শেষ হলো ভারতের লোকসভা নির্বাচন: ফলাফল ২৩ মে

ভারতের লোকসভা নির্বাচনের শেষ ধাপের ভোটগ্রহণ হলো আজ৷ নরেন্দ্র মোদির নির্বাচনি এলাকা বারাণসীসহ মোট সাতটি প্রদেশ ও একটি কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলে ভোট গ্রহণের মধ্য দিয়ে শেষ হলো নির্বাচন৷

তবে প্রায় দেড়শ' কোটি জনসংখ্যার এ দেশটির পরবর্তী প্রধানমন্ত্রী কে হচ্ছেন তা জানা যাবে আগামী ২৩ মে৷

স্থানীয় সময় সকাল ৭টা থেকে শুরু হওয়াভোটগ্রহণ অনেকটা শান্তিপূর্ণভাবেই শেষ হয়েছে বলে জানিয়েছে আন্তর্জাতিক গণমাধ্যমগুলো৷ তবে বেশ কয়েকটি নির্বাচনি এলাকায় সহিংসতার খবরও পাওয়া গেছে৷

ছয় সপ্তাহ আগে শুরু হওয়া লোকসভা নির্বাচনের ভোটগ্রহণ হয়েছে মোট ৭টি ধাপে৷ শেষ ধাপে অর্থাৎ আজ রবিবার দেশটির ৫৯টি নির্বাচনি এলাকায় ভোট গ্রহণ সম্পন্ন হয়৷ এর মধ্যে রয়েছে, উত্তর প্রদেশ ও পাঞ্জাবের ১৩টি করে আসনে, পশ্চিমবঙ্গের নয়টি, আটটি করে বিহার ও মধ্য প্রদেশের, হিমাচল প্রদেশের ৪টি, ঝাড়খন্ডের ৩টি ও কেন্দ্রশাসিত চন্ডিগড়ের একটি আসনে ভোট হচ্ছে৷

শেষ দফার এ নির্বাচন উপলক্ষে এক টুইট বার্তায় সকলকে ভোট প্রদানের আহ্বান জানান মোদি৷ ভোটারদের রেকর্ড সংখ্যক ভোটপ্রদানের আহ্বান জানিয়ে তিনি বলেন, ‘‘আপনার একটি ভোট ভারতের উন্নয়ন প্রক্রিয়াকে আপনার মতো করে সাজাতে সাহায্য করবে৷''  

ভোট চলাকালে এ অঞ্চলগুলোর বিভিন্ন কেন্দ্রে সহিংসতা ও অনিয়মের অভিযোগ পাওয়া গেছে৷ পশ্চিমবঙ্গের প্রভাবশালী দৈনিক আনন্দবাজার পত্রিকা জানায়, রাজ্যের বেশ কয়েকটি ভোটকেন্দ্রে সহিংসতার ঘটনা ঘটেছে৷ ভাটপাড়ায় দফায় দফায় তৃণমূল-বিজেপি সংঘর্ষের খবর দিয়েছে পত্রিকাটি৷ এদিকে বিজেপির অভিযোগ, কসবার কয়েকটি ভোটকেন্দ্রে তর্ণমূল এজেন্টরা ভোটরদের হুমকি দিয়েছে৷ তৃণমূলের পক্ষ থেকে অভিযোগের তির ছোঁড়া হয়েছে বিজেপির দিকেও৷ পশ্চিমবঙ্গে গত কয়েক বছর ধরে শক্ত অবস্থানে থাকা মমতার তৃণমূল অভিযোগ করছে যে, কেন্দ্রীয়বাহিনী ভোটারদেরকে বিজেপির ব্যালটে ভোট দিতে উৎসাহিত করেছে৷ এদিকে উত্তর প্রদেশের কয়েকটি ভোটকেন্দ্রে প্রভাব বিস্তারের অভিযোগ উঠেছে বিজেপির প্রার্থীদের বিরুদ্ধে৷  

ভাগ্য পরীক্ষায় মোদি

উত্তরপ্রদেশের বারাণসী আসন থেকে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন বর্তমান প্রধানমন্ত্রী৷ তাঁর প্রতিদ্বন্দ্বী হিসেবে আছেন কংগ্রেস প্রার্থী অজয় রায়৷ ভোটদানের পর অজয় রায় বলেন, এ সরকারের আমলে বারাণসীতে লোক দেখানো উন্নয়কাজ হয়েছে৷ যে কারণে ভোটাররা আর মোদির উপর আস্থা রাখবে না, বলেন তিনি৷

তৃণমূলের দুর্গ পশ্চিমবঙ্গে তীক্ষ্ণ দৃষ্টি ছিল মোদির৷ বার্তা সংস্থার এপি'র এক খবরে বলা হয়েছে, নির্বাচনী প্রচারণায় নেমে শুধু পশ্চিমবঙ্গেই ১৭বার পরিদর্শন করেছেন মোদি৷ পশ্চিমবঙ্গের নির্বাচনি প্রচারণার সময় বেশ কিছু সহিংসতার ঘটনা খবরও পাওয়া গেছে৷

ধর্মভিত্তিক প্রচারণা!

