‘মেক অ্যামেরিকা গ্রেট এগেইন!'

গত সপ্তাহে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের গর্ভপাতবিরোধী একটি সমাবেশে অদ্ভূত পরিবেশ৷ একদিকে স্থানীয় ‘নেটিভ অ্যামেরিকান' বা আদিবাসী গোষ্ঠীর মানুষেরা প্রতিবাদে ব্যস্ত, অন্যদিকে দাঁড়িয়ে চরমপন্থি মনোভাবাপন্ন তরুণেরা৷

এই সমাবেশের একটি ভিডিও ঘিরেই উত্তাল সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম৷ ‘মেক অ্যামেরিকা গ্রেট এগেইন!' মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের রাষ্ট্রপতি নির্বাচনের সময় ডোনাল্ড ট্রাম্পের এই উক্তি মুখে মুখে ঘুরছিল৷ অ্যামেরিকাকে অন্যদের হাত থেকে মুক্ত করে প্রকৃত ‘অ্যামেরিকানদের' হাতে ফিরিয়ে দেওয়ার এই আহ্বানের সমালোচনা করেছিলেন অনেকে৷

বলা হয়, এই উক্তি আসলে ‘হোয়াইট সুপ্রিমেসিস্ট' বা বর্ণবাদী৷ এই উক্তিটি ঘিরে আবার বিতর্কে অ্যামেরিকা৷

গত শনিবারের একটি  গর্ভপাতবিরোধী সমাবেশেতাঁকে উদ্দেশ্য করে বর্ণবাদী বিদ্রুপ করা হয় বলে অভিযোগ তোলেন ন্যাথান ফিলিপস৷

সমাবেশে প্রতিবাদের পন্থা হিসাবে ন্যাথান বেছে নেন নেটিভ অ্যামেরিকান গান ও ঢোল৷

ট্রাম্পপন্থি কয়েকজন তরুণ মাথায় ‘মেক অ্যামেরিকা গ্রেট এগেইন!' লেখা টুপি পরে তাঁকে ঘিরে হাসাহাসি করার একটি ভিডিও ছড়িয়ে পড়লে বাধে বিতর্ক৷

হলিউডের নামিদামি ব্যক্তিত্বরা দাঁড়ান ন্যাথানের পাশে৷ অন্যদিকে শোনা যায়, বর্ণবাদের অভিযোগ নাকি মনগড়া! আসলে নাকি এমন কিছুই ঘটেনি!

এই বিতর্কের কোনো সুরাহা এখনো না হলেও ঘটনাটির ভিডিও সোশাল মিডিয়ায় তোলপাড় তুলেছে৷

শুধুমাত্র টুইটারেই ন্যাথানের একটি ভিডিও দেখা হয়েছে ৪৪ লক্ষবার৷

ইউটিউবের বিভিন্ন চ্যানেলে রয়েছে এই ভিডিও৷ সেখানেও ভিডিওটি দেখা হয়েছে কয়েক লক্ষবার৷

কোন পক্ষের বয়ান ঠিক, তা না জানলেও শিরোনামে আবার ফিরেছে ‘মেক অ্যামেরিকা গ্রেট এগেইন!'

এসএস/এসিবি

জন্মনিয়ন্ত্রণ ব্যবস্থা সম্পর্কে পাঁচটি ভ্রান্ত ধারণা

‘ইন্ট্রাইউটেরাইন কন্ট্রাসেপশন’ সন্তান জন্মদানের ক্ষমতা লোপ করে

অনেকেই ‘ইন্ট্রাইউটেরাইন কন্ট্রাসেপশন’ বা আইইউসি ব্যবহার করতে চান না, কেননা তাদের ধারণা জরায়ুর মধ্যে টি-শেপের একটি ডিভাইস বসানো হলে ভবিষ্যতে চাইলেও সন্তান জন্মদেয়া কঠিন হয়ে পড়বে৷ কিন্তু চিকিৎসকরা বলছেন, এটা ভিত্তিহীন ধারণা৷ আর ভবিষ্যতে আইইউসি পদ্ধতি ব্যবহার করা নারী অন্যদের মতোই সন্তান নিতে পারবেন৷ এই পন্থা যেকোন বয়সের, এমনকি যাদের কোনো সন্তান নেই এমন নারীদের জন্যও কার্যকর৷

জন্মনিয়ন্ত্রণ ব্যবস্থা সম্পর্কে পাঁচটি ভ্রান্ত ধারণা

জন্মনিয়ন্ত্রণ বড়ি খেলে ওজন বাড়ে

জন্মনিয়ন্ত্রণ বড়ির জটিল রাসায়নিক গঠন যা ভ্রুণের বৃদ্ধি রোধ করে, কারো কারো ক্ষেত্রে ওজন বাড়াতে কিছুটা ভূমিকা রাখতে পারে৷ তবে তার মানে এই নয়, যে কোনো নারী, যিনি কিনা বড়ি গ্রহণ করেন, তার ওজন বেড়ে যাবে৷ ওজন আরো অনেক কারণে বাড়তে পারে৷

জন্মনিয়ন্ত্রণ ব্যবস্থা সম্পর্কে পাঁচটি ভ্রান্ত ধারণা

জন্মনিয়ন্ত্রণ বড়ি গ্রহণে মাঝেমাঝে বিরতি দিতে হয়

মেয়েরা চাইলে যতদিন খুশি ততদিন জন্মনিয়ন্ত্রণ বড়ি খেতে পারেন, কারণ এটা পুরোপুরি নিরাপদ৷ আর যখন গর্ভবতী হতে চাইবেন, তখন পিল ছাড়লেই চলবে৷ তবে আপনার চিকিৎসক যে বড়ি খেতে বলেন, সেটা খাওয়া সবচেয়ে নিরাপদ৷

জন্মনিয়ন্ত্রণ ব্যবস্থা সম্পর্কে পাঁচটি ভ্রান্ত ধারণা

যাদের ওজন বেশি বা ধূমপান করেন, তাদের বড়ি খাওয়া উচিত নয়

যারা অনেক ধূমপান করেন, তাদেরক্ষেত্রে সাধারণ বড়ি কাজ নাও করতে পারে৷ কারণ বেশিমাত্রায় ধূমপান সাধারণ বড়ির কার্যক্ষমতা নষ্ট করে দেয়৷ তবে তাদের জন্য উচ্চমাত্রার বড়ি রয়েছে যা চিকিৎসকের পরামর্শ অনুযায়ী গ্রহণ করা যেতে পারে৷

জন্মনিয়ন্ত্রণ ব্যবস্থা সম্পর্কে পাঁচটি ভ্রান্ত ধারণা

ইসি বড়ি আর গর্ভপাত বড়ি একই জিনিস

‘এমার্জেন্সি কন্ট্রাসেপশন’ বা ইসি বড়ি গর্ভপাত বড়ি নয়৷ এটি গর্ভধারণ প্রতিরোধ করে এবং অরক্ষিত যৌনমিলনের পাঁচদিন পর অবধি গ্রহণ করা যায়৷ আর একজন নারী অন্তঃসত্ত্বা হওয়ার পর যদি ইসি বড় গ্রহণ করেন, তবে তা কোনো ফল বয়ে আনবে না৷

সংশ্লিষ্ট বিষয়