সৌদি আরবে হুতি বিদ্রোহীদের হামলায় আহত ২৬

সৌদি আরবের একটি বিমানবন্দর লক্ষ্য করে ইয়েমেনের হুতি বিদ্রোহীদের ক্ষেপণাস্ত্র হামলায় অন্তত ২৬ জন আহত হয়েছেন৷

দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলের আবহা বিমানবন্দর লক্ষ্য করে বুধবার ভোরে এই হামলার কথা জানিয়েছেন সৌদি নেতৃত্বাধীন জোটের মুখপাত্র কর্নেল তুর্কি আল-মালিকি৷

তিনি জানান, আহতদের মধ্যে দুই শিশুও রয়েছে৷ আহতদের আটজনকে ভর্তি করা হয়েছে হাসপাতালে৷ হামলায় বিমানবন্দরের বিভিন্ন স্থাপনা ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে৷

ইয়েমেন সীমান্তের কাছাকাছি বিমানবন্দরটির অবতরণ এলাকায় ক্ষেপণাস্ত্র আঘাত হানে৷ কয়েক ঘন্টা বিমান চলাচল বন্ধ থাকার পর সেখানে স্বাভাবিক অবস্থা ফিরে আসে৷

‘‘সন্ত্রাসী হামলায় কী ধরনের ক্ষেপণাস্ত্র ব্যবহার করা হয়েছে, তা নির্ধারণে কাজ করছে নিরাপত্তা বাহিনী,'' বলেছেন আল-মালিকি৷‘বেসামরিক লোকজনকে' টার্গেট করে এ হামলাকে যুদ্ধাপরাধ হিসাবে অভিহিত করেছেন তিনি৷

ইয়েমেনের শহরটি যেন এখন মৃত্যুপুরী

জীবনে যুদ্ধ, খেলাতেও যুদ্ধ

এই কিশোরীর হাতে কিন্তু খেলনা বন্দুক! হোদাইদায় শিশু-কিশোররা এখন জেগে যুদ্ধ দেখে, স্বপ্নেও বোধহয় যুদ্ধই দেখে৷ প্রাণ হাতে নিয়ে যখন সবাই শহর ছেড়ে পালাচ্ছে এই কিশোরী কিন্তু খেলনা বন্দুকটি সঙ্গে নিতে ভোলেনি!

ইয়েমেনের শহরটি যেন এখন মৃত্যুপুরী

আতঙ্কগ্রস্ত মা-মেয়ে

সম্প্রতি ইয়েমেনের বন্দর নগর হোদাইদায় জোরদার হামলা চালায় সৌদি আরবের নেতৃত্বাধীন সামরিক জোট৷ গৃহহারা হয় অনেক মানুষ৷ ছবির এই মা-মেয়েও এখন ঘরছাড়া৷ হোদাইদার এক স্কুলই তাদের অস্থায় ঘর৷

ইয়েমেনের শহরটি যেন এখন মৃত্যুপুরী

ক্লান্তিতে ঘুম

শহর ছেড়ে পালাচ্ছে হোদাইদার এক গৃহহারা পরিবার৷ যাত্রাপথে গাড়িতেই এক শিশুর ঘুম৷

ইয়েমেনের শহরটি যেন এখন মৃত্যুপুরী

স্কুলই তার আশ্রয়

বাবা-মা ঘরছাড়া, তাই এই শিশুরও দিন-রাত কাটে স্কুলে৷ স্কুলই তার ক্রীড়াঙ্গন৷

ইয়েমেনের শহরটি যেন এখন মৃত্যুপুরী

দৃষ্টিতে অনিশ্চিত ভবিষ্যৎ

কে জানে এই মা আর শিশুর ভবিষ্যতে কী আছে!

ইয়েমেনের শহরটি যেন এখন মৃত্যুপুরী

কান্না কে দেখে!

আতঙ্কে, নাকি অনাহারে কাঁদছে স্কুলে আশ্রয় পাওয়া এই শিশু?

