রোজায় সন্ত্রাসী হামলার পরিকল্পনাকারী সন্দেহে ৪ ব্যক্তি গ্রেপ্তার

মালয়েশিয়ার রাজধানী কুয়ালালামপুরে পবিত্র রমজান মাসে একাধিক সন্ত্রাসী হামলা চালানোর পরিকল্পনাকারী সন্দেহে চার ব্যক্তিকে আটক করেছে নিরাপত্তা বাহিনী৷ আটককৃতদের মধ্যে দুই রোহিঙ্গাও রয়েছেন৷

মালয়েশিয়ার পুলিশ সোমবার দেশটির এক নাগরিকসহ দুই রোহিঙ্গা এবং এক ইন্দোনেশীয় নাগরিককে গ্রেপ্তারের কথা নিশ্চিত করেছে৷ আটককৃতরা রোজার সময় কুয়ালালামপুর এবং আশেপাশের এলাকায় অনেক মানুষকে হত্যা ও  সন্ত্রাসী হামলার পরিকল্পনা করছিল বলে দাবি পুলিশের৷

প্রসঙ্গত, ২০১৬ সালের জানুয়ারি মাসে ইন্দোনেশিয়ার রাজধানী জাকার্তায় সন্ত্রাসী হামলার ঘটনার পর থেকেই মালয়েশিয়ার নিরাপত্তা বাহিনী সতর্কাবস্থায় রয়েছে৷ আন্তর্জাতিক জঙ্গি গোষ্ঠী ‘ইসলামিক স্টেট' সেই হামলার দায় স্বীকার করেছিল৷

গ্রেপ্তারকৃতদের ‘‘ওল্ফ প্যাক'' আখ্যা দিয়ে দেশটির পুলিশ প্রধান আব্দুল হামিদ বাদর গণমাধ্যমকে বলেছেন, ‘‘প্যাকটির সদস্যরা রমজানের প্রথম সপ্তাহে এক বড় হামলার পরিকল্পনা করেছিল৷ গত নভেম্বরে এক হিন্দু মন্দিরে জাতিগত দাঙ্গার সময় এক মুসলমান দমকলকর্মীকে পিটিয়ে মারার ঘটনার প্রতিশোধ নিতে এমন হামলা চালাতে চাচ্ছিলো তারা৷''

টাইমলাইন: উগ্র-ডানপন্থিদের সন্ত্রাসী হামলা

জার্মানি ২০০৯: ড্রেসডেন কোর্টে নারীকে ছুরিকাঘাত

২০০৯ সালের ১ জুলাই, ড্রেসডেনের জেলা জজ আদালতে মারওয়া এল-শেরবিনি নামের নারীকে ছুরির আঘাতে হত্যা করা হয়৷ ঐ নারী ছিলেন একজন ফার্মাসিস্ট৷ স্বামী ও ছেলে সন্তান নিয়ে ড্রেসডেনে থাকতেন৷ ২৮ বছর বয়সি এক রাশিয়ান-জার্মানের বিরুদ্ধে কোর্টে কটূক্তির অভিযোগের সাক্ষ্য দেয়ায়, যুবক হামলা চালান৷ ঐ যুবক মারওয়াকে ‘সন্ত্রাসী’ ও ‘উগ্র মুসলিম’ বলে গাল দিয়েছিলেন৷ মারওয়া জার্মানিতে ইসলামবিদ্বেষের প্রথম হত্যার শিকার৷

টাইমলাইন: উগ্র-ডানপন্থিদের সন্ত্রাসী হামলা

নরওয়ে ২০১১: ব্রাইভিকের গণহত্যা

২০১১ সালের ২২ জুলাই অ্যান্ডার্স বেহরিং ব্রাইভিক নামের এক উগ্র ডানপন্থি যুবক একাই দু’টি ঘটনায় ৭৭ জনকে হত্যা করেন৷ তিনি প্রথমে অসলোর সরকারি ভবনে বোমা বিস্ফোরণ করেন এবং এরপর উটোয়া দ্বীপে নিরীহ তরুণদের এক সামার ক্যাম্পে গিয়ে গুলিবর্ষণ করেন৷ হামলার আগে তিনি একটি ইশতাহার প্রকাশ করেন৷ সেখানে তিনি সাংস্কৃতিক বৈচিত্র্য ও ‘ইউরোপের ইসলামীকরণ’-এর নিন্দা করেন৷

