শরতের রং লেগেছে জার্মানিতে

ডিজিটাল বিশ্ব

রঙের বিস্ফোরণ

যখন দিনগুলো ছোট হতে থাকে, গাছের পাতা সবুজ থেকে হলুদ এবং লাল রং ধারণ করে এবং তাপমাত্রা কমতে থাকে, তখন বুঝতে হবে শরৎকাল এসেছে৷ জার্মানির উত্তর থেকে দক্ষিণ অবধি, ঐতিহ্যবাহী নানা উৎসব আর খাবারের স্বাদ পেতে এই সময় দেশটি ভ্রমণ করতে পারেন৷

ডিজিটাল বিশ্ব

ঘুড়ি ওড়ানোর ভালো সময়

ঘুড়ি ওড়ানোর আদর্শ সময় এই শরৎকাল৷ ঘুড়ির জার্মান শব্দ হচ্ছে ‘ড্রাখেন’, মানে ড্রাগন৷ ধারণা করা হয়, চীনে ঘুড়ির উৎপত্তি হয়েছিল৷ তবে জার্মানিতেও তা বেশ জনপ্রিয়৷

ডিজিটাল বিশ্ব

আলোর উৎসব

মোহনীয়, বিস্ময়কর, সৃজনশীল – শরৎকালে বিশ্বের নানা দেশের নামী আলো শিল্পীরা বার্লিনের পর্যটন আকর্ষণগুলো এভাবেই আকর্ষণীয় করে তোলেন৷

ডিজিটাল বিশ্ব

আঙুর চাষের মৌসুম

জার্মানির আঙুর খেতগুলোতে ওয়াইন উৎসব এবং আঙুর চাষের মৌসুম হচ্ছে শরৎকাল৷ বরফ শীতল ওয়াইনের জন্য মাইনাস সাত ডিগ্রি সেলসিয়াস তাপমাত্রায় শীতকালে আঙুর সংগ্রহ করা হয়৷ জার্মানি ওয়াইনের জন্যও বিখ্যাত৷

ডিজিটাল বিশ্ব

ফাঁকা সৈকত

জার্মানির সবচেয়ে উত্তরের দ্বীপ সিল্ট-এ শরৎকালেও পর্যটকদের দেখা মেলে৷ বিশেষ করে যারা একটু শীতল এবং বাতাসের তীব্রতা উপেক্ষা করে সমুদ্রতটে যেতে প্রস্তুত, তাদের জন্য এটা ভালো সময়৷

ডিজিটাল বিশ্ব

ঐতিহ্যবাহী নানা উৎসব

জার্মানিতে অক্টোবরফেস্টই একমাত্র বাৎসরিক লোকউৎসব নয়, তবে এটি সবচেয়ে পরিচিত৷ প্রতিবছর ষাটলাখের মতো মানুষ এই মেলা উপভোগ করেন৷ আর সেখানে বিয়ার পানের পর নানা কিছু হারান মানুষ৷ ফলে সংশ্লিষ্ট ‘লস্ট প্রোপার্টি’ কার্যালয়ে পরেরদিন লম্বা লাইন দেখা যায়৷

ডিজিটাল বিশ্ব

সুস্বাদু খাবার

ভেকমান বা স্টুটেনকার্ল হচ্ছে পুরুষ মানুষের আদলে তৈরি এক বিশেষ পেস্ট্রি৷ সেন্ট মার্টিন’স ডে, মানে ১১ নভেম্বর এটি বিশেষভাবে জনপ্রিয়৷ বাড়ির কাছের বেকারিতে যখন এই পেস্ট্রি দেখবেন, তখন বুঝতে হবে শরৎ এসে গেছে৷

বুনো রাজ-হংসী থেকে বিশেষ ধরনের পেস্ট্রি, আঙুর ফল এবং সৈকতে বাতাসের তীব্রতা– সবই যেন শরতের ইঙ্গিত দিচ্ছে৷ চার ঋতুর দেশ জার্মানিতে ঋতু পরিবর্তনটা বেশ বোঝা যায়৷ দেখুন: