সোনাগাছির যৌনপল্লি

সমাজ

বারো ঘর, এক উঠোন

পুরনো কলকাতার বাড়ি যেমন হয়, একটি উঠোনকে ঘিরে অনেক ঘর, সোনাগাছির অধিকাংশ পুরনো বাড়িই ঠিক সেই নকশার৷

সমাজ

ঘরকন্যার ছবি

দিনেরবেলা যৌনপল্লির কোনো ঘরে গেলে বোঝার উপায় নেই, যে এটা কোনো সাধারণ গৃহস্থ বাড়ি নয়৷

সমাজ

কিন্তু অন্যরকম

খোলা উঠোনে দাঁড়িয়ে স্নান করেন মেয়েরা, যা কোনো গৃহস্থ বাড়িতে দেখা যায় না৷ কিন্তু উপায় নেই৷ সব ঘরের জন্য আলাদা স্নানের জায়গা এখানে বিলাসিতা৷

সমাজ

পেটের দায়

কিন্তু রোজ সকালে আর পাঁচটা বাড়ির মতো এখানেও রান্না চাপে৷ সব কিছু তো আসলে পেট ভরাবার দায়েই৷

সমাজ

ডাক্তার ভরসা

আগের থেকে অনেক সাবধান হয়েছেন যৌনকর্মীরা, তবু কখনও অসাবধানে যৌনরোগের সংক্রমণ ঘটে৷ তবে তার চিকিৎসার জন্য এখন ডাক্তার পাওয়া যায় হাতের কাছে৷

সমাজ

ভবিষ্যতের ভার

যৌনকর্মীর সন্তান কেন যৌনকর্মীই হবে?‌ অনেক মা তাঁর সন্তানদের পাঠিয়ে দেন পড়াশোনা শিখতে৷ এভাবে অনেকেই নতুন জীবনের খোঁজ পান৷

সমাজ

নিজেদের হাতে

বাচ্চাদের প্রাথমিক পড়াশোনার ভার যৌনকর্মীরা নিজেরাই নেন৷ তারপর উৎসাহীদের পাঠানো হয় প্রথাগত স্কুলে৷

সমাজ

শিশুরাই ভবিষ্যৎ

সোনাগাছির ভবিষ্যৎও এই শিশুরাই৷ যারা স্বপ্ন দেখে বেশ্যাপল্লির বাইরে গিয়ে এক নতুন জীবন খুঁজে নেওয়ার৷ অন্যদেরও দিশা দেখানোর৷

কলকাতার, তথা ভারতের অন্যতম বড় এবং প্রাচীন যৌনপল্লি হলো সোনাগাছি৷ জনশ্রুতি, জনৈক সোনা গাজির দরগা ছিল এই অঞ্চলে, তার থেকেই নাম সোনাগাছি৷ বহু মেয়ে এই যৌনপল্লিতে বিশ্বের আদিমতম পেশায় জড়িত৷

শীর্ষ বন্দ্যোপাধ্যায়, কলকাতা
দেবারতি গুহ