টাইমলাইন: উগ্র-ডানপন্থিদের সন্ত্রাসী হামলা

যুক্তরাষ্ট্র ২০১৫: চ্যাপেল হিল শ্যুটিং

২০১৫ সালের ১০ ফেব্রুয়ারি ৪৬ বছর বয়সি এক ব্যক্তি প্রতিবেশী তিন বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষার্থীকে গুলি করে হত্যা করেন৷ নিহতরা হলেন দেয়াহ বারাকাত, তাঁর স্ত্রী ইউসর আবু-সালহা ও তাঁর বোন রাজান আবু-সালহা৷ হামলাকারী হত্যাকাণ্ডের আগে নিজেকে একটি সংঘবদ্ধ ধর্মের বিরোধী বলে উল্লেখ করেন৷ এই হত্যাকাণ্ডে অনলাইনে ব্যাপক ক্ষোভের বহিঃপ্রকাশ দেখা যায়৷ টুইটারে #MuslimLivesMatter নামে হ্যাশট্যাগ জনপ্রিয় হয়৷

টাইমলাইন: উগ্র-ডানপন্থিদের সন্ত্রাসী হামলা

যুক্তরাষ্ট্র ২০১৫: চার্লেস্টন চার্চ হত্যাকাণ্ড

২০১৫ সালের ১৭ জুন যুক্তরাষ্ট্রের সাউথ ক্যারোলাইনার চার্লেস্টনে এমানুয়েল আফ্রিকান মেথডিস্ট এপিস্কোপাল চার্চে এক শ্বেতাঙ্গ দক্ষিণপন্থি গুলিবর্ষণ শুরু করেন৷ এটি যুক্তরাষ্ট্রে কালোদের সবচেয়ে পুরোনো চার্চ৷ গুলিতে নয়জন নিরীহ আফ্রিকান-অ্যামেরিকান মারা যান৷ এর মধ্যে একজন যাজকও ছিলেন৷ ২১ বছর বয়সি সেই হত্যাকারীকে রাষ্ট্রীয়ভাবে বিদ্বেষমূলক অপরাধে দণ্ডিত করা হয় এবং মৃত্যুদণ্ড দেয়া হয়৷

টাইমলাইন: উগ্র-ডানপন্থিদের সন্ত্রাসী হামলা

জার্মানি ২০১৬: মিউনিখে গুলি

২০১৬ সালের ২২ জুলাই মিউনিখের ১৮ বছর বয়সি এক তরুণ একটি শপিং মলে ঢুকে গুলি করা শুরু করেন৷ এতে ১০ জন নিহত ও ৩৬ জন আহত হন৷ নিহতদের মধ্যে ঐ হামলাকারীও ছিলেন৷ হামলাকারী একজন ইরানি বংশোদ্ভুত জার্মান নাগরিক ছিলেন৷ পুলিশ জানায়, হামলাকারী বর্ণবাদী মন্তব্য করছিলেন৷ তিনি অভিবাসীদের উপর প্রতিশোধ নিতে চাইছিলেন৷

টাইমলাইন: উগ্র-ডানপন্থিদের সন্ত্রাসী হামলা

যুক্তরাজ্য ২০১৭: ফিন্সবুরি পার্ক মসজিদে হামলা

২০১৭ সালের ১৯ জুন, ৪৭ বছর বয়সি এক ব্যক্তি উত্তর লন্ডনের ফিন্সবুরি মসজিদের সামনে ভ্যান চালিয়ে দিয়ে একজনকে হত্যা ও ১০ জনকে আহত করেন৷ আক্রান্তরা সবাই মুসলিম ছিলেন এবং রমজান মাসে তারাবির নামাজ পড়তে যাচ্ছিলেন৷ ইসলামবিদ্বেষী ওই ব্যক্তিকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দেয়া হয়৷

টাইমলাইন: উগ্র-ডানপন্থিদের সন্ত্রাসী হামলা

যুক্তরাষ্ট্র ২০১৭: শার্লটসভিলেতে নব্যনাৎসিদের ওপর গাড়ি হামলা

২০১৭ সালের ১২ আগষ্ট ভার্জিনিয়ার শার্লটসভিলেতে এক শ্বেতাঙ্গ নাগরিক বিরোধী শিবিরে হামলা চালান৷ বিরোধী শিবিরটিও সাদাদের ছিল এবং সেখানে শ্বেতাঙ্গ শ্রেষ্ঠত্ব প্রতিষ্ঠায় শ্বেতাঙ্গ জাতীয়তাবাদী ও নব্য নাৎসিরা জড়ো হন৷ এতে এক নারী নিহত ও অনেকে আহত হন৷

টাইমলাইন: উগ্র-ডানপন্থিদের সন্ত্রাসী হামলা

ক্যানাডা ২০১৭: কুইবেকে মসজিদে হামলা

২০১৭ সালের জানুয়ারির শেষ দিকে কুইবেকের ইসলামিক কালচারাল সেন্টারে এক বন্দুকধারী সন্ধ্যার দিকে নামাজ পড়ার সময় হামলা চালান৷ এতে ছয় জন নিহত ও এক ডজনেরও বেশি মানুষ আহত হন৷ ক্যানাডার প্রধানমন্ত্রী জাস্টিন ট্রুডো এই হামলাকে জঙ্গি হামলা বলে অভিহিত করেন৷