দেশটির এ বছরের নির্বাচনের উল্লেখযোগ্য দিক ছিল রাজনৈতিক দলগুলোর বিশেষ করে বিজেপির ধর্মভিত্তিক প্রচারণা৷ বিশ্লেষকরা বলছেন, এ ধরনের প্রচারণা দেশটির অন্তর্ভুক্তিমূলক রাজনৈতিক সংস্কৃতিকে প্রশ্নের মুখে ফেলেছে৷ দেশটির উত্তর প্রদেশের প্রতিদ্বন্দীদের মধ্যে ধর্ম নিয়ে বাদানুবাদে লিপ্ত হতে দেখা গেছে রাজনৈতিক নেতাদের৷

নির্বাচনি এক প্রচারণায় প্রদেশটির মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথ বলেন, ‘‘কংগ্রেস যদি ইসলাম ধর্মের নবী মোহাম্মদের জামাতা আলির উপর আস্থা রাখে তাহলে বিজেপিও হিন্দু দেবতা ‘বজরং বলি'র উপর আস্থা রাখবে৷''

এর উত্তরে তাঁর প্রতিদ্বন্দী নেত্রী মায়াবতি প্রদেশটির  ভোটারদের বিশেষ করে মুসলিম সম্প্রদায়ের ভোটারদের বিভক্ত না হওয়ার অনুরোধ জানান৷ উত্তপ্ত এ পরিস্থিতে নির্বাচন কমিশন এ দুই রাজনৈতিক নেতাকে কয়েকদিনের জন্য নির্বাচনি প্রচারণায় নিষিদ্ধ করে৷

এদিকে, বিজেপির প্রেসিডেন্ট অমিত শাহ আসামে এক নির্বাচনি প্রচারণায় বলেন তাঁর দল পুনঃনির্বাচিত হলে ভারতকে ‘অবৈধভাবে আশ্রয়ধারীদের' থেকে মুক্ত করবে৷ তবে তাঁর দেয়া এ বক্তব্যটি দেশটিতে বাংলাদেশ থেকে আসা মুসলিম অভিবাসীদের উদ্দেশ্য করে দেওয়া বলে মনে করছেন বিশেজ্ঞরা৷

এ বিষয়ে রাজনৈতিক বিশ্লষেক অজয় কুমার ডয়চে ভেলেকে বলেন, ‘‘এটা স্পষ্ট যে বিজেপি হিন্দুদেরকে মুসলিমদের বিরুদ্ধে উস্কে দিয়ে রাজনৈতিক ফায়দা লোটার চেষ্টা করছে৷'' 

শেষ পর্বে মোট ভোটার সংখ্যা ছিল ১০ কোটি ১ লক্ষ  ৭৫ হাজার ১৫৩৷  প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন মোট প্রার্থীর সংখ্যা ৯১৮ জন৷

ভারতের লোকসভা নির্বাচনের খুঁটিনাটি

আসনসংখ্যা

সাধারণ নির্বাচন মানে ভারতের লোকসভা সদস্যদের নির্বাচন করার পদ্ধতি৷ লোকসভায় মোট আসন সংখ্যা ৫৪৫ হলেও নির্বাচন হয় ৫৪৩টি আসনে৷ বাকি দুটি আসন ভারতের অ্যাংলো-ইন্ডিয়ান সম্প্রদায়ের জন্য সংরক্ষিত৷ তাদের দুই প্রতিনিধি কে হবেন, তা ঠিক করেন ভারতের রাষ্ট্রপতি৷

ভারতের লোকসভা নির্বাচনের খুঁটিনাটি

ভোটার সংখ্যা

২০১৪ সালের লোকসভা নির্বাচনে মোট ভোটার ছিল ৮৩ কোটিরও বেশি, যা বর্তমান মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের মোট জনসংখ্যার দ্বিগুণেরও বেশি! বিশেষজ্ঞরা বলছেন, এবারের নির্বাচনে বাড়বে এই সংখ্যা৷ নতুন ভোটারের সংখ্যা এবছর প্রায় সাড়ে চার কোটি হতে চলেছে৷

ভারতের লোকসভা নির্বাচনের খুঁটিনাটি

কয়টি দল?