ইয়েমেনের শহরটি যেন এখন মৃত্যুপুরী

দুঃসময়ে সামান্য প্রাপ্তি

যুদ্ধবিধ্বস্ত এলাকায় ত্রাণ নিয়ে এসেছে রেড ক্রস৷ ত্রাণ নিয়ে ঘরে ফিরছেন একজন৷

ইয়েমেনের শহরটি যেন এখন মৃত্যুপুরী

ক্লাসরুমে খেলাধুলা

খেলার মাঠ আর নিরাপদ নয়৷ তাই স্কুলের ভেতরেই খেলায় মেতেছে দুই কিশোর৷

ইয়েমেনের শহরটি যেন এখন মৃত্যুপুরী

আশ্রয়প্রার্থীদের ভিড়

হোদাইদার এক স্কুল এখন আশ্রয়শিবির৷ সেখানে আশ্রয় পেতেও নাম,ঠিকানা লেখাতে হয়৷ তাই স্কুলের সামনে নারী-শিশুদের ভিড়৷

ইয়েমেনের শহরটি যেন এখন মৃত্যুপুরী

অপেক্ষা

শহর ছাড়তে হবে৷ তাই তল্পিতল্পা নিয়ে গাড়ির সামনে অপেক্ষায় কিছু আতঙ্কিত মানুষ৷

ইয়েমেনের শহরটি যেন এখন মৃত্যুপুরী

মায়ের সুখ

যুদ্ধবিধ্বস্ত দেশের এক আতঙ্কের নগরীতে সন্তানের মুখে খাবার তুলে দিচ্ছেন এক মা৷ মায়ের জন্য এর চেয়ে বড় সুখ আর কী হতে পারে!

আবহা বিমানবন্দরে হামলায় ‘ক্রুজ মিসাইল' ব্যবহার করা হয়েছে বলে জানিয়েছে হুতি বিদ্রোহীরা৷ ‘আত্মরক্ষার জন্য' এই হামলা চালানো হয়েছে বলে মন্তব্য করেছেন বিদ্রোহীদের মুখপাত্র মোহাম্মদ আবদেল-সালাম৷

‘‘পাঁচ বছর ধরে ইয়েমেন অবরোধ ও সানা বিমানবন্দর বন্ধ রাখায় এবং রাজনৈতিক ও শান্তিপূর্ণ সমাধানের দিকে না যাওয়ায় চালানো হয়েছে এ হামলা,'' এক টুইটে লিখেছেন তিনি৷

২০১৫ সাল থেকে হুতি বিদ্রোহীদের বিরুদ্ধে যুদ্ধ চালিয়ে আসছে সৌদি নেতৃত্বাধীন জোট৷ মধ্যপ্রাচ্যের এই বিদ্রোহী গোষ্ঠী ইরান থেকে অস্ত্র ও সমর্থন পেয়ে আসছে বলে অভিযোগ এই জোটের৷

আরো পড়ুন: সুইডেনে শুরু ইয়েমেনের শান্তি আলোচনা

সৌদি নেতৃত্বাধীন জোটের অবরোধের মধ্যে ইয়েমেনের রাজধানী সানাসহ বিভিন্ন এলাকা দখলে রেখেছে হুতি বিদ্রোহীরা৷ এর মধ্যে সানা বিমানবন্দরও আছে তাদের নিয়ন্ত্রণে৷ গত কয়েক মাসে সৌদি আরবকে লক্ষ্য করে বেশ কিছু ড্রোন ও মিসাইল হামলা পরিচালনা করেছে তারা৷

এদিকে, বুধবারের হামলার নিন্দা জানিয়েছে সৌদি আরবের মিত্র দেশ বাহরাইন৷

ইয়েমেনের মানবিক সংকট

সংঘাত ও হামলা

২০১৪ সালের শেষ দিকে ইয়েমেনের প্রেসিডেন্ট আবু রাব্বু মনসুর হাদিকে উৎখাত করে দেশটির হুতি বিদ্রোহীরা৷ ২০১৫ সালের মার্চে তাঁকে আবারও ক্ষমতায় বসাতে হামলা শুরু করে সৌদি নেতৃত্বাধীন আরব জোট৷ গত ডিসেম্বরে জাতিসংঘের নেতৃত্বে যুদ্ধবিরতি ও সৈন্য ফিরিয়ে নেয়ার চুক্তি হয়েছে, কিন্তু তা এখনও বাস্তবায়ন হয়নি৷

ইয়েমেনের মানবিক সংকট

মৃত্যুর মিছিল

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার হিসাবে সৌদি হামলার পর থেকে এখন পর্যন্ত দেশটিতে ১০,০০০ মানুষ নিহত ও ৬০,০০০ হাজার জন আহত হয়েছেন৷ তবে ‘অ্যাকশন এগেইনস্ট হাঙ্গার’ নামের একটি সংগঠনের হিসাবে নিহতের সংখ্যা ৫৭,০০০ ছাড়িয়েছে৷ আরেক সংস্থার হিসাবে ৩৩ লাখ মানুষ দেশটিতে বাস্তুচ্যূত হয়েছে৷

