ানো হয়েছে নিরাপত্তা

ব্রিটেনে সতর্কতা

লন্ডনের বিমানবন্দরে পুলিশের ব্যাপক উপস্থিতি দেখা যাচ্ছে৷

ইউরোপ জুড়ে বাড়ানো হয়েছে নিরাপত্তা

ফ্রাংকফুর্ট বিমানবন্দরে বাড়তি পুলিশ

জার্মান কর্তৃপক্ষও বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ স্থাপনায় নিরাপত্তা বাড়িয়েছে৷ বিশেষ করে বিমানবন্দর, ট্রেন স্টেশন আর বেলজিয়াম, ফ্রান্স, নেদারল্যান্ডস, লুক্সেমবুর্গ সীমান্তে পুলিশের উপস্থিতি বাড়ানো হয়েছে৷ তবে পুলিশের সবচেয়ে বেশি উপস্থিতি চোখে পড়েছে জার্মানির সবচেয়ে বড় বিমানবন্দর ফ্রাংকফুর্ট বিমানবন্দরে৷ শহরটির ট্রেন স্টেশনেও পুলিশ অবস্থান নিয়েছে৷

ইউরোপ জুড়ে বাড়ানো হয়েছে নিরাপত্তা

রেল যোগাযোগ সাময়িক বন্ধ

বেলজিয়ামে হামলার পর জার্মানির জাতীয় ট্রেন ব্যবস্থা, ডয়চে বান, ব্রাসেলসের সঙ্গে তাদের উচ্চগতির ট্রেন সেবা সাময়িকভাবে বন্ধ করে দেয়৷ ব্রাসেলসের বদলে জার্মানির সীমান্তের শহর আখেনে ট্রেনগুলো থামানো হয়৷

ইউরোপ জুড়ে বাড়ানো হয়েছে নিরাপত্তা

প্যারিসে আবারো উচ্চ সতর্কর্তা

প্যারিসে গত নভেম্বর সন্ত্রাসী হামলায় অনেকে প্রাণ হারান৷ মঙ্গলবার ব্রাসেলসে হামলার পরপরই তাই সেখানকার নিরাপত্তা আরো বাড়ানো হয়৷ প্যারিসের মূল বিমানবন্দর এবং সংশ্লিষ্ট ট্রেন স্টেশন দু’টিতে নিরাপত্তা বাহিনীর পুরো দল নিয়োগ করা হয়৷

ইউরোপ জুড়ে বাড়ানো হয়েছে নিরাপত্তা

রাশিয়ার নিরাপত্তা ব্যবস্থা পুর্নমূল্যায়ন

রাশিয়ার যোগাযোগমন্ত্রী মাক্সিম সকোলভ জানিয়েছেন, ব্রাসেলসের ঘটনার পর সেদেশের নিরাপত্তা ব্যবস্থাও পুর্নমূল্যায়ন করা হবে৷ যদিও রাশিয়া আগে থেকেই বেশ সতর্ক৷

আমাদের অনুসরণ করুন