গত নির্বাচনে মোট ৮,২৫১ জন প্রার্থী নির্বাচনে লড়েছিলেন৷ সেবার মোট ৪৬০টি রাজনৈতিক দল ভোটের ময়দানে নেমেছিল৷ ভারতের জাতীয় নির্বাচন কমিশনই জানাচ্ছে এই তথ্য৷

ভারতের লোকসভা নির্বাচনের খুঁটিনাটি

মোট প্রার্থী

জাতীয় নির্বাচন কমিশনের তথ্য বলছে, প্রতিটি আসনে গড়ে ১৪ জন প্রার্থী থাকে ভারতে৷ এখন পর্যন্ত একটি আসনে সর্বোচ্চ ৪২ জন প্রার্থী হয়েছেন!

ভারতের লোকসভা নির্বাচনের খুঁটিনাটি

ভোটকেন্দ্র কতগুলি?

২০১৪ সালের নির্বাচনে মোট ভোটকেন্দ্র ছিল ৯,২৭,৫৫৩টি৷ কমিশনের তথ্য অনুযায়ী, প্রতিটি বুথে গড়ে ৯০০ জন ভোটার ভোট দেন৷ উল্লেখ্য, ভারতের নির্বাচনি আইন বলে, যে-কোনো ভোটারের বাসস্থানের দুই কিলোমিটার দূরত্বের মধ্যে অন্তত একটি ভোটকেন্দ্র থাকতে হবে৷

ভারতের লোকসভা নির্বাচনের খুঁটিনাটি

নির্বাচনি দায়িত্ব পালন

ভারতের সাধারণ নির্বাচন যাতে সুষ্ঠুভাবে সম্পন্ন হয়, তার দায়িত্ব পড়ে সরকারী কর্মচারীদের ওপর৷ গত নির্বাচনে এই দায়িত্ব পান প্রায় ৫০ লক্ষ আধিকারিক ও নিরাপত্তাকর্মী৷ শুধু তাই নয়, এই কর্মীরা পায়ে হেঁটে, বাসে-ট্রামে-ট্রেনে-নৌকায়, এমনকি হাতির পিঠে চড়েও ভোটগ্রহণ কেন্দ্রে পৌঁছেছেন বলে জানাচ্ছে নির্বাচন কমিশন৷

ভারতের লোকসভা নির্বাচনের খুঁটিনাটি

একজন ভোটারের জন্যও রয়েছে বুথ!

২০০৯ সালের নির্বাচনের সময় গুজরাটের গির অঞ্চলের জঙ্গলেও ছিল ভোটগ্রহণ কেন্দ্র৷ এই ভোটকেন্দ্রের আওতায় যদিও ছিলেন মাত্র একজন ভোটার৷ তবুও বুথ চালু রাখা হয় নির্বাচন কমিশনের নির্দেশে৷ (প্রতীকী ছবি)

ভারতের লোকসভা নির্বাচনের খুঁটিনাটি

ভোটের পর...

২০১৯ সালের নির্বাচন মোট সাতটি পর্যায়ে সম্পন্ন হবে৷ এই প্রক্রিয়া শেষ হতে সময় লেগে যাবে একমাসেরও বেশি৷ ২০১৯ সালের নির্বাচন হবে ১১ এপ্রিল থেকে ১৯ মে পর্যন্ত৷ আগে যদিও ব্যালট পেপারে ভোট হবার ফলে ফলপ্রকাশ হতে কয়েকদিন লেগে যেত, আজকাল ইলেক্ট্রনিক ভোটিং মেশিন বা ইভিএম আসার ফলে ফলাফল বেরোতে সময় লাগে মাত্র একদিন৷

ভারতের লোকসভা নির্বাচনের খুঁটিনাটি

কত খরচ?

ভারতের মতো বিশালাকারের দেশের নির্বাচন যে খরচসাপেক্ষ হবে, তা বলাই বাহুল্য৷ নির্বাচন কমিশন প্রকাশিত তথ্য বলছে, ২০১৪ সালের লোকসভা নির্বাচনে খরচ হয় প্রায় সাড়ে পাঁচ কোটি মার্কিন ডলার সমান অর্থ, ভারতীয় মুদ্রায় যা দাঁড়ায় ৩,৮৭০ কোটি রুপির কাছাকাছি৷

ভারতের লোকসভা নির্বাচনের খুঁটিনাটি

কতগুলি ইভিএম?

২০১৪ সালের নির্বাচনে আনুমানিক ১৮ লক্ষ ইভিএম ব্যবহৃত হয়েছিল৷ ইভিএম আসায় নির্বাচনের কাজ দ্রুত শেষ করা গেলেও অনেক রাজনৈতিক দল মনে করে যে এখানেও কারচুপি সম্ভব৷ বিভিন্ন মহল থেকে ব্যালট পেপার ফিরিয়ে আনার দাবি থাকলেও আসন্ন লোকসভা নির্বাচনে তা হবার সম্ভাবনা খুবই ক্ষীণ৷

আরআর/জেডএ (এপি, এএফপি, আনন্দবাজার)


আমাদের অনুসরণ করুন