ইয়েমেনের মানবিক সংকট

শিশুদের জন্য নরক

শিশুদের জন্য দেশটিতে বসবাস করা নরকের সমতুল্য বলে অভিহিত করেছে ইউনিসেফ৷ তাদের নভেম্বর ২০১৮ সালের প্রতিবেদন অনুযায়ী, ৫ বছরের নীচের ১৮ লাখ শিশু পুষ্টিহীনতায় ভুগছে৷ ‘সেভ দ্যা চিলড্রেন’এর হিসাবে এপ্রিল ২০১৫ থেকে অক্টোবর ২০১৮ পর্যন্ত ৮৫,০০০ শিশু চরম পুষ্টিহীনতায় মৃত্যুবরণ করেছে৷ ছবিতে পুষ্টিহীনতায় ভোগা ১২ বছর বয়সি এক মেয়েকে হাসপাতালের বিছানার পাশে দাঁড়িয়ে থাকতে দেখা যাচ্ছে৷

ইয়েমেনের মানবিক সংকট

বাল্য বিবাহ

দারিদ্র্যের কারণে প্রতি পাঁচ মেয়ে শিশুর দুজনেরই ১৫ বছর বয়সের আগে বিয়ে হয়ে যাচ্ছে৷ তিন চতুর্থাংশের আঠারো বছরের আগে বিয়ে হচ্ছে৷ অন্যদিকে কয়েক হাজার ছেলে শিশুকে যুদ্ধে সৈনিক হিসেবে ব্যবহার করা হচ্ছে৷

ইয়েমেনের মানবিক সংকট

শিক্ষা থেকে বঞ্চিত

ছবির এই শিশুর নাম আফাফ৷ পুষ্টিহীনতার কারণে দুই বছর ধরে সে স্কুলে যেতে পারছে না৷ জাতিসংঘের হিসাবে, দেশটিতে তার মতো ৭০ লাখ স্কুল বয়সি শিশু আছে৷ তাদের ২০ লাখই এখন শিক্ষা বঞ্চিত৷ আড়াই হাজারের বেশি স্কুল বন্ধ৷ যার দুই তৃতীয়াংশই হামলায় বিধ্বস্ত হয়েছে৷

ইয়েমেনের মানবিক সংকট

মানবিক সংকট

খাবারের দাম বেড়ে যাওয়ায় জীবন ধারণে হিমশিম খাচ্ছেন ইয়েমেনের নাগরিকরা৷ জাতিসংঘের হিসাবে দেশটির আশিভাগ মানুষেরই এখন কোনো না কোনো মানবিক সহযোগিতা প্রয়োজন৷ ইয়েমেনের দুই তৃতীয়াংশ জেলা রয়েছে প্রাক দুর্ভিক্ষ পর্যায়ে৷

ইয়েমেনের মানবিক সংকট

বিচ্ছিন্ন যোগাযোগ

আরব রাষ্ট্রগুলোর মধ্যে ইয়েমেন অন্যতম দারিদ্র্যপীড়িত৷ যুদ্ধ সেই পরিস্থিতিকে আরো নাজুক করেছে৷ ভেঙে পড়েছে যোগাযোগ ব্যবস্থা৷ যার কারণে মানবিক সহায়তা, জ্বালানি, খাদ্যসহ নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্য দেশের সব জায়গায় পৌঁছানো যাচ্ছে না৷ ছবির মহাসড়কটি ইয়েমেনের রাজধানী সানাকে যুক্ত করেছে৷ যেটি বিমান হামলায় ক্ষতিগ্রস্ত৷

ইয়েমেনের মানবিক সংকট

পানির সংকট

দেশটির মানুষ সুপেয় পানির অভাবেও ভুগছেন৷ পাম্পের মাধ্যমে ভূগর্ভস্থ পানি তুলতে হয়৷ কিন্তু জ্বালানির অভাবে সব জায়গায় পানি তোলা সম্ভব হচ্ছে না৷ যে কারণে পানির দামও বেড়ে গেছে৷ অনেক জায়গায় পুকুরের পানিই ব্যবহার করছেন মানুষ৷

এমবি/কেএম (ডিপিএ, এপি, এএফপি)

আরো প্রতিবেদন...

8 ছবি
মিডিয়া সেন্টার | 5 মিনিট আগে

মানবসৃষ্ট মরুভূমি!

বিশ্ব | 15 মিনিট আগে

টাইগার টিমকে অভিনন্দন!

আমাদের অনুসরণ করুন