টাইমলাইন: উগ্র-ডানপন্থিদের সন্ত্রাসী হামলা

যুক্তরাষ্ট্র ২০১৮: সিনাগগে হামলা

২০১৮ সালের ২৭ অক্টোবর ৪৬ বছর বয়সি এক বন্দুকধারী পিটসবুর্গের ইহুদীদের একটি উপাসনালয়ে হামলা চালান৷ এতে ১১ জন নিহত ও ৭ জন আহত হন৷ হামলাকারী হামলার সময় বারবার ইহুদীবিদ্বেষী মন্তব্য করতে থাকেন৷ মার্কিন ইতিহাসে ইহুদীদের ওপর এটাই সবচেয়ে বড় হামলা৷

টাইমলাইন: উগ্র-ডানপন্থিদের সন্ত্রাসী হামলা

জার্মানি ২০১৯: নববর্ষে বোট্রোপ ও এসেনে হামলা

মধ্যরাতের কিছু পর যখন সবাই নিউইয়ার উদযাপন করছিলেন, তখন ৫০ বছর বয়সি এক ব্যক্তি জার্মানির পশ্চিমাঞ্চলের দু’টি শহর বোট্রোপ ও এসেনে হামলা চালান৷ তিনি তার গাড়ি উদযাপনরত অভিবাসীদের ওপর চালিয়ে দেন৷ বোট্রোপে গাড়ি উঠিয়ে দেন সিরিয়ান ও আফগান দু’টি পরিবারের সদস্যদের ওপর৷ এতে আট জন আহত হন৷

টাইমলাইন: উগ্র-ডানপন্থিদের সন্ত্রাসী হামলা

নিউজিল্যান্ড ২০১৯: ক্রাইস্টচার্চে দুই মসজিদে হামলা

ক্রাইস্টচার্চে দুই মসজিদে জোড়া হামলায় কমপক্ষে ৫০ জন নিহত এবং আরো অনেকে আহত হয়েছেন৷ একে উগ্র ডানপন্থিদের জঙ্গি হামলা বলে চিহ্নিত করেছে কর্তৃপক্ষ৷ বন্দুকধারী ব্যক্তি তার বর্ণবাদী ও ইসলামবিদ্বেষী ইশতাহার অনলাইনে প্রকাশ করেন এবং হামলার ঘটনা লাইভস্ট্রিম করেন৷ কিউই প্রধানমন্ত্রী জেসিন্ডা আর্ডার্ন ঘটনাকে নিউজিল্যান্ডের ‘একটি অন্ধকারতম দিন’ বলে মন্তব্য করেন৷

বর্ণবাদী মন্তব্য করে হিন্দু নেতারা সেই দাঙ্গা ঘটিয়েছিল বলে মনে করেন কিছু মালয় মুসলমান৷ এ নিয়ে সেদেশে মুসলমানদের মধ্যে উত্তেজনাও সৃষ্টি হয়েছিল৷ এক সংবাদ সম্মেলনে আব্দুল হামিদ বাদর বলেন, ‘‘ইসলামকে অপমান করেছেন এবং ধর্মটির গুরুত্ব রক্ষায় ব্যর্থ হয়েছেন এমন ব্যক্তিত্বদের হত্যারও পরিকল্পা করেছিল গ্রেপ্তারকৃত চক্রটি৷''

গ্রেপ্তারকৃতদের একজন মিয়ানমার থেকে আগত বিশ বছর বয়সি এক রেস্তোরাঁ কর্মী৷ তিনি মিয়ানমারের রাখাইন অঞ্চলে সক্রিয় বিদ্রোহী গ্রুপ আরকান রোহিঙ্গা স্যালভেশন আর্মি (আরসার)-র সদস্য বলেও জানিয়েছেন আব্দুল হামিদ বাদর৷

উল্লেখ্য, মিয়ানমারে নিপীড়নের শিকার রোহিঙ্গারা প্রতিবেশী দেশ বাংলাদেশ ছাড়াও দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়ার বিভিন্ন দেশে আশ্রয় নিচ্ছে৷ মালয়েশিয়ায় জাতিসংঘের কাছে নিবন্ধিত নব্বই হাজারের মতো রোহিঙ্গা বসবাস করছে৷ তবে বিভিন্ন বেসরকারি উন্নয়ন সংস্থার হিসেবে দেশটিতে দু' লাখের মতো রোহিঙ্গা বাস করছেন৷

এআই/এসিবি (রয়টার্স)

আরো প্রতিবেদন...

10 ছবি
মিডিয়া সেন্টার | 4 ঘণ্টা আগে

বনে গরম বাড়ছে, বাড়ছে আনন্দ

সমাজ সংস্কৃতি | 7 ঘণ্টা আগে

শেষবেলার পরাজয় থেকে কি এবার মুক্তি?

10 ছবি
সমাজ সংস্কৃতি | 7 ঘণ্টা আগে

উৎসবমুখর বাভারিয়া

আমাদের অনুসরণ করুন