শরণার্থীদের সঙ্গী মোবাইল ফোন

বিপদসঙ্কুল পথ অতিক্রম করে ইউরোপে পৌঁছে কেউ পৌঁছসংবাদ পাঠাচ্ছেন, কেউ তুলছেন সেলফি৷ সোশ্যাল মিডিয়ায় শরণার্থীদের জীবনের অনেক খণ্ডচিত্র উঠে আসছে৷ গ্রিসের কস দ্বীপে সংকট ঘনীভূত হচ্ছে৷

ইউরোপে শরণার্থী সংকটের ক্ষেত্রে নিয়তির পরিহাস হলো, বহিরাগতরা ভৌগোলিক কারণে প্রথমে এমন সব দেশে আশ্রয় নিতে বাধ্য হয়, যে সব দেশ অর্থনৈতিক সংকট সামলাতে হিমশিম খাচ্ছে৷ তুরস্ক উপকূলের খুব কাছে গ্রিসের কস দ্বীপ এমনই এক ‘প্রবেশদ্বার'৷ এই মুহূর্তে সেখানে শরণার্থীদের ঢল নেমেছে৷ সংকটে জর্জরিত গ্রিসের সরকারের পক্ষে সেই পরিস্থিতি সামাল দেওয়া বেশ কঠিন হয়ে উঠেছে৷

সুইডেনের কূটনীতিক ও রাজনীতিক কার্ল বিল্ট এই পরিস্থিতির প্রতি দৃষ্টি আকর্ষণ করে লিখেছেন, ‘‘প্রতিদিন এক হাজারেরও বেশি শরণার্থী গ্রিসে এসে পৌঁছাচ্ছেন৷ এ হলো সংকটের মধ্যে আরেক সংকট৷ এ অবস্থায় সংহতির প্রয়োজন রয়েছে৷''

জাতিসংঘের শরণার্থী বিষয়ক সংস্থার মুখপাত্র মেলিসা ফ্লেমিং এ প্রসঙ্গে মনে করিয়ে দিয়েছেন যে, ২০১৪ সালের তুলনায় গ্রিসে শরণার্থীদের সংখ্যা ৭৫০ শতাংশ বেড়ে গেছে৷ শুধু জুলাই মাসেই ৫০,০০০-এরও বেশি মানুষ সেখানে আশ্রয় নিয়েছেন৷ বেশিরভাগ মানুষই সংঘর্ষ থেকে পালিয়ে এসেছেন৷

গ্রিসের কর্তৃপক্ষ শরণার্থীদের কীভাবে সারা রাত একটি স্টেডিয়ামের মধ্যে কার্যত বন্দি অবস্থায় রেখেছে, সে বিষয়ে একটি প্রতিবেদন শেয়ার করেছেন ব্র্যাডলি ডড৷

বিশ্ব | 13.08.2015

লেটিৎসিয়া পোলিৎসি লিখেছেন, ‘‘ইউরোপের জনসংখ্যা ৭৪ কোটি৷ বাড়তি ১০ লক্ষ শরণার্থীদের জায়গা দেওয়া অবশ্যই সম্ভব এবং অতীতেও এমনটা করা হয়েছে৷'' এই বক্তব্যের সমর্থনে তিনি একটি প্রতিবেদন শেয়ার করেছেন৷

তথ্য, পরিসংখ্যান, নীতিমালার আড়ালে শরণার্থীদের প্রকৃতি পরিস্থিতি অনেক সময় আড়াল করে দেয়৷ ঘটনাস্থলে উপস্থিত আলোকচিত্রীদের ক্যামেরায় সেই অবস্থা কিছুটা ধরা পড়েছে৷ সংবাদ সংস্থা এপি-র ভিডিও সাংবাদিক ডাল্টন বেনেট অরাজকতার একটি চিত্র তুলে ধরেছেন৷

এএফপি-র আলোকচিত্রী স্টেফান আর্নো সিরিয়া থেকে সদ্য পৌঁছানো শরণার্থীদের একটি অভিনব ছবি তুলে ধরেছেন৷

টেলিভিশন সাংবাদিক জুলিয়া ম্যাকফারলেন আহমদ নামের এক সিরীয় শরণার্থীর ছবি শেয়ার করেছেন, যিনি তাঁর পোষা কুকুর টেডি-কে ফেলে আসতে পারেননি৷

সংবাদ সংস্থা রয়টার্সের তোলা একটি ছবি শেয়ার করেছেন মলি ক্র্যাব্যাপল৷ তাতে দেখা যাচ্ছে, একদল শরণার্থী গ্রিসে পৌঁছে সেলফি তুলছেন৷

সংকলন: সঞ্জীব বর্মন

সম্পাদনা: দেবারতি গুহ

আরো প্রতিবেদন...